Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯, ০৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী
শিরোনাম

‘অটোনমি’ না পেলে প্রশাসনের সাথে প্রোগ্রামে যাবে না শাবির ‘সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট’

শাবি সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৪ আগস্ট, ২০২২, ১১:১০ পিএম

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ( শাবি) জাতীয় বা সাংস্কৃতিক যেকোনো অনুষ্ঠান আয়োজনে ‘অটোনমি’ না পেলে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সাথে প্রোগ্রামে যাবে না বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট। রোববার ( ১৪ আগস্ট) দুপুরবেলা শাবি প্রেসক্লাব কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে এমনটিই জানিয়েছেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের অধীনস্থ সংগঠনগুলোর নেতৃবৃন্দ।

মতবিনিময়কালে বিশ্ববিদ্যালয়ে সংস্কৃতি চর্চার নানান চ্যালেঞ্জ,সুবিধা ও অসুবিধা নিয়ে আলাপ করেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের আওতাধীন সংগঠনগুলো। এসময় তারা তাদের চলমান রুম সংকট, প্রশাসনিক সমন্বয়হীনতা, ফান্ড সংকটসহ নানান বিষয় নিয়ে কথা বলেন। জোটের নেতৃবৃন্দ জানান, প্রতি বছরের ন্যায় এবছরেও প্রথমবর্ষের শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকে সদস্য সংগ্রহের জন্য সাংগঠনিক সপ্তাহ আয়োজনের চেষ্টা করলেও বন্যা পরিস্থিতি, বুলবুল হত্যাকান্ড এবং প্রশাসনের সমন্বয়হীনতার কারণে এখনো তা করতে পারেনি তারা। ফলে জোটের আওতাধীন সংগঠনগুলোতে সদস্য সংগ্রহ ও সাংগঠনিক সম্পর্ক নির্মাণ ও সাংগঠনিক গুনাগুণ বিনির্মাণে লোকবলের ঘাটতি দেখা দিয়েছে। এছাড়াও সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে সমন্বয় করে নানান দিবস ও প্রোগ্রাম আয়োজনে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের অসহযোগিতা ও সমন্বয়হীনতা তুলে ধরেন।


সাংস্কৃতিক জোটের নেতৃবৃন্দ বলেন, “বিগত কিছু প্রোগ্রাম ছিল আমাদেরকে প্রশাসন থেকে বলা হয়েছিল প্রোগ্রাম করে দেয়ার জন্য যা সবসময় করে দেয়া হয়। আমাদের দিক থেকে স্পষ্ট একটা মেসেজ গিয়েছিল, এখন থেকে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট যদি প্রশাসনের কোন প্রোগ্রাম করে তাহলে নিজেরা নিজেদের প্লাটফর্মে নিজেদের তত্ত্বাবধানে নিজেদের মনিটরিংয়ে প্রোগ্রাম করবে। আপনাদের ( বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন) যদি সহযোগিতা করতে হয় সেটা আপনারা ফিন্যান্সিয়াল সাপোর্ট করতে পারেন। বাকিসব কাজে কোনো ধরণের ইন্টারফেয়ার করতে পারবেন না। এর কারণ হচ্ছে বিগত বছরগুলোতে যে প্রোগ্রামগুলো হয়েছে, জোট যা করে দিয়েছে ব্যাপারটা হয়ে গেছে- করতেছে ‘ওরা’ খাটতেছেও ‘ওরা’, আপনি মাঝখান দিয়ে ইন্টারফেয়ার করতেছেন!”

তারা বলেন, “আমাদের আর্গুমেন্টের পয়েন্ট এটাই ছিল - আমরা ফ্রিলি সম্পূর্ণ স্বায়ত্ত্বশাসিতভাবে আমরা আমাদের প্রোগ্রামগুলো করব। জাতীয় দিবস হোক বা কালচারাল দিবস হোক আপনার দরকার হচ্ছে ‘প্রয়োজন’- আমরা প্রোগ্রাম করে দিচ্ছি, কিন্তু সেটা আমাদের মত করে করব। কারণ এটা আমাদের জায়গা। আপনার জায়গা হচ্ছে ‘ওপর’ থেকে দেখা যে এই দিবসের প্রোগ্রাম ওরা করতে পারছে কি না। না পারলে আপনি এসে ইন্টারফেয়ার করেন। কিন্তু আপনি সবসময় ইন্টারফেয়ার করবেন সেটা জোট ( সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট) মানে নাই।”

সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের নেতৃবৃন্দ সাংবাদিকদের আরও বলেন, “লাস্ট দিবসগুলোর প্রতি খেয়াল করলে দেখবেন, জোট করে নাই ( প্রোগ্রাম) মানে করে নাই। জোট ওই জায়গায় স্টিল আছে- অটোনমি যতদিন পর্যন্ত জোট পাবে না, এসব ক্ষেত্রে জোট প্রশাসনের সাথে প্রোগ্রামে যাবে না।”

তারা আরও বলেন, “আমাদের পরিকল্পনা ছিল আমরা নিজেরা নিজেদের প্রোগ্রাম করব। আমাদের দেশের জাতীয় দিবস আমরা পালন করব সেটাতে প্রশাসনের ফান্ডিং থাকুক বা না থাকুক আমরা জোট মিলে সেটা করব। পাই না প্লাটফর্ম, খোলা জায়গায় করব!”

মতবিনিময়কালে সাংস্কৃতিক জোটের সমন্বয়ক ও অন্যতম স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন কিন এর প্রেসিডেন্ট ইফরাতুল হাসান রাহিম, স্পোর্টস সাস্ট এর জেনারেল সেক্রেটারি সাফায়েত জামিল, দিক থিয়েটারের প্রেসিডেন্ট আব্দুল বাছিত সাদাফ, নোঙরের জেনারেল সেক্রেটারি হাসিবুল আলাম চৌধুরী (শান্ত), রিমের প্রেসিডেন্ট আশিক হোসেন (মারুফ), আজ মুক্তমঞ্চের প্রেসিডেন্ট সাদনান রহমান (শিখন), স্বপ্নোত্থানের প্রেসিডেন্ট ধীমান দাস দিব্য, গ্রীন এক্সপ্লোর সোসাইটির প্রেসিডেন্ট মো. মাকসুদুল হোসেন (শাওন), চোখফিল্মের জেনারেল সেক্রেটারি মো. ইমরুল হাসান, ট্যুরিস্ট ক্লাবের প্রেসিডেন্ট আশরাফ ইবনে হেলাল মিনহাজ, সাস্ট সায়েন্স অ্যারেনার প্রেসিডেন্ট মো. আবু কাউছার, কার্টুন ফ্যাক্টরির প্রেসিডেন্ট ¯্নহোশিস পাল, শাহজালাল ইউনিভার্সিটি ফোটোগ্রাফার্স এসোসিয়েশনের জেনারেল সেক্রেটারি মো. মশিউর রহমান ও মাভৈঃ আবৃতি সংসদের জেনারেল সেক্রেটারি দীপংকর দাস বৃন্ত উপস্থিত ছিলেন।

এসময় সাংবাদিকদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন শাবি প্রেসক্লাবের প্রেসিডেন্ট নাজমুল হুদা, ভাইস-প্রেসিডেন্ট রাশেদুল হাসান, জেনারেল সেক্রেটারি আবদুল্লা আল মাসুদ, জয়েন্ট সেক্রেটারি নুরুল ইসলাম রুদ্র, কোষাধ্যক্ষ হাসান নাঈম, দপ্তর সম্পাদক জুবায়েদুল হক রবিন, কার্যকরী সদস্য তানভীর হাসান, শাদমান শাবাবসহ শাবি প্রেসক্লাবের অন্যান্য সদস্যরা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ