Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪ আশ্বিন ১৪২৭, ০১ সফর ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

ওবামা পুতিনকে হ্যাকিং বন্ধ করতে বলেছিলেন

| প্রকাশের সময় : ১৮ ডিসেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

দি নিউইয়র্ক টাইমস : প্রেসিডেন্ট ওবামা শুক্রবার প্রথমবারের মত বলেন যে পুনরায় হ্যাকিংকে উৎসাহিত করা হবে এ আশঙ্কায় তিনি যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে নাক গলানোর জন্য রাশিয়ার বিরুদ্ধে পাল্টা ব্যবস্থা নেয়া থেকে বিরত থাকছেন। এ হ্যাকিং মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ভোট গণনা বাধাগ্রস্ত করে থাকতে পারে। তবে তিনি বলেন, যে তার প্রেসিডেন্ট মেয়াদের শেষ ৩৪ দিনে তিনি রাশিয়ানদের বিরুদ্ধে প্রকাশ্য ও গোপন উভয় ব্যবস্থা গ্রহণের কথা বিবেচনা করছেন যা তাদের ক্ষতিকে বৃদ্ধি করবে।
ওবামা বলেন, তিনি ক্রেমলিনকে একটি বার্তা দিতে অঙ্গীকারবদ্ধ ছিলেন যে আমরাও আপনাকে ঠেলা দিতে পারি, তবে তা সাইবার যুদ্ধকে সম্প্রসারিত না করে।  
তিনি বলেন, সেখানে এমন লোক আছে যারা বলে যে আমরা যদি সেখানে যাই, বড় ঘোষণা দেই ও ব্যবস্থা নেব বলে বুক চাপড়াই, তা কোনো একভাবে রুশদের শংকিত করবে। আমি মনে করি, তা রাশিয়ার চিন্তা প্রক্রিয়া ভালভাবে বুঝতে পারবে না।
ওবামা বলেননি যে তিনি কী ধরনের পদক্ষেপের কথা বিবেচনা করছেন। তিনি বলেন, কিছু ব্যবস্থা, যদি সেগুলো বাস্তবায়ন করা হয়, গোপন থাকতে পারে। তিনি বলেন, কিছু ব্যবস্থা আমরা এমনভাবে নেব যে তারা জানতে  পারবে, তবে সবাই জানবে না।
প্রেসিডেন্ট ওবামা বার্ষিক বছর শেষের সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন। তার মন্তব্য আসন্ন প্রেসিডেন্টের মেয়াদ শেষের বিষণœতা জড়ানো ছিল, একই সাথে আগামী মাসে ডোনাল্ড ট্রাম্পের ক্ষমতা গ্রহণের পর সম্ভাব্য পরিবর্তনেরও ইঙ্গিত বহন করছিল এবং নির্বাচনের ফলে সৃষ্ট রাজনৈতিক অসন্তোষে রাশিয়ার ভূমিকা বিষয়ে অস্বস্তি সৃষ্টি করেছিল।
হিলারি ক্লিনটন নিউইয়র্কে নির্বাচনী দাতাদের উদ্দেশ্য বক্তৃতাকালে তার নির্বাচনী প্রচার ও ডেমোক্র্যাটিক ন্যাশনাল কমিটির (ডিএনসি) কম্পিউটার হ্যাকের পরিকল্পনার জন্য রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিনকে স্পষ্টভাবে অভিযুক্ত করেন। তিনি বলেন, আমাদের গণতন্ত্রকে ব্যাহত করার লক্ষ্যে আমার বিরুদ্ধে ব্যক্তিগত ক্রোধের অংশ হিসেবে এটা করা হয়েছে।    
ওবামা এ জন্য ঢালাওভাবে পুতিনকে দায়ী করেননি। তবে তিনি উল্লেখ করেন, রাশিয়াতে পুতিনের অবগতি ছাড়া বেশী কিছু ঘটে না। তিনি আমেরিকার রাজনৈতিক প্রক্রিয়ার উপর রুশ প্রভাবের অপচ্ছায়া বিলোপ করতে চেয়ে বলেন, রাশিয়া একটি ছোট দুর্বল দেশ যারা তেল, গ্যাস ও অস্ত্র ছাড়া কারো কেনার মত কিছু উৎপাদন করে না।  
এখনো প্রেসিডেন্ট ওবামা স্পষ্টভাবে তার কথায় হ্যাকিং ঘটনা ও আমেরিকার রাজনৈতিক অবস্থার ব্যাপারে সে প্রতিক্রিয়ার বিষয়টির সাথে লড়ছেন। সাম্প্রতিক এক জরিপে দেখা গেছে, ট্রাম্পের ভোটদাতাদের এক তৃতীয়াংশেরও বেশী বলেছেন তারা পুতিনের কথা অনুমোদন করেন। পুতিন বলেছিলেন, রোনাল্ড রিগান তার কবরে গড়াগড়ি যাবেন। ওবামা বলেন, প্রেসিডেন্ট আমেরিকানদের কাছে দলীয় ঘৃণা ও বিরোধ থেকে মুক্ত থাকার আবেদন করেছিলেন যে তাদেরকে বিদেশী চক্রান্তের কাছে অন্ধ করে দেয়।
ওবামা বলেন, এগুলো পরিবর্তন না হলে বিদেশী প্রভাবের কাছে আমাদের দুর্বল হয়ে পড়া অব্যাহত থাকবে, কারণ আমরা কি এবং আমাদের অবস্থান কি, সে পথ আমরা হারিয়ে ফেলেছি।
ওবামা তার আট বছর মেয়াদে তার সম্পন্ন করা কাজের দীর্ঘ তালিকা তুলে ধরেন। কিন্তু ট্রাম্পের বিজয়ের পর সৃষ্ট অসন্তোষ হ্যাকিং সম্পর্কে ওবামার নির্বাচন পূর্ব জবাবের ব্যাপারে প্রশ্ন সৃষ্টি করেছে। সে সাথে তা ট্রাম্প ও দেশের গোয়েন্দা সংস্থার মধ্যে নোংরা ঝগড়া সৃষ্টি এবং খোদ ভোটের ব্যাপারেই সন্দেহ জাগিয়ে তুলেছে।
প্রেসিডেন্ট হ্যাকিং রিপোর্টের ব্যাপারে তার সতর্ক অবস্থান বজায় রাখেন যা রাশিয়া ট্রাম্পকে নির্বাচনে জয়ী করার জন্য চেষ্টা করেছিল বলে গত সপ্তাহে গোয়েন্দা সংস্থার মন্তব্যের পর ডেমোক্র্যাটদের সমালোচনার সম্মুখীন হয়েছে।
তিনি বলে, আমরা সোজাসুজি এ খেলাটা খেলছি, আমরা কোন পক্ষকে সুবিধা দেয়ার চেষ্টা করছি না। কল্পনা করুন, আমরা যদি বিপরীতটা করতাম তাহলে তা হত আরো একটি রাজনৈতিক সমস্যা।
সিআইএ পরিচালক জন ও. ব্রেনান ডেমোক্র্যাট ন্যাশনাল কাউন্সিলের কম্পিউটার হ্যাকিং ও নির্বাচনের আগের দিনগুলোতে ফাঁস করা উইকিলিকসের ইমেইল নিয়ে রাশিয়ার উদ্দেশ্যের ব্যাপারে গোয়েন্দা সংস্থাগুলো ও সিআইএর মধ্যে বিরোধের খবর সম্পর্কে বিতর্ক সৃষ্টি করে শুক্রবার এক বিবৃতি দেয়ার প্রেক্ষিতে প্রেসিডেন্ট হয়ত আবার প্রশ্নের সম্মুখীন হতে পারেন।
ওয়াশিংটন পোস্টে প্রথম প্রকাশিত তার বিবৃতিতে ব্রেনান বলেন, তিনি এফবিআই পরিচালক জেমস বি. কোমি ও জাতীয় গোয়েন্দার পরিচালক জেমস আর. ক্ল্যাপারের সাথে বৈঠক করেন এবং প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ব্যাপারে রুশ হস্তক্ষেপের সুযোগ, প্রকৃতি ও অভিসন্ধির ব্যাপারে আমাদের মধ্যে দৃঢ় মতৈক্য প্রতিষ্ঠিত হয়।  
এ বিবৃতি ট্রাম্পকেও চ্যালেঞ্জ করবে যিনি হ্যাকিং রিপোর্ট নিয়ে আন্তঃসংস্থার বিরোধকে বাতিল করেছেন। তিনি সিআইএর বিশ্লেষণের সমালোচনা করে বলেন, এটা সেই সংস্থার সরবরাহকৃত যারা ইরাক যুদ্ধের আগে সাদ্দাম হোসেনের গণবিধ্বংসী অস্ত্রের ব্যাপারে ভুল রিপোর্ট দিয়েছিল।
ওবামা আশা প্রকাশ করেন যে ট্রাম্প যখন প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নেবেন তিনি অধিকতর সংযত দৃষ্টিভঙ্গি গ্রহণ করবেন। তিনি বলেন, উত্তরাধিকারির সাথে তার হৃদ্যতাপূর্ণ আলোচনা হয়েছে। ট্রাম্প কার্যকারিতা, সততা, আমাদের অফিসের সংযোগ, আমাদের বিভিন্ন গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠান বহাল রাখা বিষয়ে আমার পরামর্শ শুনেছেন।
প্রেসিডেন্ট এফ বি আইকে সমর্থন করেন যদিও সংস্থাটি হিলারির ইমেইল তদন্ত পুনরায় শুরু করার শেষ মুহূর্তে কোমির ঘোষণা হিলারি ও তার সহযোগীেেদর তীব্র সমালোচনার শিকার হয়। হিলারি তার পরাজয়ের জন্য কোমির ঘোষণাকে দায়ী করেন।
বৃহস্পতিবার ক্লিনটনের মন্তব্য পুতিন সম্পর্কে যুক্তরাষ্ট্রের দৃষ্টিভঙ্গি কি হওয়া উচিত সে বিষয়ে সাবেক বসের সাথে তার দীর্ঘদিনের মতপার্থক্য তুলে ধরেছে।
তার পক্ষ থেকে ওবামা বিস্ময়করভাবে স্বীকার করেন যে তার প্রশাসন কিভাবে রাশিয়ান হ্যাক সম্পর্কে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছে। তিনি বলেন, গ্রীষ্মকালের শুরু পর্যন্ত ডি এন সির কম্পিউটার হ্যাকের সম্ভাবনা সম্পর্কে হোয়াইট হাউস সতর্ক হয়নি।   
নয় মাস পর এফ বি আই এর একজন এজেন্ট প্রথম ডি এন সির সাথে যোগাযোগ করে যে একটি প্রধান, সরকার সংশ্লিষ্ট হ্যাকিং গ্রুপ কমিটির নেটওয়ার্কের মধ্যে ছিল। তাদের এ তথ্য প্রশ্ন সৃষ্টি করে যে এ খবরটি প্রেসিডেন্টের কাছে পৌঁছতে এত দেরী হল কেন।
ওবামা এটা পরিষ্কার করেছেন যে এ খবর পাওয়ার পর তিনি তার নিজের মত চলেছেন কারণ এই অতিদলীয় পরিবেশে তিনি ভাবেননি তিনি বা হোয়াইট হাউসের আর কেউ হিলারির পক্ষে থাকার ঝুঁকি না নিয়ে এ ব্যাপারে কথা বলতে পারে।
ওবামার সহযোগীরা স্বীকার করেন যে এর অনিচ্ছাকৃত ফল এই যে রুশরা খুব সামান্য প্রতিরোধের সম্মুখীন হয়েছে। সেপ্টেম্বরে ওবামা চীনের হ্যাংঝুতে গ্রুপ ২০-এর শীর্ষ বৈঠকে পুতিনকে একপাশে টেনে নিয়ে যান। রুশ নেতাকে যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে সরাসরি হুঁশিয়ারি দেয়া হয়। ওবামা বলেন, তিনি তাকে বলেন যে এ সব বন্ধ করুন, তা না করলে ফল হবে মারাত্মক।
প্রেসিডেন্টের এ পদক্ষেপ কাজ দেয়। তিনি বলেন, আমরা আর নির্বাচন প্রক্রিয়ায় কোনো কোনো অবৈধ প্রভাব বিস্তার করতে দেখিনি। তবে ডি এন সি ইমেইল ফাঁস এবং হিলারির নির্বাচন ম্যানেজার জন ডি. পডেস্টা তাদের কাজ অব্যাহত রাখেন। কারণ তারা ইতোমধ্যে উইকিলিকসের হাতে পড়ে গিয়েছিলেন।
ওবামা বলেন, রাশিয়া সরকারের উদ্দেশ্য এক রহস্যই বটে, কারণ আপনারা এ ব্যাপারে রোজ লিখেছেন, জন পডেস্টার রিসটো রেসিপিসহ প্রতিটি রাজনৈতিক রটনার প্রতিটি ক্ষুদ্র রসালো টুকরো ফাঁস হওয়া নিয়ে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন