Inqilab Logo

বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৫ মাঘ ১৪২৯, ১৬ রজব ১৪৪৪ হিজিরী

সমর্থন অব্যাহত রাখার ঘোষণা বিশ্বব্যাংকের

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১২:০০ এএম

বাংলাদেশের উন্নয়নে বিশ্বব্যাংকের সমর্থন অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন বিশ্বব্যাংকের দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের নতুন ভাইস প্রেসিডেন্ট মার্টিন রাইজার। বাংলাদেশের সুশীল অর্থনৈতিক অবস্থায় টেকসই প্রবৃদ্ধির জন্য বিশ্বব্যাংকের অব্যাহত সমর্থনের বিষয়টি তিনি পুনরায় নিশ্চিত করেছেন।

গতকাল বিশ্বব্যাংকের ঢাকা অফিসের জনসংযোগ কর্মকর্তা মেহরিন আহমেদ মাহবুব এ তথ্য জানান। রাইজার বলেন, দক্ষিণ এশিয়ায় বাংলাদেশ একটি উন্নয়ন সাফল্যের দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। বিশ্বব্যাংক গত ৫০ বছর ধরে বাংলাদেশের উন্নয়নযাত্রায় অংশীদার হতে পেরে গর্বিত। বিশ্বব্যাংক বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধির ধারাবাহিকতা রক্ষায় সহায়তা করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। এজন্য বেসরকারি খাতে প্রতিষ্ঠানের সক্ষমতা বাড়াতে হবে। পাশাপাশি জলবায়ু স্থিতিস্থাপকতা নিশ্চিত করতে হবে এবং আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে শক্তিশালী করতে সময়োপযোগী নীতিগত পদক্ষেপ নিতে হবে। তিনি বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়ন অভিজ্ঞতা থেকে অন্যান্য দেশ শিখতে পারে। বিশ্বব্যাংক দেশটিকে একটি টেকসই এবং অন্তর্ভুক্তিমূলক প্রবৃদ্ধির পথে চলতে সহায়তা করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।
বিশ্বব্যাংক জানায়, রাইজার বাংলাদেশের অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেছেন এবং কোভিড পরবর্তী দ্রুত পুনরুদ্ধারের জন্য সরকারের প্রশংসা করেছেন। তারা বৈশ্বিক অর্থনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গি এবং অর্থনৈতিক নীতির প্রভাব নিয়ে আলোচনা করেছেন। অনিশ্চয়তা এবং ক্রমবর্ধমান মুদ্রাস্ফীতির মধ্যে এর প্রবৃদ্ধির গতিধারা অব্যাহত রাখতে এবং সামষ্টিক অর্থনৈতিক স্থিতিশীলতা বাড়াতে বাংলাদেশকে তার জাতীয় পরিকল্পনাগুলোতে নির্ধারিত সংস্কার অগ্রাধিকারের পথে চলতে হবে।
বাংলাদেশে তিন দিনের সফরকালে তিনি প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগবিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান, বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আবদুর রউফ তালুকদার এবং ঊর্ধ্বতন সরকারি কর্মকর্তাদের পাশাপাশি বেসরকারি খাত, সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেন।
বিশ্বব্যাংক গ্রুপ বাংলাদেশের জন্য তার নতুন কান্ট্রি পার্টনারশিপ ফ্রেমওয়ার্ক (সিপিএফ) প্রস্তুত করছে, যার মাধ্যমে ২০২৩ থেকে ২০২৭ সাল পর্যন্ত সহায়তা প্রদান করা হবে। সরকার এবং অন্যান্য স্টেকহোল্ডারদের সঙ্গে তার বৈঠকে রাইজার আলোচনা করেছেন কীভাবে বিশ্বব্যাংকের সহায়তা সর্বোত্তমভাবে একত্রিত হতে পারে, যাতে ২০৩১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে উচ্চ-মধ্যম আয়ের দেশ হওয়ার স্বপ্ন বাস্তবায়নে সহায়তা করা যায়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সমর্থন অব্যাহত রাখার ঘোষণা বিশ্বব্যাংকের
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ