Inqilab Logo

শনিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৮ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী
শিরোনাম

দ. কোরিয়ার প্রেসিডেন্টকে ‘মুখ বন্ধ রাখতে’ বলল উ. কোরিয়া

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২১ আগস্ট, ২০২২, ১২:৪২ পিএম

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট সুক-ইয়ল মে মাসে প্রথম পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণের বিনিময়ে উত্তর কোরিয়াকে অর্থনৈতিক সহায়তা দেওয়ার ‘পরিকল্পনার’ কথা বলেছিলেন।
পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণের বদলে পিয়ংইয়ংকে অর্থনৈতিক সহায়তা দেওয়ার আগ্রহ পুনর্ব্যক্ত করা দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্টকে ‘মুখ বন্ধ রাখতে’ বলেছেন উত্তর কোরিয়ার শীর্ষ নেতা কিম জং উনের প্রভাবশালী বোন কিম ইয়ো জং।
দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট ইয়ুন সুক-ইয়ল মে মাসেই পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণের বিনিময়ে উত্তর কোরিয়াকে অর্থনৈতিক সহায়তা দেওয়ার এ ‘দুঃসাহসী পরিকল্পনার’ কথা প্রথম বলেছিলেন; প্রেসিডেন্ট হওয়ার ১০০ দিন উপলক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে বুধবার তিনি ফের ওই প্রস্তাব দেন।
তার এ প্রস্তাব নিয়ে উত্তর কোরিয়ার একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা হিসেবে শুক্রবার ইয়ো জংই প্রথম মুখ খুললেন বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।
“মুখ বন্ধ রাখাটাই তার ভাবমূর্তির জন্য সবচেয়ে বেশি ভালো হবে,” উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম কেসিএনএ প্রকাশিত এক বিবৃতিতে এমনটাই বলেছেন কিম ইয়ো জং।
উত্তর কোরিয়ার মর্যাদা ও পারমাণবিক অস্ত্রের বিনিময়ে অর্থনৈতিক সহযোগিতা দেওয়ার ইয়ুনের চিন্তাকে ‘বেশিই বোকা বোকা ও শিশুসুলভ’ বলেও অ্যাখ্যা দেন কিম জং উনের প্রভাবশালী এ বোন।
“ভুট্টার কেকের সঙ্গে কেউই তার ভাগ্য বিনিময় করে না,” বলেছেন তিনি।
ইয়ো জংয়ের এ মন্তব্যকে ‘অত্যন্ত অসম্মানজনক ও অশালীন’ অ্যাখ্যা দিয়েছেন উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে সম্পর্কের বিষয়টি দেখভালের দায়িত্বে থাকা দক্ষিণ কোরিয়ার পুনরেকত্রীকরণ মন্ত্রী।
উত্তর কোরিয়া তার পারমাণবিক অস্ত্র সমৃদ্ধকরণ প্রকল্পের সমাপ্তি টেনে নিরস্ত্রীকরণের কাজ শুরু করলে দক্ষিণ কোরিয়া তাদেরকে ধাপে ধাপে অর্ধনৈতিক সহায়তা দিতে আগ্রহী- এমন প্রস্তাবের পাশাপাশি ইয়ুন পিয়ংইয়ংকে মোকাবেলায় সিউলের সামরিক সক্ষমতা বাড়ানোরও জোর চেষ্টা চালাচ্ছেন।
দক্ষিণ কোরিয়া যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে দীর্ঘদিন স্থগিত রাখা যৌথ সামরিক মহড়া পুনরায় শুরু করেছে; কয়েকদিন পর দেশ দুটি বড় ধরনের সামরিক অনুশীলনও শুরু করতে যাচ্ছে।
বুধবার মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র বলেছেন, তারা ইয়ুনের নীতিকে সমর্থন দিচ্ছেন।
এল পাল্টায় ইয়ো জং বলছেন, যুক্তরাষ্ট্র এবং এর মিত্ররা কূটনীতি নিয়ে যেসব কথাবার্তা বলে সেগুলো যে আদতে ভণ্ডামি, যৌথ মহড়াই তা দেখাচ্ছে।
“স্পষ্ট ভাষায় বলতে চাই, আমরা তার সঙ্গে মুখোমুখি বসবো না,” ইয়ুনকে নিয়ে বলেন উত্তরের শীর্ষ নেতার বোন।
বিশেষজ্ঞরা বলছেন, দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্টের এ অর্থনৈতিক সহায়তার প্রস্তাবের সঙ্গে দেশটির আগের প্রেসিডেন্টদের প্রস্তাবের মিল আছে।
যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তরের শীর্ষ নেতা কিম জং উনের মধ্যে হওয়া শীর্ষ সম্মেলনগুলোতেও এমন ধরনের প্রস্তাবই দেওয়া হয়েছিল।
পিয়ংইয়ং যে এ ধরনের প্রস্তাব মেনে নিতে রাজি নয়, তা ওই শীর্ষ সম্মেলনগুলোর ব্যর্থতাই ইঙ্গিত দিচ্ছে।
দিনকয়েক আগে কোভিড-১৯ মহামারীর বিরুদ্ধে জয় ঘোষণা করা উত্তর কোরিয়া বুধবার সাগরে দুটি ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রের সফল পরীক্ষা চালিয়েছে; দুই মাসের মধ্যে এটিই তাদের প্রথম এ ধরনের পরীক্ষা। সূত্র : রয়টার্স।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: উত্তর কোরিয়া


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ