Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ১২ কার্তিক ১৪২৭, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

রবিউল আউয়াল মাস নবী প্রেমিক মুমিন-মুসলমানদের বসন্তকাল-আলহাজ হাফিয সাব্বির আহমদ

| প্রকাশের সময় : ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

লন্ডন প্রতিনিধি : সিলসিলা ইসলামিক সোসাইটি ইউকের পরিচালক ও সাপ্তাহিক পূর্বদিক ও পূর্বদিক ডটকমের প্রকাশক আলহাজ্ব হাফিয সাব্বির আহমদ বলেনÑ রবিউল আউয়াল মাস নবী প্রেমিক মুমিন-মুসলমানদের বসন্তকাল। রাসূলের (সা:) জন্মের এ মাসে বেশি বেশি দুরুদ পাঠ, তার সিরাত বর্ণনা ও সে অনুযায়ী আমল করার সুবর্ণ সময়। রাসূলের প্রতি ইশক ও মুহাব্বতের মাধ্যমে তার নৈকট্য অর্জন করে আল্লাহর খাটি বান্দাহ হওয়ার এক মোক্ষম সুযোগ।
তিনি আরো বলেন, আল্লামা ফুলতলী ছাহেব বাংলার যমিনে রাসূলের মিলাদ পড়ার জন্য, কুরআন তেলাওয়াতে ‘দ্বোয়াদ’ হরফের বিকৃতরূপ ‘জোয়াদ’ এর বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়ায় শরীরের রক্ত ঝরিয়েছেন। তার রক্তের বদৌলতে বাংলাদেশে মিলাদ প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। তিনি ব্রিটেনে সর্বপ্রথম মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা করে সেখানে ঈদে মিলাদুন্নবী (সা:) উদযাপন করেছেন। আজ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে বর্ণাঢ্য আয়োজনে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা:) পালন করা হয়। বৃহস্পতিবার সিলসিলা ইসলামিক সোসাইটি ইউকের উদ্যোগে ফুলতলী ইসলামিক সেন্টার কভেন্টিতে মাসব্যাপী রবিউল আউয়ালের কর্মসূচির প্রথম দিনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আলহাজ হাফিয সাব্বির আহমদ এ কথাগুলো বলেন।   
সিলসিলা ইসলামিক সোসাইটি ইউকের পরিচালক আলহাজ্ব জসিম উদ্দিনের সভাপতিত্বে ও আলহাজ মুজাহিদ খানের পরিচালনায় সভায় প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন, ফুলতলী ইসলামিক সেন্টার কভেন্ট্রির প্রিন্সিপাল মাওলানা আবুল হাসান।এসময় উপস্থিত ছিলেন, আলহাজ গোলাম কিবরিয়া, প্রফেসর আজিজুর রহমান, মো. নাজিম, মো. মাজহারুল হক, মো. ইব্রাহিম প্রমুখ। সভায় বার্মার মুসলমানদের জন্য বিশেষ মুনাজাত করা হয়। তাদের জান মালের নিরাপত্তা আল্লাহর সাহায্য কামনা করা হয়।
সভাপতির বক্তব্যে আলহাজ জসিম উদ্দিন বলেন, বর্তমানে মিলাদুন্নবী (সা.) পালন করাকে কেউ কেউ বেদাত ফতোয়া দেন। এ গোমরাহদের হাতেই ফুলতলী ছাহেব নির্যাতিত হয়েছেন। কিন্তু তারা পরাজিত হয়েছে। আল্লামা ফুলতলীর অনুসারীরা সারাবিশ্বে রাসূলের শান ও মানকে তুলে ধরছেন।
উল্লেখ্য, পবিত্র রবিউল আউয়াল মাস পালন উপলক্ষে সিলসিলা ইসলামিক সোসাইটি ইউকে পরিচালিত প্রতিষ্ঠান ফুলতলী ইসলামিক সেন্টার কভেন্ট্রি মাসব্যাপী কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে কসিদায়ে বুরদাহ খতম, দালায়েলুল খয়রাত খতম, ঘরে ঘরে মিলাদ মাহফিল, ক্বেরাত, আজান, হামদ, নাত ও ইসলামিক কুইজ প্রতিযোগিতা পুরস্কার বিতরণ।



 

Show all comments
  • Nur Alam ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬, ১:৩৯ এএম says : 0
    It's a great speech
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আলহাজ হাফিয সাব্বির আহমদ


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ