Inqilab Logo

মঙ্গলবার ২৯ নভেম্বর ২০২২, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৪ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী
শিরোনাম

পুতিন সত্যি কথাই বলছেন: ইইউ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১০:১৫ পিএম | আপডেট : ১১:২২ পিএম, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২২

ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্র নীতি বিষয়ক প্রধান জোসেফ বোরেল বলেছেন, ভ্লাদিমির পুতিন ‘ধাপ্পা’ দিচ্ছেন না। তিনি পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহারের যে হুমকি দিয়েছেন তা বলে উড়িয়ে না দিয়ে গুরুত্বের সাথে নেয়া উচিত।

বিবিসিকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বোরেল বলেছেন, ইউক্রেনের যুদ্ধ একটা ‘বিপজ্জনক মুহূর্তে’ পৌঁছেছে। ‘রুশ সৈন্যরা কোনঠাসা হয়ে পড়ায় অবশ্যই পরিস্থিতি বিপজ্জনক দিকে মোড় নিয়েছে এবং এর প্রতিক্রিয়ায় পুতিন পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহারের যে হুমকি দিয়েছেন তা খুবই খারাপ।’ তার মতে, সমস্যার একটা "কূটনৈতিক সমাধান" এখন জরুরি। তিনি বলেছেন, এমন একটা সমাধান যেটা "ইউক্রেনের আঞ্চলক অখণ্ডতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষা করবে", নাহলে "যুদ্ধ হয়ত থামবে, কিন্তু শান্তি আসবে না এবং আবার যুদ্ধ বাঁধার হুমকি থেকে যাবে।"

এ সপ্তাহের গোড়ার দিকে জাতির উদ্দেশ্যে দেয়া এক বিরল পুতিন বলেন "তার দেশের হাতে বিধ্বংসী নানা ধরনের মারণাস্ত্র" রয়েছে এবং "আমাদের হাতে যেসব অস্ত্রসম্ভার রয়েছে তার সবই আমরা ব্যবহার করব"। তিনি আরও বলেছেন "আমি ধাপ্পা দিচ্ছি না"। "কেউ যদি বলে আমার কথাটা ধাপ্পা নয়, তখন সেটা গুরুত্বের সাথে নেয়া উচিত," বোরেল বলেন।

ইউক্রেনের রুশ অধিকৃত চারটি অঞ্চলে রাশিয়া এখন স্ব-উদ্যোগে গণভোট নিচ্ছে। এসব অঞ্চলের রুশ সমর্থনপুষ্ট কর্তৃপক্ষ ২৩ সেপ্টেম্বর থেকে গণভোট শুরু করেছে এই অঞ্চলগুলোর রুশ ফেডারেশনে যোগ দেয়ার প্রশ্নে। ইউক্রেন বলছে, প্রেসিডেন্ট পুতিনের সমর্থনে আয়োজন করা এই গণভোটের কোন আইনি ভিত্তি নেই।

ডোনেৎস্ক, লুহানস্ক, জাপোরিজিয়া এবং খেরসনে আয়োজন করা এই গণভোটকে পশ্চিমা দেশগুলোও অবৈধ বলে বর্ণনা করেছে। ইউক্রেনের এসব অঞ্চলকে যাতে রাশিয়ার সীমানা-ভুক্ত করা যায়, সেই লক্ষ্যেই এই গণভোট বলে বলছে ইউক্রেন কর্তৃপক্ষ। গণভোট হবে পাঁচ দিন ধরে, যদিও ইউক্রেনের পূর্বে এবং দক্ষিণে এই চারটি অঞ্চল ঘিরেই যুদ্ধ অব্যাহত আছে।

রাশিয়া যদি এই অঞ্চলগুলো তাদের দেশের অন্তর্ভুক্ত করতে পারে, তখন তারা বলতে পারবে যে, ইউক্রেনকে দেয়া পশ্চিমা দেশগুলোর অস্ত্র দিয়ে তাদের দেশে আক্রমণ চালানো হচ্ছে। এতে করে যুদ্ধ আরও তীব্র হয়ে উঠতে পারে। সূত্র: বিবিসি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ