Inqilab Logo

মঙ্গলবার ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ১১ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী
শিরোনাম

দেশ দোজখের সমতুল্য হয়ে গেছে

চট্টগ্রামে জি এম কাদের

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১২:০০ এএম

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সংসদের বিরোধী দলীয় উপনেতা জিএম কাদের বলেছেন, আমাদের নিকট আত্মীয় যারা মারা যান তাদের জন্য আমরা শোকাহত হই। তবে যারা চলে গেছেন তারা এদেশে থাকার চেয়ে ভালো অবস্থায় আছেন। কেননা এ দেশটা কিছুটা হলেও দোযখের সমতুল্য হয়ে গেছে। যারা সরকারের সমালোচনা করছে তাদের সরকার রাষ্ট্রবিরোধী হিসেবে আখ্যায়িত করছে। মানুষকে বিভিন্নভাবে নাজেহাল করা হচ্ছে। মানুষকে কথা বলার অধিকার দিতে হবে। তিনি গতকাল শনিবার জাতীয় পার্টি চট্টগ্রাম উত্তর জেলার উদ্যোগে নগরীর একটি কমিউিনিটি সেন্টারে পার্টির সাবেক মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমদ বাবলু স্মরণসভা ও মেজবান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলে।

চট্টগ্রাম উত্তর জেলা জাতীয় পার্টির আহ্বায়ক ও সাবেক এমপি নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্য বক্তব্য রাখেন জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, অতিরিক্ত মহাসচিব ও প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাডভোকেট রেজাউল করিম ভূইয়া, প্রেসিডিয়াম সদস্য ও চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি সোলায়মান আলম শেঠ, প্রেসিডিয়াম সদস্য মো. জহিরুল ইসলাম, সাবেক এমপি সিরাজুল ইসলাম ও মো. ইলিয়াস। এছাড়া স্মরণ সভায় বক্তব্য রাখেন মরহুম জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলুর সহধর্মিনী ও জাতীয় পার্টির উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য ড. মেহেজেবুন্নেসা রহমান টুম্পা ও ছেলে আশিক আহমেদ।

জিএম কাদের বলেন, দেশে এমন একটি সংস্কৃতি সৃষ্টি হচ্ছে যেখানে সৎ, নিষ্টাবান এবং যারা মেধাবী সেসব মানুষ বিভিন্নভাবে ঘৃণিত হচ্ছে, লাঞ্ছিত হচ্ছে। তারা সমাজে টিকে থাকতে পারছেন না। যারা বিভিন্নভাবে দুর্নীতি করে অনিয়ম করে মেধাশূণ্য যারা কোন দেশপ্রেমিক নয়, সেরকম মানুষের উত্থান ঘটছে। তারা সব জায়গায় সম্মানিত হচ্ছে। তারা মাথা উঁচু করে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। এ কারণে দেশে সুশাসনের অভাব হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, দুষ্টের দমন শিষ্টের পালন করা হচ্ছে না। বরং দুষ্টের পালন শিষ্টের দমন করা হচ্ছে। আইন সকলের জন্য সমান জিনিসটি এখন কার্যকর নয়, কিছু কিছু মানুষ এখন আইনের ঊর্ধ্বে। দলীয়করণের কারণে এক শ্রেণির মানুষ আইনের ঊর্ধ্বে অবস্থান করছে। বিভিন্নভাবে দেশের সাধারণ মানুষের উপর নিপীড়ন, অত্যাচার চালিয়ে যাচ্ছে। সরকারের বিরোধীতা করা প্রত্যেকটি নাগরিকের অধিকার ও দায়িত্ব। দেশের মালিক সাধারণ জনগণ। সরকারকে নির্বাচিত করার অধিকার যেমন জনগণের আছে তেমনি সরকারের সমালোচনা করার অধিকারও আছে। সরকারকে পরিবর্তন করারও অধিকার থাকতে হবে। দেশের মালিক হিসেবে দেশের মানুষের যেকোন পরামর্শ দেওয়ার অধিকার আছে। দেশে জবাবদিহিতার অভাব আছে। প্রতিটি ক্ষেত্রে বৈষম্য বাড়ছে। ধনী আরও ধনী হচ্ছে। গরীব আরও গরীব হচ্ছে। বড় লোক আরও বড় লোক হচ্ছে। এই বৈষম্যের জন্য বাংলাদেশ সৃষ্টি হয়নি। জবাবদিহিতাবিহীন একটি সরকার চলছে। সাধারণ মানুষকে হয়রানির শিকার হতে হচ্ছে। দুর্নীতির কোন শেষ নেই। যে যার দায়িত্ব তা পালন করছে না। রাস্তাঘাট দিয়ে হাটবেন আপনার জীবনের কোন নিরাপত্তা নেই। মানুষরে কাছে দোযকের মতো অবস্থা হয়ে গেছে। মানুষ খেতে পারে না। চলতে পারে না। প্রতিদিন জিনিসপত্রের দাম বাড়ছে। টিসিবির পণ্য নিতে দুই আড়াই মাইল লম্বা লাইন হচ্ছে। দুই তিন ঘন্টা দাঁড়িয়ে থেকেও টিসিবির পণ্য পাচ্ছে না। তাই মানুষ এদেশে থাকা আর দোযখে থাকার মধ্যে কোন পার্থক্য দেখছেন না। জাতীয় পার্টির মহসচিব মুজিবুল হক চুন্নু এমপি বলেন, জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু ছিলেন একজন নির্মোহ ব্যক্তি। রাজনীতিকভাবে প্রজ্ঞাবান। তিনি সবসময় চিন্তা করতেন কিভাবে পার্টিকে ক্ষমতায় নেয়া যায়। তিনি জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত জাতীয় পার্টির জন্য কাজ করে গেছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: জি এম কাদের

২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২২
১১ ফেব্রুয়ারি, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ