Inqilab Logo

বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৫ মাঘ ১৪২৯, ১৬ রজব ১৪৪৪ হিজিরী

পাকিস্তানে মানবিক সঙ্কটের মাত্রা নজিরবিহীন

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১০:১৯ এএম

জাতিসঙ্ঘের এজেন্সিগুলো পাকিস্তানে বন্যার কারণে গৃহহীন ও অসহায় লাখ লাখ মানুষকে সহায়তা দেয়ার লক্ষ্যে ক্ষয়ক্ষতি মূল্যায়ন এবং প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদানের জন্য দ্রুত ত্রাণসামগ্রী ও কর্মীদের প্রস্তুত করছে।

গত জুন মাস থেকে পাকিস্তানে প্রচণ্ড বৃষ্টিপাতের কারণে দেশটিতে বন্যা হয়ে এর এক-তৃতীয়াংশই পানিতে প্লাবিত হয়। জাতিসঙ্ঘ জানিয়েছে, ১ হাজার ১০০ জনেরও বেশি লোক মারা গেছে। ৬ হাজারেরও বেশি লোক আহত হয়েছেন, ৩ কোটি ৩০ হাজার গৃহহীন হয়ে পড়েছে এবং লাখ লাখ ভবন ও অবকাঠামোর ক্ষতি বা তা ধ্বংস হয়ে গেছে।

ত্রাণ সংস্থাগুলো বলছে, সেতুগুলো ভেঙ্গে যাওয়ায় এবং রাস্তাঘাটগুলো কর্দমাক্ত হওয়ায় সঙ্কট কবলিত অনেক মানুষের কাছে পৌঁছানোর রাস্তা বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা সতর্ক করে দিয়ে বলেছে, বন্যার কারণে মানুষের স্বাস্থ্যগত অবস্থার ওপর বিপর্যয়কর প্রভাব ফেলছে।

পাকিস্তানে ডব্লিউএইচও'র প্রতিনিধি পালিথা মহিপালা বলেন, বড় ধরনের স্বাস্থ্যগত ঝুঁকি দেখা দিচ্ছে এবং আগামী মাসগুলোতে আরো বৃষ্টিপাতে আশঙ্কা থাকায় এই পরিস্থিতি অব্যাহত থাকবে।

রাজধানী ইসলামাবাদে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি সতর্ক করেছেন, নিরাপদ পানি ও অপরিচ্ছন্নতার কারণে শিবিরগুলোতে রোগের প্রাদুর্ভাব ঠেকানোর জন্য মানুষের কাছে প্রয়োজনীয় সরঞ্জামের নেই।

মহিপালা বলেন, ডায়রিয়াজনিত রোগ, ত্বকের সংক্রমণ, শ্বাসনালীর সংক্রমণ, ম্যালেরিয়া এবং ডেঙ্গু জ্বর ছড়িয়ে পড়ার কারণে ইতোমধ্যে ব্যাপক স্বাস্থ্যগত উদ্বেগের কথা জানানো হয়েছে। বৃষ্টি অব্যাহত রয়েছে এবং অনুমান করা হচ্ছে যে আগামী দিনগুলোতে বন্যা আরো খারাপ আকার ধারণ করবে। যা মানবিক ও জনস্বাস্থ্যের উপর আরো বেশি নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পাকিস্তান


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ