Inqilab Logo

সোমবার, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ১৮ আশ্বিন ১৪২৯, ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী
শিরোনাম

কেন তুরস্কে বাড়ি কিনতে আগ্রহী রুশ ধনকুবেররা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ আগস্ট, ২০২২, ১২:০০ এএম

তুরস্কে সম্পত্তির মালিকানা পাওয়ার জন্য রাশিয়ান ক্রেতাদের মধ্যে আগ্রহ বাড়ছে। তুর্কি পরিসংখ্যান সংস্থা অনুসারে জুলাই মাসে রাশিয়ানরা দেশটিতে ১ হাজারেরও বেশি সম্পত্তি কিনেছিল, যা ওই মাসের মোট বিদেশী ক্রেতাদের ২৫ শতাংশেরও বেশি প্রতিনিধিত্ব করে।

ইউক্রেনে অভিযান শুরুর পর থেকে তুরস্কে সম্পত্তি কেনার জন্য রাশিয়ানদের আগ্রহ নাটকীয়ভাবে বেড়েছে, তারা ইরান এবং ইরাক থেকে ক্রেতাদের ছাড়িয়ে বৃহত্তম জাতীয়তা হয়ে উঠেছে। গত বছরের এপ্রিল থেকে জুলাই পর্যন্ত রাশিয়ানদের কাছে মোট ১,১৮৬টি সম্পত্তি বিক্রি হয়েছে, যা বিদেশীদের কাছে বিক্রয়ের আট শতাংশ প্রতিনিধিত্ব করে। ২০২২ সালে একই চার মাসের সময়ের জন্য সেই সংখ্যা বেড়েছে ৫,৩৪২, যা বিদেশীদের কাছে বিক্রির এক পঞ্চমাংশেরও বেশি। তুরস্কে সম্পত্তি কেনার অন্যতম আকর্ষণ হল ক্রেতারা প্যাকেজের অংশ হিসেবে তুর্কি নাগরিকত্বও পেতে পারেন। এপ্রিলে, তুরস্কের সরকার নাগরিকত্ব প্রদানকারী সম্পত্তির মূল্য বাড়িয়েছে। বিদেশীদের এখন একটি সম্পত্তির জন্য ৪ লাখ ডলার দিতে হবে এবং একটি তুর্কি পাসপোর্ট পেতে কমপক্ষে তিন বছর সেটি ধরে রাখতে হবে।

পূর্বে, অঙ্কটি ছিল ২ লাখ ৫০ হাজার ডলার। ২০১৭ সালের আগে এটি ছিল ১০ লাখ ডলার। কিন্তু আরো বিদেশী ক্রেতা আকৃষ্ট করার জন্য ২০১৭ সালে এটি হ্রাস করা হয়েছিল। প্রতিক্রিয়া হিসাবে তুরস্কের সম্পত্তির বাজারে বিদেশী ক্রেতার মোট সংখ্যা ২০১৭ সালে ২২,৪০০ থেকে ২০১৮ সালে ৪০ হাজারে গিয়ে দাঁড়িয়েছে। মহামারি চলাকালীন মোট কমেছে, কিন্তু ২০২১ সালে এটি প্রায় ৬০ হাজার ছিল। ইতোমধ্যে ২০২২ সালে মোট প্রায় ৪০ হাজার বিদেশী ক্রেতা সম্পত্তি কিনেছে।

ইউক্রেনে রাশিয়ার আগ্রাসনের পর থেকে বিশ্ব মঞ্চে তুরস্ক একটি জটিল ভূমিকা পালন করেছে। এটি ন্যাটোর সদস্য এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নের সাথে সুসম্পর্ক বজায় রাখার চেষ্টা করছে, তবে রাশিয়ার সাথেও ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে। তারা রাশিয়া এবং ইউক্রেনের মধ্যে মধ্যস্থতাকারী হিসাবে কাজ করার চেষ্টা করেছিল; এবং ইউক্রেন থেকে শস্য রফতানি শুরু করার সাম্প্রতিক চুক্তিতে জড়িত ছিল। তারা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপের বেশিরভাগ দেশের বিপরীতে রাশিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেনি। সূত্র : নিউজউইক।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: তুরস্ক

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২২

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ