Inqilab Logo

রোববার, ২৯ জানুয়ারি ২০২৩, ১৫ মাঘ ১৪২৯, ০৬ রজব ১৪৪৪ হিজিরী
শিরোনাম

সিপিসি’র বিংশ জাতীয় কংগ্রেস সমাপ্ত, বিভিন্ন দেশের অভিনন্দন

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২২ অক্টোবর, ২০২২, ২:৫০ পিএম

চীনের ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক পার্টি-চীনের কমিউনিস্ট পার্টির সাত দিনব্যাপী বিংশ জাতীয় কংগ্রেস আজ (শনিবার) সকালে বেইজিংয়ে গণ-মহাভবনে শেষ হয়েছে।

সম্মেলনে সিপিসি’র বিংশ কেন্দ্রীয় কমিটি এবং কেন্দ্রীয় শৃঙ্খলা তদারক কমিশন নির্বাচন করা হয়েছে, সম্মেলনে সিপিসির ঊনবিংশ কেন্দ্রীয় কমিটির কর্মপ্রতিবেদনের প্রস্তাব, সিপিসি’র ঊনবিংশ কেন্দ্রীয় শৃঙ্খলা তদারক কমিশনের কর্মপ্রতিবেদন প্রস্তাব, ‘চীনের কমিউনিস্ট পার্টির সনদ (সংশোধনী প্রস্তাব)’ বিষয়ক প্রস্তাবনা গৃহীত হয়েছে। সিপিসি’র জাতীয় কংগ্রেস এবং এতে নির্বাচিত কেন্দ্রীয় কমিশন হল সিপিসি’র সর্বোচ্চ নেতৃত্বদানকারী সংস্থা। সিপিসি’র জাতীয় কংগ্রেস প্রতি পাঁচ বছর পর একবার আয়োজন করা হয়।

সিপিসি’র বিংশ জাতীয় কংগ্রেসের সফল আয়োজনের প্রতি বিভিন্ন দেশের নেতৃবৃন্দ ও রাজনৈতিক দলের প্রধানরা যথাক্রমে সিপিসি’র কেন্দ্রীয় কিমিটি ও সিপিসি’র কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক শি জিনপিংকে অভিনন্দনবার্তা পাঠিয়েছেন।

আলজেরিয়ার প্রেসিডেন্ট আব্দেলমাজিদ জানান, সিপিসি’র বিংশ জাতীয় কংগ্রেস চীনের উন্নয়নের প্রতি গুরুত্বপূর্ণ রাজনৈতিক দিক-নির্দেশনা প্রদান করবে। যা চীনের আরো বড় উন্নয়ন ও সমৃদ্ধি এগিয়ে নেবে। তিনি বিশ্বাস করেন, মহান সিপিসি’র দৃঢ় নেতৃত্বে, চীন আরও বেশি উজ্জ্বল সাফল্য অর্জন করবে।

সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ জানান, সিপিসি’র নেতৃত্বে আধুনিক সমাজতান্ত্রিক দেশ নির্মাণের পথে চীন বিপুল সাফল্য অর্জন করেছে। দেশব্যাপী চীন চরম দারিদ্র্য নির্মূল করেছে। যা বিশ্বের জন্য একটি মডেল।

লাওস সরকারের প্রধানমন্ত্রী ফানখাম জানান, সিপিসি’র অষ্টাদশ জাতীয় কংগ্রেস আয়োজনের পর থেকে, কমরেড সি চিন পিংকে কেন্দ্র করে সিপিসি’র কেন্দ্রীয় কমিটির শক্তিশালী নেতৃত্বে, চীন উজ্জ্বল সাফল্য অর্জন করেছে। যা লাওসসহ ব্যাপক উন্নয়নশীল দেশের সার্বিক উন্নয়ন বাস্তবায়নে অমূল্য অভিজ্ঞতা দিয়েছে। তিনি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করেন, সিপিসি’র কেন্দ্রীয় কমিটির শক্তিশালী নেতৃত্বে চীনা জনগণ অবশ্যই চীনা জাতির মহান পুনরুত্থানের উচ্চাকাঙ্ক্ষা বাস্তবায়ন করতে পরবে।

থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী প্রায়ুথ চান ওচা জানান, তিনি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করেন, আগামী ৫ বছর এবং আরো দীর্ঘ সময় সিপিসি ও দেশের উন্নয়নের পরিকল্পনা সিপিসি’র বিংশ জাতীয় কংগ্রেসে সুষ্ঠুভাবে নির্দিষ্ট করা হবে।

লেবাননের সংসদের স্পিকার নাবিহ বেরি জানান, গুরুত্বপূর্ণ ঐতিহাসিক মুহূর্তে সিপিসি’র বিংশ জাতীয় কংগ্রেস আয়োজন করা হয়। তিনি শুভকামনা জানান এবং চীনের অব্যাহত সমৃদ্ধি ও উন্নয়ন এগিয়ে নেওয়ার কথা বলেন।

পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান জানান, আন্তর্জাতিক সমাজ মতৈক্য পৌঁছেছে যে, চীন হচ্ছে আন্তর্জাতিক সমাজের নেতৃত্বদানকারী শক্তি। পাশাপাশি চীন হচ্ছে উন্নয়নশীল দেশের মডেল।

শ্রীলঙ্কার সাবেক প্রেসিডেন্ট মাহিন্দা রাজাপাক্সে জানান, সিপিসি’র কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক সি চিন পিংয়ের শক্তিশালী নেতৃত্বে, চীন ‘প্রথম ১০০ বছরের প্রচেষ্টার লক্ষ্য’ বাস্তবায়ন করেছে এবং বর্তমান বিশ্বে আরও বেশি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। চীনা বৈশিষ্ট্যময় সমাজতন্ত্র নির্মাণের জন্য সিপিসি’র বিংশ জাতীয় কংগ্রেস একটি নতুন মাইলফলকে পরিণত হবে।

পাশাপাশি, বাংলাদেশের সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলিপ বড়ুয়া চীনকে অভিনন্দনবার্তা পাঠিয়েছেন। সূত্র: সিআরআই।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চীন


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ