Inqilab Logo

শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২০ মাঘ ১৪২৯, ১১ রজব ১৪৪৪ হিজিরী

শির তৃতীয় মেয়াদে সিসিপি থেকে সরানো হচ্ছে মধ্যপন্থী নেতাদের

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৫ নভেম্বর, ২০২২, ১২:২০ পিএম

চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং তৃতীয় মেয়াদে কমিউনিস্ট পার্টির (সিসিপি) ক্ষমতায় আসার পর মধ্যপন্থী নেতাদের সরিয়ে কর্তৃত্ববাদী কট্টরপন্থীদের নিয়ে দল গঠন করা হচ্ছে। সিঙ্গাপুর পোস্ট এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে।
এতে বলা হয়, কেন্দ্রীয় কমিটির তালিকা থেকে অনেক নেতার নাম ‘স্পষ্টভাবে অনুপস্থিত’। ওই তালিকায় যাদের নাম নেই তাদের মধ্যে বর্তমান প্রিমিয়ার লি কেকিয়াং রয়েছেন, যদিও তিনি এখন পর্যন্ত পদাধিকার বলে চীনা কমিউনিস্ট পার্টির দ্বিতীয় কর্মকর্তা।
এছাড়া ন্যাশনাল পিপলস কংগ্রেসের চেয়ারম্যান লি ঝানশু, চীনা পিপলস পলিটিক্যাল কনসালটেটিভ কনফারেন্সের চেয়ারম্যান ওয়াং ইয়াং এবং ভাইস- প্রিমিয়ার হান জেংয়ের নামও তালিকায় অনুপস্থিত। এসব নেতা বিদায়ী সাত সদস্যের স্থায়ী কমিটির সদস্য ছিলেন।
সাত সদস্যের স্থায়ী কমিটি চীনের সবচেয়ে শক্তিশালী রাজনৈতিক কমিটি, যারা সিসিপির সাধারণ সম্পাদক নির্বাচন করে। এই নেতাদের মধ্যে লি এবং ওয়াং উভয়কেই মধ্যপন্থী বলে মনে করা হয়।
বিশ্লেষকদের উদ্ধৃতি দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়, লি কেকিয়াংকে বাজার সংস্কার এবং ব্যক্তি উদ্যোগের সমর্থনকারী বলে মনে করা হয়। অতীতে ভোগবাদী অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির জন্য প্রচেষ্টা চালিয়েছিলেন। যাহোক, পদ থেকে লি কেকিয়াংয়ের অপসারণ শি জিনপিংয়ের ব্যাপক রাষ্ট্রীয় নিয়ন্ত্রণের ইঙ্গিত দেয়। লি কেকিয়াং ছাড়াও সিসিপির নেতা ওয়াং ইয়াংকে মনে করা হয়, বাজার ও ব্যক্তি উদ্যোগের সমর্থনকারী হিসাবে।
নিজের ১০ বছরের ক্ষমতার মেয়াদে শি জিনপিং সিসিপির অন্যতম প্রধান নেতা দেং জিয়াওপিংয়ের গণতান্ত্রিক ধারার পরিবর্তন ঘটিয়েছেন। দেং প্রবর্তিত নিয়ম ছিল, চীনের প্রেসিডেন্টের মেয়াদ পাঁচ বছর এবং সর্বোচ্চ দুই মেয়াদে নির্বাচিত হতে পারবেন।
কেন্দ্রীয় কমিটি গঠনের আগে সাবেক প্রেসিডেন্ট হু জিনতাওকে সিসিপির সভা থেকে নিরাপত্তা রক্ষীরা বের করে নিয়ে যান। কিছু একটা বলার চেষ্টা করছিরেন হু জিনতাও। সেসময়ই তাকে চলে যেতে বাধ্য করা হয়। সভা থেকে তার বের হয়ে যাওয়ার সময় অন্য নেতারা কোনো প্রতিক্রিয়া দেখাননি। পরে ব্যাখ্যা দেওয়া হয়েছে, হু জিনতাও অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন।
সিঙ্গাপুর পোস্টের প্রতিবেদনে বলা হয়, পার্টির কংগ্রেসে যোগদানকারী অন্য নেতারা হুকে সাহায্য করার চেষ্টা করেননি; ফলে তার অসুস্থতার যুক্তি গ্রহণযোগ্য নয়। আর পার্টি কংগ্রেস থেকে শি জিনপিংয়ের বার্তা ছিল ‘দ্ব্যর্থহীন’।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চীন


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ