Inqilab Logo

রোববার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০ আশ্বিন ১৪২৯, ২৮ সফর ১৪৪৪

জ্বালানি সঙ্কট: জার্মানির অর্থনীতিতে বিপর্যয়ের আশঙ্কা

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৯ আগস্ট, ২০২২, ৫:২৯ পিএম

জ্বালানি মূল্য বৃদ্ধি এবং সরবরাহ শৃঙ্খল বিঘ্নিত হওয়ার কারণে জার্মানির অর্থনৈতিক পূর্বাভাসে সঙ্কটের আশঙ্কা করা হয়েছে বলে শুক্রবার অর্থ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে। এর আগে জার্মানিতে উৎপাদিত পণ্যের দাম বৃদ্ধি পেয়ে রেকর্ড উচ্চতায় উঠতে পারে বলে জানানো হয়েছিল।

জার্মান অর্থনীতি, ইউরোপের বৃহত্তম, দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকে স্থবির হয়ে পড়ে, ইউক্রেনের যুদ্ধ, বিদ্যুতের দাম বেড়ে যাওয়া, মহামারী এবং সরবরাহের ব্যাঘাত দেশটিকে মন্দার প্রান্তে ঠেলে দিয়েছে। ‘অর্থনীতির আরও উন্নয়নের দৃষ্টিভঙ্গি বর্তমানে লক্ষণীয়ভাবে অন্ধকারাচ্ছন্ন,’ মন্ত্রণালয় তার আগস্ট মাসিক প্রতিবেদনে বলেছে, এটি ‘উচ্চ মাত্রার অনিশ্চয়তা’ দ্বারা চিহ্নিত করা হয়েছে।

‘রাশিয়া থেকে উল্লেখযোগ্যভাবে কম গ্যাস সরবরাহ, জ্বালানির জন্য ক্রমাগত উচ্চ মূল্য বৃদ্ধি এবং, ক্রমবর্ধমানভাবে, অন্যান্য পণ্য, সেইসাথে চীনের শূন্য-কোভিড নীতির সাথে সম্পর্কিত দীর্ঘ-প্রত্যাশিত সরবরাহ শৃঙ্খল বিঘ্নিত হওয়ার জন্যও অর্থনীতির উন্নয়নে গুরুতর প্রভাব পরেছে,’ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

শুক্রবার কেন্দ্রীয় পরিসংখ্যান অফিস জানিয়েছে, উৎপাদিত পণ্যের দাম, মুদ্রাস্ফীতির জন্য একটি নেতৃস্থানীয় সূচক হিসাবে বিবেচিত, জুলাই মাসে এবং বছরে উভয় ক্ষেত্রেই তাদের সর্বোচ্চ বৃদ্ধির রেকর্ড দেখেছে, যা প্রাথমিকভাবে জ্বালানির উচ্চ দাম দ্বারা পরিচালিত হয়েছে। জুলাই ২০২১ এর তুলনায় সামগ্রিকভাবে জ্বালানির দাম ১০৫ শতাংম বেড়েছে, প্রধানত প্রাকৃতিক গ্যাস এবং বিদ্যুতের উচ্চ মূল্যের কারণে, অফিস জানিয়েছে।

ইতিমধ্যে জ্বালানির উচ্চ খরচের মধ্যে জার্মান সরকার ১ অক্টোবর থেকে গ্যাস গ্রাহকদের উপর শুল্ক আরোপ করবে যা গড় পরিবারের বার্ষিক জ্বালানি বিলের সাথে কয়েকশ ইউরো যোগ করবে। ধাক্কা সামলাতে গ্যাসের উপর বিক্রয় কর ১৯ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৭ শতাংশ করা হবে যখন শুল্ক কার্যকর থাকবে।

জুলাই মাসে জার্মানির বার্ষিক মুদ্রাস্ফীতির হার ছিল ৮.৫ শতাংশ, যা বিস্তৃত ইউরো জোনের রেকর্ড ৮.৯ শতাংশের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ। জার্মান সরকার এপ্রিল ২০২২ সালে ৬.১ শতাংশ মূল্যস্ফীতির পূর্বাভাস দিয়েছে। সূত্র: রয়টার্স।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: জার্মানি


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ