Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ১০ জুলাই ২০২০, ২৬ আষাঢ় ১৪২৭, ১৮ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

মাশরুমের উপকারিতা

প্রকাশের সময় : ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬, ১২:০০ এএম

আল্লাহতায়ালা মানব জাতির কল্যাণে দুনিয়ায় অগণিত জিনিসের সৃষ্টি করেছেন। এরকম কোটি কোটি সৃষ্টির মধ্যে মানব দেহের জন্য খুবই উপকারী ও ঔষধি গুণে ভরপুর একটি দ্রব্যের সহজ-সরল নাম মাশরুম। মাশরুম মোটামুটি সবার কাছেই পরিচিত। মাশরুমের মধ্যে প্রায় ৭ হাজার প্রজাতি আছে, তন্মধ্যে ১০০ প্রজাতির মতো মানুষের ব্যবহারের জন্য উপযুক্ত। এটি মাংসল ছত্রাক থেকে হয়, যা আদিকাল থেকে সাধারণভাবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। মাশরুমের মধ্যে আলু, গাজর এবং বীটের মতো বেশি প্রোটিন থাকে বিধায় শরীরের ওজন কমানোর জন্য ভালো উৎস। বাংলাদেশের অনেক জায়গায় মাশরুম বাণিজ্যিকভাবে চাষ করা হচ্ছে। চলুন তাহলে জেনে নেই মাশরুমের কিছু বিস্ময়কর স্বাস্থ্য উপকারিতা সম্পর্কে। কার্যকর উপাদান : প্রতি ১০০ গ্রাম মাশরুমে আছে শক্তি-১১৩ ক্যাল, কার্বোহাইড্রেট-৪.১ গ্রাম, চর্বি-০.১ গ্রাম, প্রোটিন-২.৫ গ্রাম, ঞযরধসরহব (ঠরঃ.ই১)-০.১ মিগ্রা (৯%), জরনড়ভষধারহ (ঠরঃ. ই২)-০.৫ মিগ্রা (৪২%), ঘরধপরহ (ঠরঃ. ই৩)-৩.৮ মিগ্রা (২৫%), চধহঃড়ঃযবহরপ অ্যাসিড (বি-৫)-১.৫ মিগ্রা (৩০%), ভিটামিন-সি-০ গ্রাম (০%), ক্যালসিয়াম-১৮ মিগ্রা (২%), ফসফরাস-১২০ মিগ্রা (১৭%), পটাসিয়াম-৪৪৮ মিগ্রা (১০%), সোডিয়াম-৬ মিগ্রা (০%) ও দস্তা-১.১ মিগ্রা। ব্যবহার : মাশরুম উদ্ভিজ্জ বিশ্বের মাংস নামে পরিচিতি। ভোজ্য মাশরুম রান্নায় ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হয়।
মাশরুমে শস্য, ডাল, শাক সবজি হতে অনেক বেশি প্রোটিন এবং অ্যামাইনো এসিড বিদ্যমান থাকে যার পরিমাণ ১টি ডিমের চেয়েও বেশি।
মাশরুমে নাইসিন নামক খনিজ পদার্থ রয়েছে, যা অন্য কোন সবজির চেয়ে দশ গুণ বেশি।
মাশরুমের চড়ষুংধপপযধৎরফবং, এষুপড়ঢ়ৎড়ঃবরহং এবং চৎড়ঃবড়মষুপধহং ঔষধীয় উপকরণ রয়েছে। কিছু ঔষধি মাশরুম চিহ্নিত হয়েছে যেগুলো কার্ডিও ভাসকুলার, রোগাদির বীজনাশক এবং অহঃরফরধনবঃরপ বৈশিষ্ট্য প্রদর্শন করে। বর্তমানে জাপান, কোরিয়া এবং চীনে চায়ের সাথে ব্যাপকভাবে মাশরুমের ব্যবহার হচ্ছে।
মাশরুম একটি এন্টিঅক্সিডেন্ট ধারণকারী উচ্চতর খাদ্য উপাদান যা স্তন ক্যান্সার, উচ্চ কোলেস্টেরল, হৃদরোগ, উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস এবং মেদ প্রতিরোধে সাহায্য করে।
গর্ভবতী মহিলার শরীরে মাশরুম রক্তস্বল্পতার চিকিৎসা হিসেবে ব্যবহৃত হয়। তাই হাকিম ও কবিরাজদের পরামর্শ মতো মাশরুম ব্যবহার বা প্রয়োগ করতে পারলে উপকার পাওয়া যাবে। আল্লাহতায়ালা আমাদের ও আপনার ভালো কাজ কবুল করুন।
ষ ডা. মাও. লোকমান হেকিম
চিকিৎসক-কলামিস্ট



 

Show all comments
  • na ১২ নভেম্বর, ২০১৭, ৯:৪৭ পিএম says : 0
    ধন্যবাদ আমি চাষ করতে ইচ্ছুক ।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মাশরুমের উপকারিতা

১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬
আরও পড়ুন