Inqilab Logo

রোববার ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০২ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী
শিরোনাম

ইষ্টার্ণ জোনে ত্রুটির রেশ ধরে পশ্চিম জোনের ২১ জেলায়ও ব্যাপক বিদ্যুৎ ঘাটতি

বেশীরভাগ উৎপাদন ইউনিট বন্ধ

বরিশাল ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ৪ অক্টোবর, ২০২২, ৪:৪২ পিএম

ইষ্টার্ণ জোনে উৎপাদন, সঞ্চালন ও সরবারহে মারাত্মক ত্রুটির রেশ ধরে জাতীয় গ্রীড থেকে সরবারহে ঘাটতির সাথে বেশীরভাগ উৎপাদন ইউনিট বন্ধ হয়ে যাওয়ায় পশ্চিম জোনের ২১ জেলায়ও ব্যাপক বিদ্যুৎ ঘাটতি সৃষ্টি হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুড় আড়াইটার কিছু আগে পশ্চিম জোনের সবগুলো সঞ্চালন লাইনে ভোল্টেজ আশংকাজনক ভাবে হ্রাস পাবার সাথে সঞ্চালন ব্যাবস্থা ঝুকিপূর্ণ হয়ে ওঠায় জরুরী ভিত্তিতে বেশীরভাগ ৩৩ কেভী ও ১১ কেভী ফিডারে সরবারহ বন্ধ করে দিয়ে বিদ্যুৎ সঞ্চালন ব্যাবস্থা অক্ষুন্ন রাখা সম্ভব হয়। তবে ভোলার ২২৫ মেগাওয়াট ও বরিশালের ১১০ মেগাওয়াটের সামিট পাওয়ার সহ পটুয়াখালীর ইউনাইটেড পাওয়ার এবং গোপালগঞ্জ, ফরিদপুর ও খুলনা অঞ্চলের বেশীরভাগ উৎপাদনকেন্দগুলো ট্রিপ করে। ফলে পশ্চিম জোনের ২১ জেলার প্রায় সাড়ে ৩ কোটি মানুষ মারাত্মক বিদ্যুৎ ঘাটতির শিকার হন ।

আপাতকালীন পরিস্থিতি সামাল দিয়ে সঞ্চালন ব্যাবস্থা টিকিয়ে রাখা সম্ভব হলেও বিকেল সাড়ে ৪টায় এ পিরোর্ট লেখা পর্যন্ত সমগ্র দক্ষিন ও দক্ষিণÑপশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলায় ব্যাপক বিদ্যুৎ ঘাটতি অব্যাহত ছিল। বরিশালে দুপুরে প্রায় ১শ মেগাওয়াট চাহিদার বিপরিতে প্রায় ১৫ মেগাওয়াট লোডসেডিং চলছিল। খোদ মহানগরীর একাধীক ফিডার বন্ধ থাকায় শরতের অস্বাভাবিক গরমে মানুষের দূর্ভোগের সীমা নেই।
এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ভোলার ২২৫ মেগাওয়াটের বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি সহ দক্ষিণাঞ্চলের একাধীক বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র বন্ধ ছিল। ভোলার কম্বাইন্ড সাইকেল পাওয়ার স্টেশনটি পূর্ণ উৎপাদনে আসতে অনেক রাত হয়ে যেতে পারে বলে জানা গেছে। তবে পায়রা তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ৬৬০ মেগাওয়াটের ইউনিট দুটি চালু রয়েছে।
পাওয়ার গ্রীড কোম্পানীর বরিশাল অঞ্চলের নির্বাহী প্রকৌশলী জানিয়েছেন, ‘আমরা নিবিড় নজরদারী ও সার্বক্ষনিক প্রচেষ্টায় পশ্চিম জোনের বিদ্যুৎ সঞ্চালন ব্যাবস্থা টিকিয়ে রাখতে সক্ষম হয়েছি। পর্যায়ক্রমে উৎপাদন ইউনিটগুলো জাতীয় গ্রীডে যুুক্ত হলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে আসবে’ বলেও জানান তিনি।
জাতীয় গ্রীডে বড় ধরনের গোলেযোগের কারণে গত ৬ সেপ্টেম্বর সকাল সোয়া ৯টা থেকে সন্ধা ৭টা পর্যন্ত দেশের পশ্চিম জোনের ২১ জেলায় বিদ্যুৎ উৎপাদন, সঞ্চালন ও সরবারহ ব্যাবস্থা বিপর্যস্ত ছিল। ৪-১০-২০২২.



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ