Inqilab Logo

শনিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২৩, ১৪ মাঘ ১৪২৯, ০৫ রজব ১৪৪৪ হিজিরী

সেই বেলের গোলেই ওয়েলসের রঙিন প্রত্যাবর্তন

যুক্তরাষ্ট্রের হয়ে লাইবেরিয়ান প্রেসিডেন্টপুত্রের গোল!

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৩ নভেম্বর, ২০২২, ১২:০০ এএম

সুদীর্ঘ ৬৪ বছর পরে বিশ্বকাপের মঞ্চে খেলার সুযোগ পেয়েছে ওয়েলস। স্বপ্ন যখন হাতে ধরা দেয় তখন বাস্তবতা আর পরবাস্তবতার মাঝে ফারাক থাকে না। গ্যারেথ বেল ও ড্যানিয়েল জেমসরা যখন সেই ঘোরের মধ্যে, তখনই সুযোগটা কাজে লাগালো যুক্তরাষ্ট্র। সাবেক ব্যালন ডি-অর জয়ী ফুটবলার ও লাইবেরিয়ার বর্তমান প্রেসিডেন্ট জর্জ উইয়াহর ছেলে টিম উইয়াহর দারুণ এক গোলের এগিয়ে যায় মার্কিনীরা। পরশু মধ্যরাতে বিশ্বকাপের বি গ্রæপের ম্যাচে উইয়াহ-পুলেসিকরা প্রেসিং ফুটবলের ঝলকে বেলদের কোণঠাসা করে রাখেন গোতা প্রথমার্ধে। দ্বিতীয়ার্ধেই একটা সুক্ষ পরিবর্তন আনেন ওয়েলস বস রব পেইজ, তাতেই হঠাৎ বিরতির পর আমূলে বদলে যায় এই বৃটিশ দলটি। ম্যাচের শেষদিকে বেল স্পটকিক থেকে বল নিশানায় পাঠালে ১-১ গোলের ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়ে দুই দল।
প্রথমার্ধে অবশ্য ওয়েলসেকে খেলতেই দেয়নি আমেরিকা। দলটিতে আছে ডেস্ট, ম্যাকিননে, পুলেসিক, অ্যাডামস ও সার্জেন্তের মত ইউরোপ মাতানো ফুটবলার। তবে তাদের প্রেসিংটা রপ্ত করা ভিন্নভাবে। যুক্তরাষ্ট্রের এই দলটির উল্লেখযোগ্য ফুটবলাররা এসেছেন লাইপজিগ ও সালসবার্গের মত ক্লাবগুলোর একাডেমি থেকে। আর রেড বুলসের মালিকানাধীন এই দুই ক্লাবের মূলমন্ত্রই হচ্ছে প্রেসিং ফুটবলের দর্শনে ক্লাবের সমৃদ্ধি।
বিরতির আগে মনে হচ্ছিল গোলহীন থেকে দলের পরাজয়ের ভাগীদার হয়ে বেলরা মাঠ ছাড়বেন। এর মাঝে ম্যাচের ৩৬ মিনিটেই চেলসির উইঙ্গার পুলিসিকের সহায়তায় দলকে এগিয়ে দেন উইয়াহ। যুক্তরাষ্ট্র প্রথমার্ধে যেমন খেলেছে, তাতে অবশ্য এই গোলটা পাওনাই ছিল তাঁদের। বাবা কিংবদন্তি স্ট্রাইকার জর্জ উইয়াহ এককালে খেলতেন এসি মিলানে, ব্যালন ডিঅ’রও জিতেছিলেন। ছেলের সামনে সুযোগ ছিল বেড়ে ওঠার স্থান ফ্রান্স, মাতৃভ‚মি জ্যামাইকা ও পিতৃভ‚মি লইবেরিয়ার হয়ে জাতিয় দলের প্রতিনিধিত্ব করার। তবে টিম বিশ্বকাপ খেলার নেশায় পাড়ি দিয়েছিলেন জন্মস্থান যুক্তরাষ্ট্রে। এখানে এসেই এমন এক কাজ করে দেখালেন, যা বাবাও করে দেখাতে পারেননি। বিশ্বকাপে গোল!
কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধেই হিসাব-কিতাব পাল্টে দেন বেলরা। কোচ রব পেইজ ৩-৪-৩ ছকে প্রথমে কোনো পুরোদস্তুর স্ট্রাইকার নামাননি। দ্বিতীয়ার্ধে সে ভুল শুধরে বোর্নমাউথের কিফার মুরকে নামানোর সঙ্গে সঙ্গে ম্যাচের দখল পায় ওয়েলস। যার ফলাফল, ৮২ মিনিটে বেলের পেনাল্টি থেকে গোল করা।
এবারের বিশ্বকাপে উন্মাদনাটা তিন সুপারস্টারকে নিয়েই বেশি হচ্ছে। মেসি, রোনালদো তো অবশ্যই, হয়তো নেইমারও নিজের শেষ বিশ্বকাপ খেলে ফেলছেন ভেবে স্মৃতিকাতরতায় বারবার ব্যাকুল হচ্ছেন ফুটবলপ্রেমীরা। সে তালিকায় যে একজন গ্যারেথ বেলও রয়েছেন, ওকথা ভাবছেন কজন? তাতে বয়েই গেছে বেলের। আজীবন দেশকে টেনে গিয়েছেন, ওয়েলসের ফুটবল ইতিহাসের গৌরবময় অনেক মুহূর্তই এসেছে এই উইঙ্গারের হাত ধরে। পরশুও যার ব্যতিক্রম হল না। এই নিয়ে দেশের হয়ে ৪১ গোল করলেন সাবেক টটেনহাম তারকা। ম্যাচ শেষ হয় ১-১ গোলের ড্র নিয়ে। গ্রæপে তিন পয়েন্ট নিয়ে সবার ওপরে ইরানকে ৬-২ গোলে হারানো ইংল্যান্ড। এক পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে যথাক্রমে ওয়েলস ও যুক্তরাষ্ট্র। সবশেষে পয়েন্টের খাতায় শূন্য নিয়ে পড়ে থাকা ইরান।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন