Inqilab Logo

শনিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৮ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

দৈনন্দিন জীবনে ইসলাম

| প্রকাশের সময় : ১২ নভেম্বর, ২০২২, ১২:০০ এএম

প্রশ্ন : আমার দুই ছেলে। আকীকার জন্য দু’জনের জন্য চারটি ছাগল দিতে হবে? না একটি গরু দিলেই হবে?
উত্তর : দুই ছেলের জন্য সংগতি থাকলে চারটি ছাগলই দিতে হবে। আকীকা একটি মুস্তাহসান আমল। এটি উম্মতের সকলে গুরুত্বসহকারে আমল করেছেন। তবে, যার সংগতি নেই তার জন্য এটি ওয়াজিব ফরজ নয়। গরু দিয়ে আকীকার কোনো নিয়ম দেখা যায় না। তবে, মুজতাহিদরা একটি নাম একটি ছাগলের মতো গণ্য করেন। যা কোরবানীর বেলায় প্রযোজ্য। আকীকার ক্ষেত্রে এ সুন্নাহ বা রীতি প্রযোজ্য কি না, এ নিয়ে ইমামদের মধ্যে যথেষ্ট ভিন্নমত রয়েছে। আমাদের মাজহাবে এবং উপমহাদেশীয় আলেমদের রীতিতে গরুর ৭ নামের মতো কোরবানীতে আকীকার আমলও পাওয়া যায়। যদি এই ইজতিহাদ গ্রহণ করেন, তাহলে কোরবানীর গরুতে চার ছাগলের নিয়ত করে আকীকা করতে পারেন। তবে, ছেলের বেলায় দু’টি প্রাণী, মেয়ের বেলায় একটি প্রাণী অর্থাৎ আলাদা আলাদা প্রাণী দেওয়াই অতীতের আমলে দেখা গেছে। কিন্তু ইজতেহাদের ফলে কোরবানীতে আকীকার নাম দেওয়া বহু আলেমের অনুমোদন করতে দেখা যায়। সুতরাং আপনি চেষ্টা করুন, সম্ভব হলে দুইছেলের পক্ষ থেকে চারটি ছাগল দিতে। কোরবানীর সাথে ছাড়া গরু দিলে আকীকা হবে বলে কোনা মত পাওয়া যায় না।
প্রশ্ন : আকদের তারিখ, বিয়ের তারিখ ঠিক হয়ে যায়। সেই মতে কমিউনিটি সেন্টার বুকিংসহ বিয়ের আরও যাবতীয় প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়ে যায়। কিন্তু হঠাৎ আকদের একদিন আগেই কনের পিরিয়ড শুরু হয়, এখন কথা হল সেই সময় আকদ করলে শরীয়াহ সম্মত হবে কিনা? উল্লেখ্য যে, নির্ধারিত সময়ে যদি আকদ না হয়, তাহলে আকদ ছাড়াই কনেকে বরের বাড়িতে নিয়ে আসতে হবে।
উত্তর : বিয়ের আকদ কনের পবিত্র অবস্থায় হতে হবে, এমন কোনো শর্ত শরীয়তে নেই। সুতরাং পিরিয়ডের মধ্যেও বিয়ের আকদ হতে পারে। কিন্তু পবিত্র না হওয়া পর্যন্ত দৈহিক স্বামীসংগ জায়েজ হবে না। একসাথে চলাফেরা ও জীবন যাপন হতে পারে। যেহেতু নতুন বর কনে পরস্পরের প্রতি খুবই আগ্রহী থাকে এবং নিষিদ্ধ সময়ে স্বামীসংগের মত গুনাহের কাজ সংঘটিত হওয়ার আশংকা থাকে, তাই মুরব্বীরা পবিত্র অবস্থায় বিয়ের তারিখ ফেলে থাকেন। যেমনটি আমাদের দেশে রমজানের ইমিডিয়েট আগে বিয়ে শাদী না করানোর সময়ও যুক্তি হিসাবে বিবেচনা করা হয় যে, নতুন বর কনে অসাবধানতা বশত রোজা ভেঙ্গে ফেলতে পারে। যার ক্ষতিপূরণ খুবই কঠিন। একাধারে ৬০ টি রোজা পালন। মূলত রমজান সামনে রেখে বা রমজানের ভেতরেও বিবাহ শাদী নিষিদ্ধ নয়। তেমনিভাবে আপনার বর্ণনা মতো, ঘটনাক্রমে কনের পিরিয়ড শুরু হয়ে গেলে আকদে কোনো সমস্যা থাকে না। এসময় বিয়ে যেমন শুদ্ধ হয়, কনেকে তুলে নেওয়া, একসাথে চলাফেরা ও জীবন যাপন সবই শুদ্ধ হয়। কেবল দৈহিক সম্পর্কটি পবিত্রতার অপেক্ষায় এড়িয়ে চলতে হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন