Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ১৩ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী
শিরোনাম

এবার বিয়ে ও বীরের জন্ম তারিখ জানালেন বুবলী

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩ অক্টোবর, ২০২২, ৬:০৮ পিএম

ফেসবুকে বেবিবাম্পের ছবি প্রকাশের পর থেকেই তুমুল আলোচনায় ঢাকাই সিনেমার নায়িকা শবনম বুবলী। এরপর সন্তানসহ শাকিব-বুবলী নিজেদের ছবি দিয়ে ফেসবুকে একটি পোস্ট দেন। ওই পোস্টে নিজেদেরকে সন্তানের বাবা-মা বলে উল্লেখ করেন তারা। তবে এতেই সব জল্পনার অবসান ঘটেনি। ভক্তদের কৌতুহল ছিল শাকিব-বুবলীর বিয়ের তারিখ নিয়ে। এবার সেই বিষয়টিও পরিস্কার করলেন এ সময়ের জনপ্রিয় অভিনেত্রী শবনম বুবলী।

তিনি আজ সোমবার (৩ অক্টোবর) বিকেলে তার ফেসবুকে পেজে বিয়ের তারিখ ও সন্তান জন্মের তারিখের বিষয়টি পরিস্কার করলেন।

ফেসবুকে পেজে লিখেন, ‘এখন পর্যন্ত আমার জীবনের স্বরণীয় দুটো তারিখ ২০.০৭.২০১৮ এবং ২১.০৩.২০২০। আমাদের বিয়ের তারিখ এবং সন্তান জন্ম হওয়ার তারিখ। সবাই আমাদের জন্য দোয়া করবেন।’

বিয়ের তারিখ ঘোষণার পর কমেন্টবক্স ভরে যায় বিভিন্ন ধরনের কমেন্টে। যার কিছু ইতিবাচক, আবার কিছু নেতিবাচক। কেউ কেউ আবার কমেন্টবক্সে শাকিব-বুবলীর বিয়ের কাবিননামাও দেখতে চেয়েছেন।

এর আগে গত ৩০ সেপ্টেম্বর বুবলী এবং শাকিব দুজনেই জানিয়ে দেন বাবা-মা হয়েছেন তারা। প্রকাশ করেন ছেলের ছবি। জানিয়ে দেন তার নাম শেহজাদ খান বীর। এরপর থেকে বীরকে নিয়ে সামাজিক মাধ্যমে চলছে নানান আলোচনা। এরইমধ্যে ছেলের নামে ফেসবুকে পেজ খুলেছেন বুবলী। ছবিসহ কয়েকটি পোস্টও দেওয়া হয়েছে সেই পেজ থেকে। মিলেছে তুমুল সাড়াও।

এদিকে রাতারাতি স্টার কিড বনে যাওয়া বীরকে নিয়ে সবার নানান কৌতূহলের মধ্যেই তার নতুন ছবি প্রকাশ করলেন মা বুবলী। তাকে ভালোবাসা দেওয়ার জন্য সবাইকে ধন্যবাদও দিয়েছেন এই নায়িকা। চেয়েছেন দোয়াও। গতকাল রবিবার (২ অক্টোবর) বীরের নতুন দুটি ছবি প্রকাশ করে ক্যাপশনে বুবলী লেখেন, ‘সবাইকে অনেক ধন্যবাদ আমার ছেলেকে নিঃশর্তভাবে ভালোবাসার জন্য। দয়া করে তাকে আপনাদের প্রার্থনায় রাখবেন।’

উল্লেখ্য, চিত্রনায়ক শাকিব খানের সঙ্গে ‘বীর’ সিনেমার শুটের সময় ঢালিউড উত্তাল ছিল চিত্রনায়িকা শবনম বুবলীর মা হতে যাচ্ছেন এমন গুঞ্জনে। সেই গুঞ্জন এত দিনে সত্যি হয়েছে। শুক্রবার (৩০ সেপ্টেম্বর) শাকিব খান ও শবনম বুবলী নিজেরাই স্বীকার করেছেন, তাদের একটি পুত্রসন্তান রয়েছে, নাম শেহজাদ খান বীর।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন