Inqilab Logo

রোববার, ২৯ জানুয়ারি ২০২৩, ১৫ মাঘ ১৪২৯, ০৬ রজব ১৪৪৪ হিজিরী

ফরিদপুরে এনজিও পরিচালকের ১০ কোটি টাকা আত্মসাতে স্ত্রী পুত্র কন্যার অঙ্গীকারে জামিন লাভ

ফরিদপুর জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৬ নভেম্বর, ২০২২, ৫:৩১ পিএম

ফরিদপুরের নয় কোটি ৯৬ লাখ ৩৫ হাজার সাতশ ৯২ টাকা অডিট আপত্তির দায় স্বিকার করে মুচলেকা দিয়ে জামিন পেয়েছেন পল্লী প্রগতি সহায়ক সমিতির বরখাস্তকৃত সাবেক নির্বাহী পরিচালক অলিয়ার রহমান খানক কে জেলার

অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত,ফরিদপুর একাধিক শর্তে জামিন দেন। এতথ্য বুধবার (১৬ নভেম্বর) বিজ্ঞ আইনজীবী এডঃ বাবু বিশ্বজিৎ গাঙ্গুলী গণমাধ্যম কে নিশ্চিত করেন।
অলিয়ার রহমান আত্মসাৎ এর দায় স্বিকার করে তিনটি পৃথক পে অর্ডারের মাধ্যমে তিন লাখ টাকা পরিশোধ করত: নিজসহ তিনজন ওয়ারিশগণের (স্ত্রী রহিমা, ছেলে শাতির ইবনে ওয়ালি ও কন্যা ইফফাত আরা ফারজানা) অঙ্গীকার নামায় আদালত কর্তৃক ধার্য তারিখের মধ্যে বাকি টাকা পরিশোধ করবেন মর্মে অঙ্গিকার নামা প্রদান করায় জামিন প্রদান করা বলে আদালত সূত্রে গণমাধ্যম কর্মীর নিশ্চিত হন।

মামলার বাদী ও সংস্থার জেনারেল সেক্রেটারী আব্দুল কুদ্দুস মোল্লা গণমাধ্যম বলেন , ইতিপুর্বে এক্সটার্নাল ও ইন্টার্নাল অডিট আপত্তির কারণে তাকে প্রথমে সাময়িক ও পরে স্থায়ীভাবে বরখাস্ত করা হয়। পরবর্তীতে সংস্থার নিয়মানুযায়ী তার বিরুদ্ধে আদালতে মামলা রুজু করা হলে তিনি গত ১৮ অক্টোবর আদালতে উপস্থিত হয়ে জামিন প্রার্থনা করলে, আদালত তা নামঞ্জুর করে জেল হাজতে পাঠায়। তিনি আরো জানান, তিনটি পৃথক পে অর্ডারের মাধ্যমে তিন লাখ টাকা পরিশোধ করেছেন তিনি, বাকি নয় কোটি ৯৩ লাখ ৩৫ হাজার সাতশ ৯২ টাকা আদালত কর্তৃক ধার্যকৃত তারিখের মধ্যে পরিশোধ করবেন বলে অঙ্গীকার নামা প্রদান করেছেন।
অলিয়ার রহমান খানের, কনিষ্ঠ পুত্র শাতিল ইবনে ওয়ালি বলেন, তিনি (অলিয়ার রহমান খান) দীর্ঘ দিন ধরে পল্লী প্রগতি সহায়ক সমিতির নির্বাহী পরিচালক হিসেবে দ্বায়িত্ব পালন করেছেন। দ্বায়িত্ব পালনকালে কোনো ভুল ছিলো কিনা তা আমরা নিশ্চিত নই। যেহেতু অডিট আপত্তি তোলা হয়েছে, জামিনে মুক্তির পর বিষয়গুলো খতিয়ে দেখা হবে। তাছাড়া অভিযোগকারীর সাথে আমাদের পারিবারিক সম্পর্ক রয়েছে, উভয়পক্ষ বসে আলোচনার মাধ্যমে বিষয়টি নিস্পত্তি করার চেষ্ট করা হবে।

উল্লেখ্য, এটাই প্রথম যে, কোন এনজিও পরিচালক সংস্হার ১০ কোটি টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ উঠলো। এ ঘটনায় জেলার সকল কর্মকর্তা ও পরুচালকরা নড়েচড়ে বসলেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: জামিন

৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২২
৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২২

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ