Inqilab Logo

রোববার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০ আশ্বিন ১৪২৯, ২৮ সফর ১৪৪৪

বড় ধরনের ঘটনা ঘটবে, এরপরও ২০২৪ সালে শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী হবেন: শামীম ওসমান

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৯ আগস্ট, ২০২২, ৯:৫৭ পিএম

‘কিছু ক্ষয় হবে। কিছু শামীম ওসমানের মরদেহ দাফন হবে। কিছু বড় ধরনের ঘটনা ঘটবে। এরপরও ২০২৪ সালে শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী হবেন। এতটুকু খবর রেখে রাজনীতি করি। বাড়াবাড়ি কইরেন না, মা বইলা গো কওয়ার সুযোগ পাবেন না।’

শুক্রবার (১৯ আগস্ট) বিকেলে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার ডিআইটি মাঠে শোক দিবসের আলোচনা সভায় বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে সংসদ সদস্য শামীম ওসমান এসব কথা বলেন। ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে এ আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

শামীম ওসমান বলেন, লেভেল ক্রস করবেন না। সবাই বুঝেন আমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কথা শুনি। এজন্য নারায়ণগঞ্জকে ঠান্ডা রাখি। এবার কিন্তু উনার কথা শুনবো না। যে ভাষায় তুমি খেলবা, আমরা সে ভাষায় খেলবো এবং জিতবো আমরা। যত ইচ্ছা খেলো। শয়তান কখনো আল্লাহর সঙ্গে জিতে না। সে শুধু শয়তানি করতে পারে। শেখ হাসিনার ওপর আল্লাহর রহমত আছে। লন্ডনে বসে পরামর্শ দেন। কিন্তু মা মরে মরে অবস্থা মায়ের জন্য আসেন না আপনি। আপনি দেশের জন্য কেমনে করবেন?

তিনি আরও বলেন, রাজপথ শেখ হাসিনার দখলেই থাকবে। আমাদের শরীরের রক্ত টগবগ করে। যারা যুদ্ধের মাধ্যমে দেশ স্বাধীন করেছেন তাদের দায়িত্ব শেষ। শেখ হাসিনা শুধু আওয়ামী লীগের সম্পদ না, তিনি আগামী দিনের বাচ্চাদের ভবিষ্যৎ। তাকে আঘাত করলে এ দেশ এমন জায়গায় যাবে যেখান থেকে আমরা আদৌ উঠে আসতে পারবো কি-না জানি না। এ সংকটে তারা আঘাত করবে। ক্ষমতায় আসা তাদের মূল টার্গেট না। বাংলাদেশকে তারা ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করতে চায়।

বিএনপি নেতাদের মেরে আওয়ামী লীগের দায় চাপানো হবে বলে উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, শহরে অনেক কালো টাকা ঢুকেছে। বিএনপির মাঝারি সারির নেতাদের মেরে ফেলা হতে পারে। তাদের মেরে আমাদের ওপর দায় চাপানোর চেষ্টা হতে পারে। কয়েকদিন আগে অধ্যাপক মামুনের (জেলা বিএনপির সদস্য সচিব) ওপর হামলা করা হয়েছে। একটুর জন্য বেঁচে গেছেন। এ এলাকার একজন লোক যার হাতে আমাদের বহু লোক মারা গেছে, তার ছেলের নাম এসেছে।’

ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম সাইফুল্লাহ বাদলের সভাপতিত্বে এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন- সাধারণ সম্পাদক শওকত আলী, মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহ নিজাম, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মীর সোহেল ও মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সভাপতি মো. জুয়েল হোসেনসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: শামীম ওসমান


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ