Inqilab Logo

বুধবার, ১৭ আগস্ট ২০২২, ০২ ভাদ্র ১৪২৯, ১৮ মুহাররম ১৪৪৪

ভাঙনের মুখে পড়তে পারে শত কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত মুচাপুর ক্লোজার

| প্রকাশের সময় : ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

সোনাগাজী (ফেনী) উপজেলা সংবাদদাতা : ভাঙনের কবলে পড়তে পারে শতকোটি টাকা ব্যয়ে মুচাপুর ক্লোজার। জানা যায়, সোনাগাজীসহ সাতটি উপজেলাকে বঙ্গপসাগরের জোয়ারে লোনা পানি থেকে রক্ষা, নদীভাঙন রোধে অধিক ফসল উৎপাদনের লক্ষ্যে ১৯৬৭-৬৮ সালে ছোট ফেনী নদীর উপর কাজীর হাট নামক স্থানে একটি ক্লোজার নির্মাণ করা হয়। কালের বিবর্তণে ও ফেনী পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তাদের মেরামত ও সংস্কারের নামে ব্যাপক লুটপাটের কারণে ২০০১ সালে কাজীর হাট ক্লোজারটি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যায়। নদীগর্ভে বিলীন হওয়া কাজীর হাট ক্লোজারের ২০ কিলোমিটার পেছনে ছোট ফেনী নদীর উপর মুচাপুর নামক স্থানে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া ২০০৬ সালে মুচাপুর ক্লোজারটি নির্মাণ কাজের উদ্বোধন ঘোষণা করেন। ২০১৫ সালে ওই রেগুলেটরের কাজ সম্পন্ন হয়। গত শনিবার সরেজমিন দেখা যায়, ২০০৬ সালে যখন ক্লোজার নির্মাণ কাজ শুরু হয় তখন ক্লোজারের পেছনে পশ্চিম দিক থেকে ধেয়ে আসা ডাকাতিয়া নদী প্রায় চার কিলেমিটার দক্ষিণে অবস্থান করছিল। ক্লোজারের পেছনে অর্থাৎ ক্লোজারের দক্ষিণে চার কিলোমিটার জুড়ে ছিল কেওড়া বন। কেওড়া বনের মধ্য দিয়ে খাল কেটে ক্লোজারের পানি প্রবাহিত করা হয়। গতকাল দেখা যায় ডাকাতিয়া নদী ভেঙে মুচাপুর ক্লোজারে আধা কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছে। এখন থেকে ডাকাতিয়া নদীর ভাঙন রোধ করা না হলে মুচাপুর ক্লোজার ভেঙে নদীগর্ভে তলিয়ে যেতে পারে বলে অনেকে অভিমত প্রকাশ করেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ