Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯, ০৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী
শিরোনাম

জম্মু-কাশ্মিরে একই পরিবারের ৬ জনের লাশ উদ্ধার

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৭ আগস্ট, ২০২২, ৩:২০ পিএম

ভারত শাসিত জম্মু-কাশ্মিরে একই পরিবারের ৬ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। নিহতরা একই পরিবারের সদস্য হলেও পাশাপাশি দু’টি বাড়ি থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

কাশ্মির পুলিশের বরাত দিয়ে বুধবার (১৭ আগস্ট) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় বার্তাসংস্থা এএনআই এবং সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।
পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, বুধবার সকালে জম্মুর সিধরা অঞ্চলের তাউয়ি বিহারের পরপর দু’টি বাড়ি থেকে মোট ৬ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এরমধ্যে একটি বাড়িতে ৪টি মরদেহ পড়েছিল, পরে পাশের বাড়ি থেকে আরও দু’টি লাশ খুঁজে পাওয়া যায়। মৃত্যুর কারণ এখনও জানা যায়নি।
এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মৃতদের নাম সাকিনা বেগম, তার দুই কন্যা নাসিমা আখতার ও রুবিনা বানু, ছেলে জাফর সালিম। এছাড়াও তাদের দুই আত্মীয় নুর উল হাবিব ও সাজাদ আহমেদের মরদেহও উদ্ধার করা হয়েছে।

সংবাদমাধ্যম বলছে, বুধবার সকালে স্থানীয় বাসিন্দারাই পুলিশকে খবর দেয়। পরে ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশ পাশাপাশি দু’টি বাড়ি থেকে ৬টি মরদেহ উদ্ধার করে। মৃতদেহগুলো ময়নাতদন্তের জন্য জম্মুর সরকারি মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এছাড়া ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৭৪ ধারায় রহস্য মৃত্যুর মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সংবাদমাধ্যম বলছে, মঙ্গলবার থেকে ওই দুই বাড়ি থেকেই কোনো সাড়া-শব্দ না পাওয়ায় স্থানীয় বাসিন্দাদের সন্দেহ হয়। বুধবার সকালে ডাকাডাকি করা হলেও, কোনো সাড়া মেলেনি। পরে বাড়িতে ঢুকে স্থানীয়রা চারজনের মরদেহ পড়ে থাকেতে দেখেন।
পাশের বাড়িতেই ওই নারীর দুই আত্মীয় থাকতেন, তাদের ডাকতে গেলে তাদেরকেও নিথর অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়। এরপরই স্থানীয় বাসিন্দারা পুলিশে খবর দেন।

এর আগে ২০১৮ সালে দিল্লির বুরারির একটি বাড়ি থেকে একই পরিবারের ৬ জনের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছিল। সেই ঘটনায় সেসময় শোরগোল পড়ে যায় গোটা ভারতে।
এরপরে চলতি বছরেও উত্তরপ্রদেশে একই পরিবারের ৬ জনের রহস্যজনক মৃত্যু হয়। আর এবার সেই ঘটনারই যেন প্রতিচ্ছবি দেখা গেল জম্মুতে। সূত্র : এনডিটিভি



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ