Inqilab Logo

বুধবার ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৫ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী
শিরোনাম

রাজধানীতে অপরাধী চক্র বেপরোয়া

বাড়ছে চুরি, ডাকাতি, ছিনতাই, অপহরণ ও অজ্ঞান পার্টির দৌরাত্ম্য

সাখাওয়াত হোসেন | প্রকাশের সময় : ১ অক্টোবর, ২০২২, ১২:০২ এএম

রাজধানীর কলাবাগানে কিশোর গ্যাংয়ের ছুরিকাঘাতে শিপন (১৫) নামে এক কিশোর খুন হয়েছেন। অন্যদিকে শাহবাগ থানার পরিবাগ ফুটওভার ব্রিজের ওপরে আড্ডা দেয়ার সময় তৃতীয় লিঙ্গের একজনের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয় অজ্ঞাত দুই যুবকের। এর এক পর্যায়ে ওই যুবকরা নিলা (২৫) নামে তৃতীয় লিঙ্গের ওই ব্যক্তির গলায় ছুরিকাঘাত করে হত্যা করে। দু’টি হত্যাকাÐের ঘটনাই ঘটে গত বৃহস্পতিবার রাতে।
রাজধানীতে সম্প্রতি একের পর এক চুরি, ডাকাতি, ছিনতাই, অপহরণ ও অজ্ঞান পার্টির দৌরাত্ম্যসহ নানা অপরাধ বৃদ্ধি পেয়েছে। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা বিভিন্ন অপরাধে সম্পৃক্ত অপরাধীদের গ্রেফতার অব্যাহত রাখলেও অপরাধ কোনোভাবেই নিয়ন্ত্রণে আসছে না। ফলে সাধারণ নগরবাসীদের মধ্যে এক ধরনের শঙ্কা দেখা দিয়েছে। অপরাধের মাত্রা দিন দিন বেড়ে যাওয়ায় সাধারণ মানুষ নিজেদের আর নিরাপদ মনে করছেন না।
গতকাল শুক্রবার রাজধানীর মতিঝিলে কথা হয় ব্যবসায়ী মনির হোসেনের সাথে। তিনি ইনকিলাবকে বলেন, উত্তর বাড্ডায় তিনি পরিবার নিয়ে বসবাস করলেও ব্যবসা করেন মতিঝিল এলাকায়। শুক্রবার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও একজনের সাথে দেখা করতে সকাল সকাল মতিঝিল এসেছেন। এরই মধ্যে বাসা থেকে স্ত্রী বার বার ফোন করে কেমন আছেন জানতে চাচ্ছেন।
তিনি বলেন, চারিদিকে যেভাবে খুন, ছিনতাই, অপহরণ ও অজ্ঞান পার্টির দৌরাত্ম্য বাড়ছে তাতে বাসার বাইরে বের হলে পরিবারের সবাই চিন্তিত থাকেন। এ পরিস্থিতি আজ সবার মধ্যেই বিরাজ করছে বলে ওই ব্যবসায়ী মন্তব্য করেন।
ডিএমপির অপরাধ পরিসংখ্যান বিশ্লেষণ করে জানা গেছে, নানা অপরাধে রাজধানীর বিভিন্ন থানায় গত আট মাসে মামলা হয়েছে প্রায় ২০ হাজার। ১ জানুয়ারি থেকে ৩১ আগস্ট পর্যন্ত এ সংখ্যা ১৯ হাজার ৯৪৫। আট মাসে চুরির মামলা হয়েছে এক হাজার ৮০টি। চুরির মামলাগুলোর মধ্যে সিঁধেল চুরির ঘটনা ৫০০টি। গাড়ি চুরির ঘটনা আছে ৭১টি। বাকিগুলো অন্যান্য চুরি। এছাড়া জুলাই মাসে বিভিন্ন ঘটনায় রাজধানীতে সোয়া দুই হাজার মামলা হয়েছে। প্রায় পাঁচ হাজার আসামি গ্রেফতার করা হয়েছে। এছাড়া অস্ত্র উদ্ধার সংক্রান্ত ৫৩টি এবং বিস্ফোরক উদ্ধারের বিষয়ে ৫২টি মামলা হয়েছে। আট মাসে হত্যাকাÐের ঘটনা ঘটেছে ১১৬টি। ধর্ষণের ঘটনায় মামলা হয়েছে ১১৮টি। দুষ্কৃতকারীদের হামলার শিকার হয়েছে ৬২ পুলিশ সদস্য। নারী ও শিশু নির্যাতনের ঘটনায় মামলা হয়েছে এক হাজার ৩৫৩টি। এছাড়া ডাকাতির ঘটনায় ২০, দস্যুতায় ৯৫ এবং দ্রæত বিচার আইনে ১০০টি মামলা হয়েছে।
ডিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম অ্যান্ড অপারেশনস) হাফিজ আক্তার বলেন, ঢাকা শহরে মার্ডার কখনো বাড়ে কখনো কমে। আবার ডাকাতিও কখনো বাড়ে। ইদানিং ডাকাতির চেয়ে চুরি বেশি হচ্ছে। অপরাধীরা হয়তো মনে করছে চুরিটা বেশি নিরাপদ। চুরির পর ধরা পড়লেও দ্রæত জামিন পেয়ে যায়। তাছাড়া অল্প চুরির ঘটনায় থানায় রিপোর্টও করেন না অনেক ভুক্তভোগী। সম্প্রতি রাজধানীতে বড় বড় চুরির ঘটনা ঘটেছে। গত ২০ আগস্ট কলাবাগান থানার ডলফিন গলিতে একটি বাসার গ্রিল কেটে বড় চুরির ঘটনা ঘটেছে। ওই বাড়ি থেকে ৭২ ভরি স্বর্ণ ও এক লাখ টাকা নিয়ে যায়। সেই চোরের দলকে তিনটি পিস্তল, গুলি, স্বর্ণ ও টাকাসহ গ্রেফতার করে ডিবি পুলিশ।
সূত্র জানায়, মোটরসাইকেলে গন্তব্যে যাচ্ছিলেন জুয়েলারি ব্যবসায়ী মো. মহিউদ্দিন খান। পথে গতিরোধ করে মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে তাকে একটি গাড়িতে তোলা হয়। এরপর চোখ বেঁধে তাকে করা হয় মারধর। একপর্যায়ে তার সঙ্গে থাকা ২০ লাখ টাকা ও মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেওয়া হয়। গত ৩ সেপ্টেম্বর বিকাল সাড়ে ৩টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্লাবের সামনের রাস্তায় চাঞ্চল্যকর এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার প্রায় দুই সপ্তাহ পর ওই চক্রের মূল হোতা সাবেক পুলিশ কনস্টেবল গোলাম মোস্তফা শাহীনসহ ৫ ডাকাতকে গ্রেফতার করে ডিবি রমনা বিভাগ। তাদের কাছ থেকে ছিনতাই ও ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত একটি প্রাডো জিপ গাড়ি, লুট করা ১ লাখ ১০ হাজার টাকা, ওয়াকিটকি এবং হ্যান্ডকাফসহ অন্যান্য সামগ্রি জব্দ করা হয়।
পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত ৩১ আগস্ট রাতে উত্তরার বাসায় যাচ্ছিলেন জাতীয় পার্টির জাপা চেয়ারম্যান গোলাম মুহাম্মদ (জিএম) কাদের। বিমানবন্দরের থার্ড টার্মিনালের সামনে যানজটে পড়ে তাকে বহনকারী ব্যক্তিগত গাড়িটি। গাড়ির এসি কাজ না করায় জানালার গøাস খুলে রাখেন তিনি। ওই সময় তিনি ফোনে কথা বলছিলেন। আর গাড়ির খোলা জানালার ভেতরে হাত ঢুকিয়ে জিএম কাদেরের হাতে থাকা আইফোন ছিনিয়ে নিয়ে যায় ছিনতাইকারী। কয়েকদিন পর ছিনতাইকারীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। উদ্ধার করা হয় ফোনটি। গত ১৮ আগস্ট রাত সাড়ে ১১টায় হযরত শাহজালাল (র.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে মোটরসাইকেলে মগবাজারের বাসায় ফিরছিলেন এক সাংবাদিক। মোটরসাইকেলটি ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ইউটার্ন ঘুরে র‌্যাব-১ এবং এপিবিএন সদর দফতরের মাঝামাঝি জায়গায় (মূল রাস্তায়) পৌঁছামাত্র অজ্ঞাত ছিনতাইকারী এই প্রতিবেদকের মানিব্যাগ ছিনিয়ে নেয়। এ ঘটনায় ওই রাতেই উত্তরা পূর্ব থানায় অভিযোগ দেয়া হয়। অভিযোগের তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয় এসআই ইমরুল হোসেনকে। এখনো উদ্ধার হয়নি মানিব্যাগটি। গ্রেফতার হয়নি ছিনতাইকারী।
কলাবাগানে কিশোর গ্যাংয়ের ছুরিকাঘাতে খুন : কলাবাগানে কিশোর গ্যাংয়ের ছুরিকাঘাতে শিপন (১৫) নামে এক কিশোর খুন হয়েছেন। এ ঘটনায় স্বাধীন নামে একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গত বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে শিপনকে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয়রা। পরে তাকে উদ্ধার করে রাত সাড়ে ১২টার দিকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।
নিহতের বাবা মজিবর রহমান বলেন, শিপন আহত অবস্থায় পড়ে থাকলে তাকে স্থানীয়রা প্রথমে উদ্ধার করে একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যায় সেখান থেকে ঢাকা মেডিক্যালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। একই এলাকার স্বাধীন নামের পূর্ব পরিচিত এক কিশোর শিপনের উরুতে ছুরি দিয়ে আঘাত করলে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে তার মৃত্যু হয়। আমার ছেলেকে যারা হত্যা করেছে আমি তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।
তিনি বলেন, শিপন ফ্রিজের দোকানে কাজ করতো। কলাবাগানে আমাদের সঙ্গেই থাকত। আমাদের বাড়ি চাঁদপুর জেলার হাজীগঞ্জ থানার রাজারগাও গ্রামে।
এলাকাবাসীর অভিযোগ, স্বাধীন ও অন্য কয়েকজন মিলে গড়ে তুলে কিশোর গ্যাং ‘টিম কলাবাগান’। এর সদস্যরা এলাকায় চুরি, ছিনতাই ও ইভটিজিং করত। এ ঘটনায় দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন এলাকাবাসী। তাদের নামে কলাবাগান থানায় বিভিন্ন অপরাধে মামলা রয়েছে বলে জানান তারা।
ঘটনার বিষয়ে কলাবাগান থানার ওসি মো. সাইফুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় শিপনের হত্যাকারী মূল অভিযুক্ত স্বাধীনকে আটক করা হয়েছে। স্বাধীনের বিষয়ে পূর্ণাঙ্গ খোঁজখবর নেয়া হচ্ছে।
কথা কাটাকাটির জেরে তৃতীয় লিঙ্গের একজনকে গলা কেটে হত্যা : শাহবাগ থানার পরিবাগ ফুটওভার ব্রিজের ওপরে আড্ডা দেয়ার সময় তৃতীয় লিঙ্গের একজনের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয় অজ্ঞাত দুই যুবকের। এর এক পর্যায়ে তারা আব্দুস সাত্তার নিলা (২৫) নামে তৃতীয় লিঙ্গের ওই ব্যক্তির গলায় ছুরিকাঘাত করেন। গত বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। গুরুতর অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক রাত দুইটার দিকে মৃত ঘোষণা করেন।
নিহতের সহকর্মী তৃতীয় লিঙ্গের আরেকজন জানান, আমরা ব্রিজের ওপরে রাতে আড্ডা দেয়ার সময় অজ্ঞাত দুই যুবক আমাদের দেখে আজেবাজে কথা বলে। আমরা প্রতিবাদ করায় কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে নীলাকে গলায় ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। নিহতের গ্রামের বাড়ি জামালপুর সদর উপজেলার তেলিয়েনপাড়া গ্রামে। এ ঘটনায় পুলিশ কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রাজধানীতে অপরাধী চক্র বেপরোয়া
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ