Inqilab Logo

শনিবার, ২০ আগস্ট ২০২২, ০৫ ভাদ্র ১৪২৯, ২১ মুহাররম ১৪৪৪
শিরোনাম

যশোরের সেই ইউপি চেয়ারম্যানের শর্টগানের গুলিতে এবার ইউপি সদস্য আহত

| প্রকাশের সময় : ২ ডিসেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

যশোর ব্যুরো যশোরের ঝিকরগাছার নির্বাসখোলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলামের লাইসেন্স করা শর্টগানের গুলিতে আহত হয়েছেন এক ইউপি সদস্য। বৃহস্পতিবার দুপুরে ঝিকরগাছা উপজেলার পরিষদের প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসে এ ঘটনা ঘটে। গুলীর ছররায় আহত জহির হোসেন (৪২) ঝিকরগাছা উপজেলার মাগুরা ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য। এর আগে চলতি বছরের ১০ জুন ওই শর্টগান দিয়েই ছেলে সোহাগ হোসেনের পায়ে গুলি করেছিলেন ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম। দু’টো ঘটনায় অসাবধানবশতঃ ট্রেগারে হাত পড়ে বলে চেয়ারম্যান দাবি করেছেন। তিনি এলাকায় ‘মাথা গরম’ চেয়ারম্যান হিসেবে পরিচিত। পর পর দু’টো ঘটনা তদন্ত করে প্রশাসন ওই ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে যাচ্ছেন বলে জেলা প্রশাসনের দায়িত্বশীল সূত্র জানায়। সূত্রটি জানায়, তার শর্টগানের লাইসেন্সটি বাতিল হতে পারে।
প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার ঝিকরগাছার নির্বাসখোলা ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম তার দেহরক্ষী মাসুদকে নিয়ে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসে যান। দুপুর ১২টার দিকে ওই অফিসে অবস্থানকালে শর্টগান নিয়ে নাড়াচাড়া করতে গিয়ে গুলি করে বসেন চেয়ারম্যানের দেহরক্ষী মাসুদ। গুলিটি মেঝেতে লেগে ছররায় আহত হন ইউপি সদস্য। স্থানীয়রা তাকে ঝিকরগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। ঘটনার পরপরই ঝিকরগাছা উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা নাসরিন সুলতানা সাংবাদিকদের জানান, তার কক্ষের পাশেই সহকারী কুমারেশের কক্ষে এ ঘটনা ঘটে। গুলির শব্দে তিনি আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। এছাড়া মুহূর্তে উপজেলা পরিষদ এলাকায় আতংক ছড়িয়ে পড়ে। উপজেলা নির্বাহী অফিসারসহ সব কর্মকর্তা কর্মচারিরা অফিস থেকে বেরিয়ে আসেন। লোকজন ‘মাথা গরম’ চেয়ারম্যানকে গালমন্দ করেন এবং তার শর্টগানের লাইসেন্স বাতিল করতে বলেন প্রশাসনকে।
এদিকে, এর আগে গত ১০ জুন ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম পারিবারিককলহের জের ধরে তার ছেলে সোহাগ হোসেনের পায়ে শর্টগান দিয়ে গুলি করেছিলেন।
ঝিকরগাছা থানার ওসি শেখ আবু সালেহ মাসুদ করিম জানান, তিনি ঘটনাটি জেনেছেন। এ ঘটনায় এখনও কেউ অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ দিলে পুলিশ মামলা গ্রহণ করবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ