Inqilab Logo

শনিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৮ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী
শিরোনাম

শ্রীলংকায় ৬৫ হাজার টন সার পাঠালো ভারত, আইএমএফ প্রতিনিধি দল লংকায়

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৮ আগস্ট, ২০২২, ১০:৩৬ এএম

শ্রীলংকায় গত মাসে ৪৪ হাজার টন ও এমাসে ২১ হাজার টনসহ মোট ৬৫ হাজার টন সার সরবরাহ করেছে ভারত। ভারতীয় হাইকমিশন জানিয়েছে, ভারত সোমবার আসন্ন ধানের মৌসুমে কৃষকদের সাহায্য করার জন্য একটি বিশেষ সহায়তা কর্মসূচির আওতায় শ্রীলঙ্কায় সারের এই নতুন চালান হস্তান্তর করেছে।–ইকোনোমিক টাইমস

চালান হস্তান্তরের পর একটি টুইটে ভারতীয় হাইকমিশনার গোপাল বাগলে বলেছেন, বন্ধুত্ব এবং সহযোগিতার সুবাস যোগ করতে আনুষ্ঠানিকভাবে শ্রীলঙ্কার জনগণের কাছে ভারতের বিশেষ সহায়তা হিসেবে ২১ হাজার টন সার হস্তান্তর করা হয়েছে।
গত মাসে ভারত ৪৪ হাজার টন সার সরবরাহ করেছে বলে হাইকমিশন উল্লেখ করেছে। টুইটে আরও উল্লেখ করা হয়, সার খাদ্য নিরাপত্তায় অবদান রাখবে এবং শ্রীলঙ্কার কৃষকদের সহায়তা করবে। এটি ভারতের সাথে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক এবং ভারত ও শ্রীলঙ্কার মধ্যে পারস্পরিক আস্থা ও সদিচ্ছা থেকে জনগণের জন্য সুবিধা প্রদান করবে।
ভারত এই বছরের জানুয়ারি থেকে ঋণ, ক্রেডিট লাইন এবং ক্রেডিট অদলবদলের ক্ষেত্রে ঋণে জর্জরিত শ্রীলঙ্কাকে প্রায় ৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার প্রদানে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।
মে মাসে ভারত শ্রীলঙ্কাকে আশ্বাস দিয়েছিল যে, দেশটি মে থেকে আগস্ট পর্যন্ত ইয়ালা ধান চাষের মৌসুমে সকল ব্যাঘাত এড়াতে ৬৫ হাজার টন ইউরিয়া সার সরবরাহ করবে। শ্রীলঙ্কার বার্ষিক সার আমদানিতে খরচ হয় ৪০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

শ্রীলংকার প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট গোটাবায়া রাজাপাকসের গত বছর রাসায়নিক সার আমদানি নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত দেশকে একটি সবুজ অর্থনীতিতে পরিণত করার জন্য ৫০% ফসলের ক্ষতির সাথে খাদ্যের ঘাটতি সৃষ্টি করেছিল। রাজাপাকসে স্বীকার করেছেন যে, তার ১০০% অর্গানিক হওয়ার সিদ্ধান্ত ভুল ছিল। দেশে নজিরবিহীন অর্থনৈতিক মন্দার কারণে জ্বালানি ও অন্যান্য নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের তীব্র ঘাটতি দেখা দেয়। খাদ্য, ওষুধ, জ্বালানি, কেরোসিন এবং অন্যান্য আইটেমগুলির মতো প্রয়োজনীয় জিনিসগুলি সরবরাহ করে শ্রীলঙ্কার খাদ্য, স্বাস্থ্য, এবং শক্তি সুরক্ষাকে সুরক্ষিত করতে সাহায্য করার জন্য ভারতের কাছ থেকে প্রায় ৩.৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার অর্থনৈতিক সহায়তা প্রদান শুরু করে।

আইএমএফ প্রতিনিধি দল
সরকারের সাথে একটি কর্মী-স্তরের চুক্তি চূড়ান্ত করার বিষয়ে আলোচনার জন্য আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ) এর একটি শীর্ষ প্রতিনিধি দল ২৪-৩১ আগস্ট পর্যন্ত কলম্বো সফর করবে। শ্রীলঙ্কা জুনে আইএমএফের সাথে একটি সম্ভাব্য বেলআউট প্যাকেজ নিয়ে আলোচনা শুরু করেছিল। তবে দেশের রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে আলোচনা থমকে যায়।

বুধবার রাজাপাকসের কলম্বোতে ফিরে আসার সাথে আলোচনা সমন্বয় করা হবে। রাজাপাকসে তার সরকারের বিরুদ্ধে গণঅভ্যুত্থানের মুখে দেশ ছেড়ে পালিয়েছিলেন এবং পদত্যাগ করেছিলেন। বর্তমান প্রেসিডেন্ট রনিল বিক্রমাসিংহে ফিরে আসার সিদ্ধান্ত নিয়ে রাজাপাকসের সাথে যোগাযোগ করছেন বলে জানা গেছে। প্রধান বিরোধী দল সামাগি জনা বালাওয়েগয়া বলেছেন যে, রাজাপাকসেকে তহবিলের অপব্যবহারের অভিযোগের জন্য বিচার করা উচিত।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: শ্রীলঙ্কা

১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২২
১১ সেপ্টেম্বর, ২০২২

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ