Inqilab Logo

রোববার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৯ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

নতুন কোচে একতা দ্রুতযান

উদ্বোধন করবেন রেলমন্ত্রী : উত্তরবঙ্গের মানুষের স্বপ্নপূরণ

| প্রকাশের সময় : ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বিশেষ সংবাদদাতা : এবার লাল-সবুজ কোচ যুক্ত হচ্ছে ঢাকা-দিনাজপুরগামী  আন্তঃনগর ট্রেন একতা ও দ্রুতযান এক্সপ্রেসে। আজ ইন্দোনেশিয়া থেকে আমদানি করা বিলাসবহুল লাল-সবুজ কোচে সাজবে এই দুই ট্রেন। রেলমন্ত্রী মোঃ মুজিবুল হক আজ সকালে ঢাকা রেল স্টেশনে নতুন কোচের  একতা এক্সপ্রেস ট্রেনের উদ্বোধন করবেন। এর আগে গত ১১ ডিসেম্বর  মন্ত্রী লাল-সবুজের সিরাজগঞ্জ এক্সপ্রেসের উদ্বোধন করেন। ইন্দোনেশিয়া থেকে ১৫০টি কোচ আমদানি করা হয়েছে। যার মধ্যে ৫০টি ব্রডগেজের কোচ। এ নিয়ে মোট ১১টি ট্রেনের বহরে ভারত ও ইন্দোনেশিয়া থেকে আমদানি  করা লাল-সবুজ কোচ যুক্ত হবে। এর আগে ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটে বিরতিহীন ট্রেন সোনার বাংলা এক্সপ্রেস চালু করা হয় লাল-সবুজ নতুন কোচ দিয়ে। এরপর ক্রমান্বয়ে নতুন কোচ যুক্ত করা হয় ঢাকা-রাজশাহীর তিনটি (পদ্মা-ধূমকেতু-সিল্কসিটি), ঢাকা-খুলনা রুটের সুন্দরবন ও চিত্রা, ঢাকা-জামালপুরের তিস্তা ও ঢাকা-সিলেট রুটের পারাবত এক্সপ্রেসে। এর মধ্যে ঢাকা-রাজশাহী রুটে দুটি রেক দিয়ে তিনটি ট্রেন পরিচালনা করা হচ্ছে। অথচ দেশের সবচেয়ে নামকরা ও লাভজনক ট্রেন সুবর্ণ এক্সপ্রেসে এখনও লাল-সবুজ কোচ যুক্ত হয়নি। অন্যদিকে, এই প্রথম এক সাথে দুটি ট্রেনে বিলাসবহুল লাল-সবুজ কোচ যুক্ত হওয়ায় উত্তরবঙ্গের মানুষ খুবই খুশি। দীর্ঘদিন পর উত্তরবঙ্গের মানুষের দীর্ঘদিনের বিলাসবহুল ট্রেনের স্বপ্ন পূরণ হচ্ছে আজ। আলাপকালে উত্তরাঞ্চলের কয়েকজন বাসিন্দা এজন্য রেলমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, রেলওয়ের অগ্রগতির নেপথ্যের কারিগর হিসাবে মন্ত্রী মুজিবুল হকের নাম মানুষ চিরদিন মনে রাখবে।   
রেলওয়ে সূত্র জানায়, আজ বৃহস্পতিবার ঢাকা রেল স্টেশন থেকে একতা এক্সপ্রেস ও  দিনাজপুর থেকে দ্রুতযান এক্সপ্রেস লাল-সবুজ কোচ নিয়ে যাত্রা শুরু করবে। সকাল ৮টায় রেলমন্ত্রী এ যাত্রার শুভ উদ্বোধন করবেন। এর আগে আন্তঃনগর ট্রেন দুটি গত সেপ্টেম্বর মাসে মিটার গেজ থেকে ব্রডগেজ লাইনে চলাচল শুরু করে। ব্রডগেজে চলাচল শুরু করার পর ট্রেন দুটি বেশ জনপ্রিয়তা পায়। বিশেষ করে আগে মিটার গেজে চলাচলকালে দ্রুতযান এক্সপ্রেসের বদনাম ছিল অনেক। এই ট্রেনটি বহুবার দুর্ঘটনায় পতিত হওয়ায় যাত্রীরা আস্থা হারিয়ে ফেলেছিল। ব্রডগেজে রূপান্তরিত হওয়ার পর সেই আস্থা মাত্র তিন মাসেই ফিরে এসেছে। রেলওয়ের সাধারণ কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মতে, এর কারণ ব্রডগেজের কর্মচারীদের কর্মদক্ষতা ও কর্মনিষ্ঠা। যদিও ইতোমধ্যে সেই সুনামের অনেকটা বিনষ্ট হয়েছে মিটারগেজের ক্রুদের দিয়ে দিনাজপুর থেকে পার্বতীপুর পর্যন্ত শর্টট্রিপ চালানোর মাধ্যমে। জানা গেছে, লাল-সবুজের কোচ দিয়ে একতা ও দ্রুতযানে একটি এসি স্লিপিং বাথ, একটি এসি চেয়ার কোচ, একটি পাওয়ার কার ও খাবার গাড়ি থাকবে। বাকি সবগুলো হবে শোভন চেয়ার কোচ। রেলমন্ত্রী মোঃ মুজিবুল হক বলেছেন, আগামী দুই বছরের মধ্যে রেলওয়ের উন্নয়ন দৃশ্যমান হবে। তবে অনেকের মতে, দুই বছর শেষ হওয়ার আগেই রেলওয়ের উন্নতি শুধু দৃশ্যমানই নয়, উপভোগ্য হতে শুরু করেছে। যার সর্বশেষ সংযোজন লাল-সবুজের একতা ও দ্রুতযান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন