Inqilab Logo

বুধবার ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৫ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী
শিরোনাম

রানি এলিজাবেথের কফিন দেখে রাজপরিবারের সদস্য অজ্ঞান

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ২:২৮ পিএম

রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথের কফিন দেখে অজ্ঞান হয়ে গিয়েছিলেন ব্রিটিশ রাজপরিবারের একজন সদস্য। গত বুধবার (১৪ সেপ্টেম্বর) রানির মরদেহবাহী কফিন লন্ডনের ওয়েস্টমিনস্টার হলে পৌঁছানোর সঙ্গে সঙ্গেই তিনি অজ্ঞান হয়ে যান।

অজ্ঞান হয়ে যাওয়া ব্রিটিশ রাজপরিবারের এই সদস্যের নাম লেডি গ্যাব্রিয়েলা উইন্ডসর। তার বাবা প্রিন্স মাইকেল অব কেন্ট হলেন রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথের কাজিন। বৃহস্পতিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম মেট্রো এবং ডেইলি মেইল।
যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডনে ব্রিটিশ রাজপরিবারের প্রধান প্রাসাদ বাকিংহাম প্যালেস থেকে বুধবার রাজকীয় শোভাযাত্রার মধ্য দিয়ে রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের মরদেহ ওয়েস্ট মিনস্টার হলে নিয়ে যাওয়া হয়। রানির জ্যেষ্ঠ সন্তান ও যুক্তরাজ্যের বর্তমান রাজা তৃতীয় চার্লস, তার দুই ছেলে প্রিন্স উইলিয়াম ও প্রিন্স হ্যারি সেই শোভাযাত্রায় নেতৃত্ব দেন।

রাজপরিবারের অন্যান্য সদস্য ও ব্রিটিশ সরকারের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারাও এতে উপস্থিত ছিলেন। ওয়েস্ট মিনস্টার হলে রানির মরদেহ রাখার পর সম্মানসূচক গান ফায়ার করা হয়। সেখানে আগে থেকে রাজপরিবারের অন্য সদস্যরা ছাড়াও বহুসংখ্যক মানুষ রানির কফিনের জন্য অপেক্ষা করছিলেন।
মেট্রোর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাজকীয় শোভাযাত্রার মধ্য দিয়ে রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের মরদেহবাহী কফিন ওয়েস্ট মিনস্টার হলে নেওয়ার সময় সেখানে রাজপরিবারের অন্যান্য সদস্যদের সাথে সারিবদ্ধভাবে অপেক্ষা করতে দেখা গেছে লেডি গ্যাব্রিয়েলা উইন্ডসরকে। তবে রানির কফিন দেখে সেখানে তিনি অজ্ঞান হয়ে পড়েন যা অন্যদের মধ্যে কিছু ঝামেলার সৃষ্টি করে।

হ্যালো ম্যাগাজিন’র তথ্য অনুসারে, রানির পরিবারের কিছু সদস্য রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের কফিনবাহী রাজকীয় শোভাযাত্রাটি প্রত্যক্ষ করতে ওয়েস্ট মিনস্টার হলে জড়ো হয়েছিলেন। উইন্ডসরের মা এবং প্রিন্সেস মাইকেল অব কেন্টকেও এই দৃশ্য কষ্টের সঙ্গে দেখতে দেখা গেছে।
রাজকীয় এই শোভাযাত্রার সময় মিসেস উইন্ডসর অজ্ঞান হয়ে পড়ার পর তাকে আর পুরো অনুষ্ঠান জুড়ে দেখা যায়নি বলে হ্যালো ম্যাগাজিন জানিয়েছে। রাজকীয় এই পরিবার এবং রানির মধ্যে শক্তিশালী বন্ধুত্বের সম্পর্ক ছিল। মহামান্য ২০১৯ সালে থমাসের সাথে রাজকীয় বিয়েতে যোগদান করেছিলেন এবং সেখানে তাদের মধ্যে একটি স্মরণীয় মুহূর্ত ধরা পড়েছিল।

আউটলেটটি আরও বলেছে, মিসেস উইন্ডসর ভেঙে পড়া সত্ত্বেও অনুষ্ঠানটি পরিকল্পনা অনুযায়ী অব্যাহত ছিল এবং রাজপরিবারের অন্য সদস্যরা সেখানে রানির প্রতি তাদের শ্রদ্ধা জানাতে এসেছিলেন।

রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথকে এখন ওয়েস্টমিনস্টার হলে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় শায়িত রাখা হয়েছে। শেষকৃত্যের দিন অর্থাৎ ১৯ সেপ্টেম্বর স্থানীয় সময় ভোর সাড়ে ছয়টা পর্যন্ত ওয়েস্টমিনস্টার হলে রানি রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় শায়িত থাকবেন।

এই পুরো সময় ওয়েস্টমিনস্টার হলটি ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকবে যাতে করে জনসাধারণ রানির প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে পারেন। সেখানে রাজকীয় পতাকা রয়াল স্ট্যান্ডার্ডে রানির কফিনটি আচ্ছাদিত রয়েছে এবং তার ওপর বসানো রয়েছে রাজ মুকুট ইম্পেরিয়াল স্টেট ক্রাউন, রাজকীয় গোলক এবং রাজদণ্ড।
উল্লেখ্য, গত ৮ সেপ্টেম্বর স্কটল্যান্ডের বালমোরাল প্রাসাদে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন ব্রিটেনের রাজপরিবারের প্রধান রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ। ৯৬ বছর বয়স্ক রানি বার্ধক্যজনিত শারীরিক জটিলতায় ভুগছিলেন।

রাজপরিবারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, আগামী ১৯ সেপ্টেম্বর রাজধানী লন্ডনের ওয়েস্টমিনস্টার অ্যাবে এলাকার সেইন্ট পল গির্জায় সমাহিত করা হবে রানির মরদেহ। সমাহিত করার আগে সর্বসাধারণের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য ব্রিটেনের পার্লামেন্ট ভবনের ওয়েস্ট মিনস্টার হলে তার মরদেহ চারদিনের জন্য রাখা হয়েছে।



 

Show all comments
  • Mohmmed Dolilur ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ৩:৩২ পিএম says : 0
    যারা গরিব তাদের হত্যা দাসী বানাইয়াছেন,এবং ধনীদের সে দেশে পাঁচ পোট দেন ,গরিব এরা যাইতে পারবে না,এই প্রথা করে গিয়েছে বৃটিশ রাণী ও বৃটিশ শাসন,মানব জাতির পৃথিবীর যে কোনো জায়গায় যাওয়ার অধিকার আছে,কিন্তু ওরা পৃথিবী কে নকসা করে দিয়ে সীমানা করেছে,এবং ধনী গরিবদের মধ্যে পার্থক্য করেছেন,সেই আইন পৃথিবীতে চলতেছে,সে আইন আমরা গরিবের গৃনা করি,মানুষ সৃষ্টি করেছেন আল্লা রানী নয়,গরিব লোক সব দেশে যাওয়ার অনুমতি নাই সেটি হবে কি জন্য।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: যুক্তরাজ্যে


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ