Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯, ০৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী
শিরোনাম

তিন জেলায় পানিতে ডুবে ৪ শিশুর মৃত্যু

অভ্যন্তরীণ ডেস্ক : | প্রকাশের সময় : ১৭ আগস্ট, ২০২২, ১২:০০ এএম

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে নিখোঁরের ২ দিন পর মেঘনা নদী থেকে কিশোরের লাশ উদ্ধারের খবর পাওয়া গেছে। এ ছাড়া চট্টগ্রামের লোহাগাড়ায় পুকুরে ডুবে ২ শিশুর মৃত্যু ও সাতক্ষীরার আশাশুনিতে নদীতে ডুবে এক শিশুর মৃত্যু হয় বলে জানা গেছে। এ বিষয়ে আমাদের সংবাদদাতাদের পাঠানো প্রবিবেদনÑ নারায়ণগঞ্জ জেলা সংবাদদাতা জানান, মেঘনায় গোসল করতে গিয়ে নিখোঁজের ২দিন পর এক কিশোরের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গত রোববার নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের ভাটিবন্দর এলাকায় মেঘনা নদীতে গোসল করতে নেমে জাহিদুল আলম মেহেদী (১৮) নামের এক কিশোর নিখোঁজ হয়। পরবর্তীতে ফায়ার সার্ভিসসহ এলাকাবাসী উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করে নিখোঁজ কিশোরের খোঁজ পায়নি। গতকাল মঙ্গলবার সকালে নদীতে লাশ ভেসে উঠলে পুলিশ উদ্ধার করে। জাহিদুল ইসলাম মেহেদী মোগরাপাড়া ইউনিয়নের বাড়ি মজলিস গ্রামের মনির হোসেনের ভাড়াটিয়া শহিদুল ইসলামের ছেলে। তার গ্রামের বাড়ি গাইবান্ধা জেলার সদর থানার কুনারপাড়া গ্রামে।
লোহাগাড়া (চট্টগ্রাম) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, চট্টগ্রামের লোহাগাড়ার বড়হাতিয়া ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড মাইজপাড়ায় গত সোমবার দুপুর ১২টার সময় নতুন পুকুর পাড়ে খেলতে গিয়ে পুকুরে পড়ে যায় দুই শিশু। সাঁতার না জানায় ২ জনই পানিতে ডুবে মৃত্যু হয়। স্থানীয়রা পানিতে ভাসতে দেখে তুলে নিয়ে লোহাগাড়া সদরের একটি প্রাইভেট ক্লিনিকে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক দু’জনকেই মৃত ঘোষণা করেন। শিশুদের নাম তাসফিয়া তাবাসসুম রাইসা (৮), পিতা, আবু তাহের এবং ফাতেমা জান্নাত সুমাইয়া (৯), পিতা- মনির উদ্দীন। তারা দুজনই মাইজপাড়া নূরাণী একাডেমির ৩য় শ্রেণির ছাত্রী। খবর পেয়ে বড়হাতিয়া ইউপি চেয়ারম্যান বিজয় কুমার বড়ুয়া ঘটনাস্থলে যান এবং উভয় শোকাহত পরিবারের সাথে সমবেদনা জ্ঞাপন করেন এবং সান্তনা দেন।
আশাশুনি (সাতক্ষীরা) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, আশাশুনি উপজেলার বিছটে নদীর পানিতে ডুবে এক শিশুর মুত্যু হয়েছে। মৃত শিশুর নাম আবির হোসেন। বয়স দেড় বছর। বিছট গ্রামের আছাদুল সরদার বিছট নদীর বেড়িবাঁধের পাশে বসবাস করেন। গতকাল দুপুর ১২.৩০ টার দিকে শিশুটির মা নদীতে ঠেলা জাল টেনে মাছ ধরছিলেন। শিশুটি পাশে খেলা করছিল। সবার অজান্তে সে নদীতে পড়ে যায়। বেলা ১টার দিকে স্থানীয় মুনছুর সরদার শিশুর লাশ পানিতে ভাসতে দেখে খবর দিলে বাচ্চার মা ছেলেকে না দেখতে পেয়ে ছুটে গিয়ে দেখেন তার ছেলে মারা গেছে। বাচ্চাহারা মায়ের ক্রন্দনে এলাকার বাতাস ভারী হয়ে ওঠে।
আনুলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান রুহুল কুদ্দুছ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ