Inqilab Logo

রোববার ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০২ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী
শিরোনাম

মোদির রোষানলে এবার মুসলিম সংগঠনগুলো

পিএফআই’কে নিষিদ্ধ করায় প্রতিবাদের ঝড়

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১২:০৩ এএম

ওয়েবসাইট ফেসবুক ও টুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ
ভারতের নরেন্দ্র মোদি সরকার মুসলিম ধর্মভিত্তিক সংগঠন ‘পপুলার ফ্রন্ট অফ ইন্ডিয়া’কে (পিএফআই) নিষিদ্ধ করেছে। এর পরেই কংগ্রেসসহ কোনো কোনো বিরোধী নেতা আরএসএসকেও নিষিদ্ধ করার দাবি তুলেছেন। তারা বলছেন, কোন সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপ না থাকা সত্তে¡ও পিএফআইকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে, তাহলে মুসলিমদের বিরুদ্ধে সহিংসতা ছড়ানো হিন্দুত্ববাদী সংগঠন আরএসএসকেও নিষিদ্ধ করতে হবে।

উল্লেখ্য, সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপের কারণে স্বাধীন ভারতে আরএসএসকে এর আগে তিনবার নিষিদ্ধ করা হয়েছিল। সেই তিনবারই কেন্দ্রে ছিল কংগ্রেস সরকার। কিন্তু বিজেপি সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকেই আরো বেপরোয়া হয়ে উঠেছে আরএসএস। তারা এখন প্রকাশ্যেই মুসলিম বিদ্বেষ ছড়াচ্ছে, আর মোদির সরকারও তাদেরকে পরোক্ষে ইন্ধন যোগাচ্ছে। মোদির এ একতরফা সিদ্ধান্তে গর্জে উঠেছেন বিহারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী লালুপ্রসাদ যাদব। তার দাবি, এবার আরএসএসকেও নিষিদ্ধ করতে হবে। কারণ, পিএফআই যেমন মৌলবাদী সংগঠন। তেমনই আরএসএসও মৌলবাদী সংগঠন। অতীতে লালকৃষ্ণ আদবানির রথযাত্রা রুখে দিয়েছিলেন লালুপ্রসাদ যাদব। সেই সময় তিনি বিহারের মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন। তার কাছ থেকে এমন দাবি তাই প্রত্যাশিতই ছিল বলে রাজনৈতিক মহলের একাংশের দাবি।

আরএসএসের সঙ্গে তিনি পিএফআইয়ের তুলনা করছেন কেন? এই প্রশ্নে লালু বলেন, ‘পিআইএফ এমন একটি সংগঠন যার মৌলবাদী দৃষ্টিভঙ্গি রয়েছে। তবে, তারা কখনও বিরোধীদের বিরুদ্ধে হিংসাত্মক কার্যকলাপে লিপ্ত হয়নি।’ কিন্তু আরএসএস তেমনটাই করছে বলে মনে করছেন লালুপ্রসাদ যাদব। দীর্ঘদিন ধরেই লালুপ্রসাদের সঙ্গী বাম দল সিপিএম। তারা আবার মনে করছে, এই জাতীয় মৌলবাদী সংগঠনকে নিষিদ্ধ করাই সমস্যা মোকাবিলার একমাত্র পথ নয়। এই ব্যাপারে বিবৃতিতে সিপিএম বলেছে, ‘বেআইনি কার্যকলাপ প্রতিরোধ আইন-এর অধীনে একটি বেআইনি সংগঠন হিসেবে পিআইএফ’কে ঘোষণা করা এই সমস্যা মোকাবিলার সেরা উপায় নয়।’

এই কথা বলতে গিয়ে লালুপ্রসাদ যাদবের মতই পিএফআইকে আরএসএসের সঙ্গে এক আসনে বসিয়েছেন সিপিএম নেতৃত্ব। তারা বলেছেন, ‘অতীতের অভিজ্ঞতায় দেখা গিয়েছে যে আরএসএস এবং মাওবাদীদের মতো সংগঠনের ওপর নিষেধাজ্ঞা কার্যকর ছিল না। পিআইএফ যখনই বেআইনি বা হিংসাত্মক কার্যকলাপে লিপ্ত হবে, কেবলমাত্র তখনই তার বিরুদ্ধে চলতি আইনেই দৃঢ় প্রশাসনিক ব্যবস্থা নিতে হবে।’

পিএফআইয়ের ওয়েবসাইট ফেসবুক ও টুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ : ভারতের ইসলামি সংগঠন পপুলার ফ্রন্ট অব ইন্ডিয়া (পিএফআই) নিষিদ্ধের পর এবার তাদের ওয়েবসাইট ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। পিএফআইয়ের অফিসিয়াল টুইটার, পিএফআইয়ের প্রধান ও এম এ সালামের অ্যাকাউন্ট ও সাধারণ সম্পাদক আনিস আহমেদের টুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। পিএফআইয়ের @পিএফআই অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্টে অনুসারী ৮১ হাজার, ও এম এ সালামের অনুসারী ৫০ হাজার, আনিস আহমেদের অনুসারী ৮৫ হাজার। সূত্র : দ্য ওয়াল, টিওআই, হিন্দুস্তান টাইমস, এনডিটিভি।

 

 

 



 

Show all comments
  • Abdul Alim ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ৬:৩০ এএম says : 0
    মুসলমানদের দাবি ও অধিকার আদায়ের জন্য কোন সংগঠন কে তারা টিকতে দিবে না। কিন্তু মুসলমানদের মেরে কেটে ধ্বংস করার জন্য আর এস এস, শিবসেনা, বজরং দল সহ অসংখ্য সংগঠন কে তারা জন, অর্থ, মিডিয়া, পুলিশ, প্রশাসন সব দিবে। তবে অসহায় মুসলমানদের জন্য আল্লাহ্ ই যথেষ্ঠ। সময়মতো ঠিকই গজব আসবে, মিয়ানমারের মতো।
    Total Reply(0) Reply
  • salman ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ২:২৫ এএম says : 0
    RSS, ISCON, BOJRONGI,BJP, MUDI ara Sontrashi & Sontrashi Songhoton. Ade'r Nisiddho kora oti Joruri
    Total Reply(0) Reply
  • Ramzan Ali ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ৬:৩০ এএম says : 0
    ভারত যে ইসলাম বিরোধী এবং ধর্মীয় নিরপক্ষ না তার আর একটা জ্বলন্ত প্রমাণ ????এবং উগ্রবাদী হিন্দুদের কাছে মুসলমানরা আরো নির্যাতিত হবে
    Total Reply(0) Reply
  • Md Shamim Hossen ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ৬:৩০ এএম says : 0
    উগ্র হিন্দুত্ববাদের কবলে ভারতের মুসলমানরা খুবই অসহায়
    Total Reply(0) Reply
  • Noor Islam Shapan ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ৬:৩০ এএম says : 0
    ভারত দেশটা ভেঙ্গে অনেকগুলো দেশ হওয়া খুবই জরুরী । না হলে শান্তি আসবেনা । যেমন সোভিয়েত ভাঙ্গার পরে সৃষ্ট ছোট ছোট দেশ গুলো এখন শান্তি বিরাজমান ।
    Total Reply(0) Reply
  • Md Sanowar Hossain ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ৬:২৯ এএম says : 0
    ইন্ডিয়া আগেও ইসলাম বিরোধী ছিলো এখনো ইসলাম বিরোধী। আর আমাদের দেশের অনেক কুলাঙ্গার মানুষ আছে যারা মুসলিম হয়েও ইন্ডিয়া ইন্ডিয়া করে। তাদের বন্ধু হিসেবে দেখে আর এরই সুযোগ নিয়ে বাংলাদেশের পেছন দিয়ে ইন্ডিয়া বাঁশ দেয়।
    Total Reply(0) Reply
  • Al Mamun Sagor ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ৬:২৯ এএম says : 0
    মুসলমানদের জন্য এটা কখনো সু খবর হতে পারেনা,বাংলাদেশে ইস্কন বন্ধ করা সময়ের দাবি।
    Total Reply(0) Reply
  • Hossain Meer ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ৬:২৯ এএম says : 0
    এটা বিদ্বেষমূলক রায় হয়েছে। উচিত ছিল পিএফআই এর সাথে আরএসএস নিষিদ্ধ করা। তাহলে নিরপেক্ষতা হতো।।।আরএসএস কর্মীরা হিন্দু ধর্ম নিয়ে যেরূপ প্রচার প্রচারণা করে ঠিক পিএফআই কর্মীরা ইসলাম ধর্ম নিয়ে অনুরূপ প্রচার প্রচারণা করে।। সুতরাং থাকলে দুটোই থাকবে আর নিষিদ্ধ হলে দুটোই নিষিদ্ধ হবে
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মোদি

২৮ অক্টোবর, ২০২২

আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ