Inqilab Logo

শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২০ মাঘ ১৪২৯, ১১ রজব ১৪৪৪ হিজিরী
শিরোনাম

সাবেক স্বামীর সঙ্গে মিলার ‘আপস’, প্রত্যাহার করে নিয়েছেন মামলা

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৯ অক্টোবর, ২০২২, ১১:০৫ এএম

সাবেক স্বামী পারভেজ সানজারীর কাছে দেনমোহর ও খোরপোষ চেয়ে করা মামলা প্রত্যাহার করে নিয়েছেন রকস্টার মিলা। বৃহস্পতিবার (২৭ অক্টোবর) ঢাকার পারিবারিক আদালতে মামলাটি প্রত্যাহার চেয়ে আবেদন করেন মিলা। এরপর ঢাকার দ্বিতীয় সিনিয়র সহকারী জজ ও পারিবারিক আদালতের বিচারক দুরদানা রহমান আবেদনটি মঞ্জুর করেন।

মামলা প্রত্যাহারের আবেদনে বলা হয়, মামলায় বাদী ও বিবাদীর আত্মীয়-স্বজন এবং শুভাকাঙ্ক্ষীদের মধ্যস্থতায় আপস-মীমাংসা হয়েছে। বর্তমানে বিবাদীর বিরুদ্ধে এ মামলায় বাদিনী আর কোনো প্রতিকার চান না বিধায় মামলা প্রত্যাহারের আবেদন মঞ্জুর করা আবশ্যক। অন্যথায় বাদীর অপূরণীয় ক্ষতি হবে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ২০১৭ সালের ১২ মে পারভেজ সানজারীর সঙ্গে কণ্ঠশিল্পী মিলার বিয়ে হয়। বিয়েতে ২৫ লাখ টাকা দেনমোহর ধার্য করা হয়৷ এ ছাড়া বিয়ের সময় মিলার বাবা-মা তাকে স্বর্ণের অলংকারসহ ৩০ লাখ টাকার আসবাবপত্র দেন। বিয়ের পর বিবাদী পারভেজ প্রায় সময় মিলার কাছে যৌতুক দাবি করেন। তাকে মানসিক ও শারীরিকভাবে নির্যাতন করেন। ২০১৭ সালের ১৬ জুন বিবাদী পারভেজ মিলার কাছে থেকে পাঁচ লাখ টাকা নেন৷ পরে যৌতুক হিসাবে দশ লাখ টাকা দাবি করে চাপ সৃষ্টি করেন। তবে টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করায় মিলার ওপর পারভেজ শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন বাড়িয়ে দেন।

এ ঘটনায় উত্তরা পশ্চিম থানায় একটা মামলা হয়। পরে ২০১৮ সালের ৩১ জানুয়ারি পারভেজ মিলাকে তালাক দেন। এরপর মিলা দেনমোহর ও খোরপোশের টাকা চাইলে পারভেজ তা দিতে অস্বীকার করেন। ২০১৯ সালের ৫ আগস্ট দেনমোহর ও খোরপোশ বাবদ ৬৭ লাখ টাকা আদায়ের জন্য ঢাকার পারিবারিক আদালতে মামলা করেন মিলা।

এছাড়া ২০১৯ সালের ২১ মে সংগীত শিল্পী মিলা ইসলামের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেছেন তার সাবেক স্বামী ও বৈমানিক পারভেজ সানজারি। মিলার সাবেক স্বামী পারভেজ সানজারি বলেন, সোশ্যাল মিডিয়ায় তার নামে মিথ্যা প্রচার ও মানহানি অভিযোগে মামলাটি করেছেন।

জানা যায়, গত ১৬ এপ্রিল মিলা তার ফেসবুক পেজ থেকে সাবেক স্বামী পারভেজ সানজারি ও তার শ্বশুড়বাড়ির লোকজনদের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে দীর্ঘ স্ট্যাটাস দিয়েছেন। এর পরিপ্রেক্ষিতেই মিলার বিরুদ্ধে মামলা করেন সানজারি। ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্ট ২০১৮ এর ২৫ (১) ক, ২৫ (৩), ২৯ (১) ও ২৯ (২) ধারায় এ মামলাটি হয়েছে।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের মে মাসে পারিবারিকভাবে বৈমানিক পারভেজ সানজারিকে বিয়ে করেন মিলা ইসলাম। বিয়ের পর গানে হয়ে পড়েন অনিয়মিত। জড়িয়ে যান সংসার জীবনের দ্বন্দ্ব-বিবাদে। নারী নির্যাতন-যৌতুকের অভিযোগে এনে স্বামী সানজারির বিরুদ্ধে মামলা করেন তিনি। সবশেষে সংসার জীবনের ইতি টানেন মিলা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মামলা


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ