Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯, ০৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী
শিরোনাম

চীনকে ঠেকাতে দেশিয় প্রযুক্তিই ভরসা ভারতের

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৭ আগস্ট, ২০২২, ১:০৭ পিএম

লাদাখে চীনের সাথে শক্তিতে পারছে না ভারত। এবার তাদের মোকাবেলা করতে দেশি প্রযুক্তিতে তৈরি একগুচ্ছ অস্ত্র তুলে দিলেন ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং। মঙ্গলবার হাতে পাওয়া এ অস্ত্রগুলি পূর্ব লাদাখে ব্যবহার করবে ভারত।

দেশি প্রযুক্তিতে তৈরি ভারতের নতুন এসব অস্ত্রের মধ্যে আকাশপথে চালকবিহীন নজরদারি ব্যবস্থা ছাড়াও রয়েছে নজরদারির কাজে প্রয়োজনীয় অত্যাধুনিক যন্ত্র (Surveillance Hardware), নজরদারিতে ব্যবহার করার মতো নৌকা (Patrolling Boats), 'Future Infantry Soldier as a System', অ্যান্টি পারসোনেল মাইন নিপুন (Nipun), ইনফ্র্যান্ট্রি প্রোটেকটেড মোবিলিটি ভেইকেল (Infantry-Protected Mobility Vehicles)। আধুনিক যোগাযোগ ও সিগন্যাল ব্যবস্থায় পারদর্শী কিছু সরঞ্জামও মঙ্গলবার সেনা বাহিনীর হাতে তুলে দেন রাজনাথ সিং। লাদাখের দুর্গম এলাকায় টার্গেট লক্ষ করে ট্যাঙ্ক চালাতে ব্যবহার করা যাবে এমন কিছু সরঞ্জামও এদিন সেনার হাতে এসেছে।

এমনিতেই চীনের থেকে প্রযুক্তি ও শক্তিতে অনেক পিছিয়ে ভারত। চীনের তৈরি অস্ত্র যতটা প্রশংসিত, ভারতের অস্ত্র ততটাই সমালোচিত। কিন্তু বিদেশ থেকে অস্ত্র কিনেও চীনকে টক্কর দেয়া সামর্থ্য ভারতের নেই। তাই বাধ্য হয়ে দেশি অস্ত্রেই ভরসা করতে হচ্ছে ভারতকে। গত কয়েক বছরে লাদাখ সীমান্তে তৎপরতা বাড়িয়েছে চীন। গালওয়ান পরবর্তী পরিস্থিতিতে প্রয়োজনে চীনকে মোকাবেলা করতে নতুন কিছু পদক্ষেপ নিয়েছে ভারতীয় সেনা বাহিনী। সেই টার্গেটেই বাহিনীতে নতুন এই অস্ত্র সম্ভার যোগ করা হল।

প্যাংগং লেকে চীনা বাহিনীর অতিরিক্ত তৎপরতা রুখতে এ পদক্ষেপ নিয়েছে ভারত। বাড়ানো হচ্ছে নজরদারি। সেই টার্গেটে নতুন নজরদারি বোট, ল্যান্ডিং ক্রাফ্ট অ্যাসল্ট (Landing Craft Assault-LCA)-সহ আধুনিক নজরদারি ব্যবস্থা তৈরি করা হয়েছে। সম্পূর্ণ দেশি প্রযুক্তিতে তৈরি এই সরঞ্জাম দিয়ে চীনকে রুখে দেয়া যাবে বলেই আশা ভারতের সেনা বাহিনীর। প্যাংগং লেকের দুই-তৃতীয়াংশ চীনের দখলে রয়েছে। নতুন নজরদারি ব্যবস্থায় ভারতীয় বাহিনীর নিরাপত্তাও বাড়বে বলে দাবি করা হয়েছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে। সূত্র: টিওআই।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ