Inqilab Logo

রোববার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০ আশ্বিন ১৪২৯, ২৮ সফর ১৪৪৪

রাশিয়া থেকে আমরাও তেল কিনতে পারব : প্রধানমন্ত্রী

২ হাজার ৫০৪ কোটি টাকা ব্যয়ে একনেকে ছয় প্রকল্প অনুমোদন

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৭ আগস্ট, ২০২২, ১২:০০ এএম

বর্তমান সঙ্কট নিরসনে রাশিয়া থেকে জ্বালানি তেল কীভাবে আমদানি করা যায়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ‘তার উপায় খুঁজে বের করার নির্দেশ দিয়েছেন’ বলে জানিয়েছে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ভারত যদি রাশিয়া থেকে তেল আমদানি করতে পারে, তাহলে আমরা কেন পারব না? রাশিয়ার কাছ থেকে তেল আমদানি করা গেলে বিনিময় মুদ্রা ‘রুবল’ অথবা সোয়াপ কী হবে, সে বিষয়েও একটি সমাধান খুঁজে বের করতে প্রধানমন্ত্রী সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানান এম এ মান্নান।

এছাড়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, মূল্যস্ফীতির কারণে নিম্ন আয়ের মানুষের কষ্ট হচ্ছে। কীভাবে মূল্যস্ফীতি প্রশমন করা যায়, সে বিষয়ে কৌশল খুঁজতে হবে। প্রধানমন্ত্রীর অনুশাসন তুলে ধরে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, অর্থ মন্ত্রণালয় ও অন্যান্য সব মন্ত্রণালয় আমরা দেখব, যাতে মূল্যস্ফীতি কীভবে আরও প্রশমিত করা যায়। একই সঙ্গে কৃষিতে সর্বাধিক সহায়তার নির্দেশও দিয়েছেন শেখ হাসিনা। আমরা বিভিন্ন ক্ষেত্রে স্বাবলম্বী হতে চাই। বিশেষ করে খাদ্যে। এজন্য কৃষি সংশ্লিষ্ট যা কিছু আছে, অর্থাৎ বীজ, সার, পানি সেচ, কৃষিপণ্য পরিবহন ও পরিচালন ইত্যাদি বিষয়গুলোতে সহায়তা দেয়া হবে। ভর্তুকিও দেয়া হবে। সেচের কাজ সোলারে করতেও বলেছেন তিনি।
গতকাল মঙ্গলবার রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় দেশের সামগ্রিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনার এক পর্যায়ে সভাপতির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রীর এই নির্দেশনা আসে। সভায় ছয়টি প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়েছে। সভা শেষে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান এবং পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম সংবাদ সম্মেলনে বিস্তারিত জানান।

সূত্র জানায়, সোমবার উত্তরায় বিআরটি প্রকল্পের গার্ডার পড়ে ৫ জন নিহতের ঘটনার একটি প্রতিবেদন একনেকে প্রধানমন্ত্রীর সামনে উপস্থাপন করেন সড়ক পরিবহন ও সেতু বিভাগের সচিব। এ পরিপ্রেক্ষিতে দ্রুত আরও গভীর তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এটা অত্যন্ত দুঃখজনক ও মর্মান্তিক ঘটনা। এই কাজের সঙ্গে যুক্ত ঠিকাদার ও প্রকল্প পরিচালকসহ সবাই কীভাবে এমন একটা কাজ করল? এটা খতিয়ে দেখতে হবে। দোষী সাব্যস্ত হলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার পাশাপাশি প্রয়োজনে ঠিকাদার কোম্পানিকে কালোতালিকাভুক্ত করতে হবে। একনেক বৈঠকে বিদ্যুৎতের ওপর চাপ কমাতে সৌরবিদ্যুৎ চালিত পানির সেচপাম্প বসানোর নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় সøুইসগেট নির্মাণ না করার নির্দেশ দিয়েছেন শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, পানি চলাচল করে প্রবাহ ঠিক রাখতে হবে। কিন্তু তাই বলে অবৈজ্ঞানিকভাবে সøুইসগেট নির্মাণ বন্ধ করতে হবে। কারণ বিদ্যমান সøুইসগেটগুলো একবার উঠালে নামতে চায় না, আবার নামলে উঠতে চায় না। তাহলে এগুলো বানিয়ে কি লাভ।

একনেক বৈঠকের শুরুতেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, তার সরকার নিম্নবিত্ত ও নির্দিষ্ট আয়ের মানুষের জন্য নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যমূল্য সহনীয় পর্যায়ে নামিয়ে আনার লক্ষ্যে বেশকিছু পদক্ষেপ নিচ্ছে। এ সময় তিনি সবাইকে সতর্ক করে বলেন, দেশ যখন এগিয়ে যায় এবং সাধারণ মানুষ একটু ভালো থাকতে শুরু করে, তখনই দেশে বিভিন্ন ষড়যন্ত্র-চক্রান্ত শুরু হয়ে যায়। পণ্যমূল্য সহনীয় পর্যায়ে কীভাবে নিয়ে আসতে পারি, সেই ব্যবস্থা আমাদের নেয়া একান্তভাবে জরুরি। কারণ, মানুষের জন্যই তো রাজনীতি করি। মানুষ কষ্ট পেলে আমারও কষ্ট হয়। সাধারণের কষ্ট লাঘবে ১৫ টাকা কেজিতে ৫০ লাখ মানুষকে চাল কেনার সুবিধার পাশাপাশি প্রায় এক কোটি ‘বিশেষ পারিবারিক কার্ড’ দিয়ে ন্যায্যমূল্যে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য সরবরাহের উদ্যোগ আছে। আমাদের এ ধরনের আরো কিছু পদক্ষেপ নিতে হবে যাতে নিম্নবিত্ত, মধ্যবিত্ত, সাধারণ মানুষগুলো কষ্ট না পায়।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, দেশের সার্বিক অর্থনীতি এখন অনেক ভালো। তবে বিশ্বব্যাংক ও আইএমএফ বলেছে আন্তর্জাতিকভাবে জিডিপি প্রবৃদ্ধি কমে যাবে। আমরা এর বাইরে নই। রাশিয়া-ইউক্রেনযুদ্ধ কবে শেষ হবে কেউ জানে না। এটা অন্য যুদ্ধগুলোর মতো নয়। এটাকে জটিল যুদ্ধ বলা যায়। এ পরিস্থিতি উত্তরণে আমরা খরচ কাটছাঁট করব না। তবে সাবধানে প্রয়োজনীয় সার্বিক ব্যয় করব। তিনি জানান, আমাদের রিজার্ভ স্থিতিশীল আছে। রেমিট্যান্স উৎসাহ ব্যাঞ্জক, গত বছরের একই সময়ে তুলনায় ঈদের পর ৩০ শতাংশ বেশি রেমিট্যান্স এদেশে এসেছে। রাজস্ব আদায় বেড়েছে। রফতানিতে ভালো হাওয়া বইছে। বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলে দাম কমছে। ইউক্রেন থেকে খাদ্যশস্য রফতানি শুরু হয়েছে। ফলে আমরা খাদে পড়ই না। বরং যারা ২ মাস আগেও বলেছিল আমরা শ্রীলঙ্কা হয়ে যাচ্ছি, তাদের আশঙ্কা দূর হয়েছে। আশা করছি, আগামী সেপ্টেম্বরের মধ্যেই লেডশেডিং থাকবে না।

পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম ব্রিফিং এ বলেন, আমাদের মুদ্রার সঙ্গে অন্য দেশের মুদ্রার কীভাবে সোয়াপ করা যায়, সেটি ভেবে দেখছে সরকার। এক্ষেত্র সমধর্মী দেশ হলে ভালো হয়। কেননা, আমদানি-রফতানির ব্যবধান যদি ব্যাপক হয়, তাহলে এ পদ্ধতি কাজ করবে না। কিন্তু যেসব দেশের সঙ্গে আমাদের বাণিজ্য ঘাটতি কম, সেগুলোতে এটা চালুর কথা ভাবা হচ্ছে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেলের দাম কমলে আমাদের দেশে দাম সমন্বয় করা হবে। তবে এখন যেসব তেল আমদানি করা হচ্ছে, সেগুলো বেশি দামে এলসি খোলা ছিল। কিন্তু দাম কমে ব্যারেল প্রতি ৯০ থেকে ৯৫ ডলার দামের এলসি এখনও কার্যকর হয়নি। কমদামে করার এলসির তেল আসতে আরো দেড় থেকে দুই মাস সময় লাগবে। তিনি বলেন, এরইমধ্যে বিশ্ব মন্দার পূর্বাভাস পাওয়া যাচ্ছে। বিশ্বের দুটি বড় অর্থনীতিতে মন্দার ভাব দেখা যাচ্ছে। কিন্তু এটা ঠিক যে, বিশ্ব মন্দার দর্শন হয়তো আমরা পাব না। কিন্তু তারপরও সতর্ক থাকতে হবে। সরকার সতর্ক আছে।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, বরেন্দ্র এলাকায় পানি সংরক্ষণসহ ছয় প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি। প্রকল্পগুলো বাস্তবায়নে মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ২ হাজার ৫০৪ কোটি ৭৫ লাখ টাকা। এর মধ্যে সরকারি তহবিল থেকে ১ হাজার ৬২৮ কোটি ১৩ লাখ টাকা এবং বৈদেশিক ঋণ সহায়তা থেকে ৮৭৬ কোটি ৬২ লাখ টাকা ব্যয় করা হবে। এমএ মান্নান বলেন, বরেন্দ্র অঞ্চলে পানি সঙ্কটের কারণে ফসল উৎপাদন ব্যাহত হয়। এজন্য পানি সংরক্ষণের মাধ্যমে ফসল উৎপাদন বৃদ্ধি করা হবে। এছাড়া ভূউপরিস্থ পানির ব্যবহারে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে।

একনেকে অনুমোদিত প্রকল্পগুলো হচ্ছে-
সোনাপুর-কবিরহাট-কোম্পানীগঞ্জ (বসুরহাট-দাগনভুঁইয়া) আঞ্চলিক মহাসড়ক যথাযথ মানে উন্নীতকরণ প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ৪৫৭ কোটি টাকা। গল্পামারী-বটিয়াঘাটা-দাকোপ-নলিয়ান ফরেস্ট সড়কের ২৮তম কিলোমিটারে চুনকুড়ি নদীর উপর চুনকুড়ি সেতু নির্মাণ প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে- ৭৪৫ কোটি ৩৩ লাখ টাকা। আশুগঞ্জ অভ্যন্তরীণ কনটেইনার নদীবন্দর স্থাপন প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ৪৫৮ কোটি টাকা। কর্ণফুলী নদীর তীর বরাবর কালুরঘাট সেতু হকে চাক্তাই খাল পর্যন্ত সড়ক নির্মাণ প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ৪৩৬ কোটি ১৫ লাখ টাকা। বিসিক মুদ্রণ শিল্পনগরী প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছেÑ ১২৫ কোটি ৮৫ লাখ টাকা। বরেন্দ্র এলাকায় খালে পানি সংরক্ষণের মাধ্যমে সেচ সম্প্রসারণ প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছেÑ ২৪৯ কোটি ৪০ লাখ টাকা।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, পরিকল্পনা বিভাগের সচিব মামুন-আল-রশীদ, ভৌত অবকাঠামো বিভাগের সদস্য সত্যজিৎ কর্মকার, তথ্য ও ব্যবস্থাপনা বিভাগের সচিব ড. শাহনাজ আরেফিন এবং পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য মোসাম্মৎ নাসিমা বেগম প্রমুখ।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্র ও সউদী আরবের পরে বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম তেল উৎপাদনকারী দেশ রাশিয়া আগে প্রতিদিন প্রায় ৫ মিলিয়ন ব্যারেল অপরিশোধিত তেল রফতানি করত, যার অর্ধেকের বেশি যেত ইউরোপে। গত ফেব্রুয়ারিতে রুশ বাহিনী ইউক্রেইনে আগ্রাসন শুরু করলে যুক্তরাষ্ট্র এবং তাদের ইউরোপীয় মিত্ররা একের পর এক অবরোধ আরোপ শুরু করে রাশিয়ার ওপর।

এক পর্যায়ে যুক্তরাষ্ট্র রাশিয়ার তেলের ওপরও নিষেধাজ্ঞা দেয়। ইউরোপীয় ইউনিয়নও জ্বালানির জন্য রাশিয়ার ওপর নির্ভরশীলতা কমিয়ে আনার ঘোষণা দেয়। নিষেধাজ্ঞার মুখে অন্য ক্রেতারা রুশ তেল কেনা থেকে পিছু হটলেও বিশ্বের তৃতীয় সর্বোচ্চ তেল আমদানিকারক ও ভোক্তা দেশ ভারত সেই সুযোগ কাজে লাগিয়ে ব্যাপক মূল্য ছাড়ে তাৎক্ষণিক টেন্ডারের মাধ্যমে রাশিয়া থেকে বাড়তি তেল কেনা শুরু করে। চীনও আবার রাশিয়া থেকে তেল কেনা বাড়িয়েছে বলে খবর এসেছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে। এমনিতে মার্কিন নিষেধাজ্ঞার কারণে রাশিয়ার তেল কিনতে অন্য দেশের বাধা নেই। তবে ইউক্রেইন যুদ্ধ নিয়ে কূটনৈতিক টানাপড়নের মধ্যে রাশিয়া থেকে ভারতের অতিরিক্ত তেল কেনার বিষয়টি যে যুক্তরাষ্ট্র ভালোভাবে নেয়নি, তা স্পষ্ট করেই বলেছে ওয়াশিংটন।

যুদ্ধ শুরুর পর পর বিশ্ববাজারে অপরিশোধিতি জ্বালানি তেলের দাম ব্যারেলে ১৩০ ডলার ছাড়িয়ে গেলেও এখন তা কিছুটা কমে এসেছে। কিন্তু তেল আমদানির খরচ বেড়ে যাওয়ায় ভর্তুকি কমাতে আর ডলার বাঁচাতে সরকার আগস্টের শুরুতে জ্বালানি তেলের দাম ৫০ শতাংশ পর্যন্ত বাড়িয়েছে, যার প্রভাবে জীবনযাত্রার ব্যয় বেড়ে গেছে অনেকটা। তেল বাঁচাতে সরকার বিদ্যুৎ উৎপাদনও কমিয়ে দিয়েছে, পরিস্থিতি সামাল দিতে রুটি করে সব এলাকায় লোড শেডিং করতে হচ্ছে। বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ গত মে মাসে জানিয়েছিলেন, বাংলাদেশে অপরিশোধিত জ্বালানি তেল বিক্রির প্রস্তাব দিয়েছে রশিয়া। তবে রাশিয়ার তেল বাংলাদেশের রিফাইনারিতে ‘পরিশোধনযোগ্য নয়’ জানিয়ে ওই প্রস্তাব এড়িয়ে যাওয়ার ইঙ্গিত সে সময় দিয়েছিলেন তিনি।

 



 

Show all comments
  • Toʜɩɗʋɭ Ɩsɭʌɱ Jɘwɘɘɭ ১৭ আগস্ট, ২০২২, ৭:০৮ এএম says : 0
    আপনি সব কিছু রাতে কেন ঘোষনা দেন সেটা মাথায় আসেনা আমার
    Total Reply(0) Reply
  • আলিফ ১৭ আগস্ট, ২০২২, ৭:০৯ এএম says : 0
    এ রকম উদ্যোগ অনেক আগে নিলেই ভালো হতো ম্যাডাম।
    Total Reply(0) Reply
  • আলিফ ১৭ আগস্ট, ২০২২, ৭:১০ এএম says : 0
    আমরা চাই অন্য কোনো দেশের উপর নির্ভর না হয়ে নিচেরা স্বয়ং সম্পূর্ণ হওয়া। কাজেই আমরা এ ব্যাপারে সব সময় এক আছি।
    Total Reply(0) Reply
  • আবির ১৭ আগস্ট, ২০২২, ৭:১৩ এএম says : 0
    দেশের মানুষ খুব কষ্টে আছে এ বিষয়ে দেখবেন ম্যাডাম। যেভাবে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম বাড়তেছে মানুষের মরা ছাড়া কোনো উপায় থাকবে না। ম্যাডাম সবার আগে সাধারণ মানুষের কষ্টগুলো দেখবেন।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: প্রধানমন্ত্রী

২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২২

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ