Inqilab Logo

রোববার ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০২ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী
শিরোনাম

ক্যাচ মিসে সিরিজ খোয়াল পাকিস্তান

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৪ অক্টোবর, ২০২২, ১২:০৬ এএম

সহজ ক্যাচ হাতছাড়া করাটা পাকিস্তানি ফিল্ডাররা নিয়মে পরিণত করে ফেলেছেন।পরশু লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে ক্যাচ ড্রপে জীবন পেয়ে বিস্ফোরক জুটিতে দলকে তিন উইকেটে ২০৯ রানের বড় পুঁজি এনে দেন দাওয়িদ মালান ও হ্যারি ব্রুক। আর রান তারা করতে নেমে, এশিয়া কাপের ফাইনালের পর, আরও একটি সিরিজ নির্ধারণী অলিখিত ফাইনালে বিশাল ব্যবধানে হারলো পাকিস্তান। স্বাগতিকরা ৮ উইকেট হারিয়ে ১৪২ রানে থামলে, ৬৭ রানের জয় পায় মঈন আলীর ইংল্যান্ড। তাতে ১৭ বছর পর পাকিস্তান সফরে আসা দলটি সিরিজ জয়ের স্বাদও পেল। টি-২০ বিশ্বকাপের আগে ইংলিশদের জন্য এমন পারফরম্যান্স দারুণ আত্মবিশ্বাসের রসদ হলেও, বাবরদের জন্য নিঃসন্দেহে দুশ্চিন্তা হয়েই থাকবে ঘরের মাঠে ৪-৩ ব্যবধানে সিরিজ হারাটা।
প্রথমে মালান-ব্রুকের ঝড়ো ইনিংস ও পরবর্তীতে ক্রিস ওকস-ডেভিড উইলিদের দুর্দান্ত বোলিংয়ে সিরিজের শেষ ম্যাচটি নিজেদের করে নেয় ইংল্যান্ড। টস হেরে আগে ব্যাটিয়ে নেমে ৩৯ রানের মাঝে ২ উইকেট হারায় ইংল্যান্ড। মাঝে বেন ডাকেট ১৯ বলে ৩০ করে ফেরার পর, মালান-ব্রুকের ১০৮ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটিতেই মূলত ম্যাচ নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নেয় সফরকারীরা। ৮ চার ও ৪ ছয়ে ৪৭ বলে ইনিংস সর্বোচ্চ ৭৮ রান আসে মালানের ব্যাট থেকে। পাঁচ নম্বরে নামা ব্রুক করেন ২৯ বলে অপরাজিত ৪৬ রান।
রেকর্ড লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে মাত্র ১.২ ওভারের মধ্যেই দুই ইনফর্ম ওপেনার বাবর আজম ও মোহাম্মদ রিজওয়ানের উইকেট হারায় পাকিস্তান। রিজওয়ান করেন এক রান। বাবরের ব্যাটে আসে ৪ রান। এরপর আর ম্যাচেই ফিরতে পারেনি পাকিস্তান।
ইংল্যান্ডের নিয়মিত অধিনায়ক জস বাটলারের চোটে এই সিরিজে ভারপ্রাপ্ত হিসেবে দলকে দারুণ নেতৃত্ব দিয়েছেন মঈন। এই অলরাউন্ডারের ধারণা, পাকিস্তানের মত ক্রিকেট শক্তিকে তাদের মাটিতে হারানোটা অস্ট্রেলিয়া বিশ্বকাপে ইংলিশদের দারুণ আত্মবিশ্বাসী রাখবে। মঈন বলেন, ‘এই সিরিজ জিততে পেরে আমরা খুব খুশি। দারুণ অবস্থায় আমরা অস্ট্রেলিয়ায় যাচ্ছি।’ এরপর এই ৩৫ বছর বয়সী ইংলিশ দাবি করেন সামনের বিশ্বকাপে তাদেরকে নিয়ে বড় দলগুলোও আতঙ্কে থাকবে, ‘যদিও আমি বিশ্বকাপে নিজেদের ফেভারিট মনে করি না। তবে জানি, আমরা খুব ভয়ঙ্কর দল এবং অন্য দলগুলো আমাদের বিপক্ষে খেলতে কিছুটা ভয়ে থাকবে। এরপরও ব্যক্তিগত অভিমত, অস্ট্রেলিয়া ও ভারত ফেভারিট।’
অন্যদিকে তীরে এসেও বারবার তরী ডুবছে পাকিস্তানের। এশিয়া কাপের ফাইনালের পর এবার ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে খেয় হারালো বাবরের দল। এই ব্যাপারে বাবার জানান, ‘বড় রান তাড়া করতে নেমে দ্রুত উইকেট হারালে চাপে পড়তে হয়। এই সিরিজটা আমাদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ছিল। আমাদের বোলিং ভালো হলেও ক্রিকেটের এই ফর্মেটে আমাদের উন্নতির অনেক জায়গা আছে এখনও।’
আগামী ২৩ অক্টোবর ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে পাকিস্তানের বিশ্বকাপ যাত্রা শুরু হবে। এর আগে তারা নিউজিল্যান্ডের মাঠে বাংলাদেশকে নিয়ে একটি ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট খেলবে। অন্যদিকে বিশ্ব আসরের আগে আস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে একটা টি-টোয়েন্টির সিরিজ খেলবে ইংলিশরা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ক্যাচ মিসে সিরিজ খোয়াল পাকিস্তান
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ