Inqilab Logo

রোববার ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০২ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী
শিরোনাম

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছাত্রলীগ খুন, ভর্তি বাণিজ্য, সিট বাণিজ্য করছে ও নারীদের দাসী বানাচ্ছে : বিএনপি

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩ অক্টোবর, ২০২২, ৯:২৫ পিএম

ছাত্রলীগ নারী শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন অপকর্ম করতে বাধ্য করছে বলে দাবি করেছেন বিএনপির নেতারা। তারা বলছেন, আজ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে লেখাপড়া নেই। সেখানে ছাত্রলীগ খুন, ভর্তি বাণিজ্য, সিট বাণিজ্য করছে। নারীদের দাসী বানাচ্ছে। তাদের দিয়ে বিভিন্ন অপকর্ম করাচ্ছে, যা কিছুদিন আগে ইডেন কলেজের ছাত্রীরা মিডিয়াতে প্রকাশ করেছে।

আজ সোমবার (৩ অক্টোবর) নয়াপল্টনে বিএনপির দলীয় কার্যালয়ের নিচ তলায় অনুষ্ঠিত এক মানববন্ধনে বক্তারা এসব কথা বলেন। ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের নজিরবিহীন কেলেঙ্কারি ও সারাদেশে নারী নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধনটির আয়োজন করে মহিলা দল। মানববন্ধন শেষে মিছিলের কথা থাকলেও বৃষ্টি এবং পুলিশের অবস্থানের কারণে তা হয়নি। অনুষ্ঠানে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সেলিমা রহমান বলেন, এই অবৈধ সরকার দেশকে অন্ধকারের দিকে নিয়ে যাচ্ছে। তারা ছাত্রদের হাতে লাঠি, বন্দুক, রাম দা তুলে দিয়েছে। ছাত্ররা তাদের মূল্যবোধ ভুলে গিয়ে বিরোধী দলের ওপর হামলা করছে। লুটপাট করছে, ভর্তি বাণিজ্য করছে। নারীদের বিভিন্ন অপকর্ম করতে বাধ্য করছে।

তিনি আরও বলেন, আমি নিজেও ইডেন কলেজের ছাত্রী ছিলাম। আজ আমি ইডেন কলেজের সাধারণ ছাত্রীদের বলব, আপনারা ঐক্যবদ্ধ হোন। এই অন্যায়ের প্রতিবাদ করুন। আপনাদের পাশে মহিলা দল থাকবে। সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, ৭২ থেকে ৭৫ সাল পর্যন্ত আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকাকালীন নারী অপহরণ, ধর্ষণ, ব্যাংক লুট এমন কোনো অপকর্ম নাই যা হয়নি। সেই সময় মায়েরা তাদের সন্তানকে ঘুম পাড়াতো, বর্গী আসছে বলে। আজ দেশে সেই অপকর্মগুলো আবারও হচ্ছে। এসময় বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, ইডেন কলেজ ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে যে কুকীর্তিগুলোর কথা শুনেছি তা নজিরবিহীন। আওয়ামী লীগ নেতাদের কাছে প্রশ্ন, ছাত্রলীগকে আপনারা কী বানাচ্ছেন। একবার তো খুনি বানালেন। আবরার ফাহাদকে তারা হত্যা করেছে।

বিএনপির এই নেতা বলেন, বাংলাদেশে আজ লেখাপড়া নেই। লেখাপড়া তো প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তুলে দিয়েছেন। ঢালাওভাবে সবাই জিপিএ ফাইভ পায়। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় ২ শতাংশও চান্স পায় না। তিনি আরও বলেন, কোনো জাতি যদি শিক্ষায় উন্নতি করতে না পারে, তাহলে তারা আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় টিকতে পারবে না। প্রধানমন্ত্রী তার প্রভুদের স্বার্থে আজ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোকে ধ্বংস করে দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী ছাত্রলীগকে দিয়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে দাস প্রথা চালু করছেন কিনা জানতে চেয়ে রিজভী বলেন, তাও নারী দাসী প্রথা। আমরা যে খবরগুলো শুনছি, খবরের কাগজে পড়ছি সেগুলো তো মধ্যযুগের কাহিনী। নারীকে দাসীতে পরিণত করে বিক্রি করে দিচ্ছে তারা। মানববন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাস।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ