Inqilab Logo

শনিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৮ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

বুকের তাজা রক্ত ঢেলে দিয়ে হলেও গণসমাবেশ সফল করা হবে -সংবাদ সম্মেলনে মিনু

রাজশাহী ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২৪ নভেম্বর, ২০২২, ৬:৩৩ পিএম

আগামী ৩ ডিসেম্বর রাজশাহী বিভাগীয় গণসমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। এই গণসমাবেশকে কেন্দ্র করে রাজশাহী বিভাগে ব্যাপকভাবে গায়েবী মামলা ও নেতাকর্মীদের আটক শুরু হয়ে গেছে। রাজশাহী মহানগর, সকল জেলা, উপজেলা, থানা, পৌরসভা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড সমুহের বিএনপি, অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা, পুলিশি হয়রানী, হামলা ও গ্রেফতার এর প্রতিবাদে বৃহস্পাতিবার দুপুরে নগরীর সাহেব বাজার এলাকার একটি কমিউিনিটি সেন্টারে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।
রাজশাহী বিভাগীয় গণসমাবেশ সমন্বয় কমিটির আয়োজনে সভাপতির বক্তব্যে বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া অন্যতম উপদেষ্টা, রাসিক সাবেক মেয়র ও এমপি জননেতা মিজানুর রহমান মিনু বলেন, দেশের ছয়টি বিভাগীয় শহরের ইতোমধ্যে গণমসমাবেশ শেষ হয়েছে। সে সব সমাবেশে সরকারের পক্ষ থেকে নজিরবিহিন বাধা প্রদান, স্থলের ও জলের সকল প্রকার যানবাহন বন্ধ করে দেয়ার পরও বিএনপি, অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মীদের রুখতে পারেনি। সকল বাঁধা অতিক্রম করে জনগণ গণসমাবেশে উপস্থিত হয়েছিলেন।
তিনি বলেন, রাজশাহীর গণসমাবেশ নিয়েও গভীর ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে। অন্যান্য বিভাগীয় শহরে এ লক্ষে কোন প্রকার মামলা হয়নি। সেখানে ব্যাপক পরিমানে জনসমাবেশ হয়েছিলো। সকল বিভাগীয় শহরকে ছাড়িয়ে রাজশাহীর গনসমাবেশ জনসমুদ্রে পরিণত করা হবে। এরজন্য তাদের যদি বুক থেকে তাজা রক্ত পিচঢালা পথে ঢেলে দিতে হয়, তাতে নেতাকর্মীরা রাজি আছেন। সকল বাধা ও চক্ষুরাঙ্গানীকে উপেক্ষা করে পুরো শহর মানুষে মানুষে ভরে যাবে বলে উল্লেখ করেন।
তিনি আরো উল্লেখ করেন ৬টি বিভাগের প্রতিটি সমাবেশের আগে পরিবহন ধর্মঘট সরকারী দল আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও সরকার দলীয় পেটুয়া বাহিনীর হামলা ও আক্রমনের পর এবার রাজশাহী বিভাগীয় গণ সমাবেশের আগে প্রশাসন ও পুলিশের অত্যচার নির্যতন ও ত্রাস এমন এক ভয়াবহ আকার ধারন করেছে যে, উপজেলা পর্যয়ে বিএপির কোন নেতাকর্মী এলাকায় থাকতে পারছেন না। মানুষের সাথে কোন প্রকার যোগাযোগ পর্যন্ত করতে পারছেনা। প্রশাসন ও পুলিশের এরূপ বেআইনি নির্যাতন ও অত্যচার থেকে বিরত থাকার জন্য সংবাদ সম্মেলন থেকে আহবান জানান ।
তিনি বলেন, পতনোন্মুখ সরকারের বেআইনি আদেশ পালনে প্রশাসন ও পুলিশ বাধ্য নন। পুলিশকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, অতি উৎসাহি ভুমিকার কারনে গণদুশমনে পরিনত হবেন না। দেশের চলমান গণতান্ত্রিক আন্দোলনে শান্তি শৃংখলা বজায় রাখতে আইন সঙ্গত ও সংবিধান সম্মত দায়িত্ব পালন করার জন্য প্রশাসনের প্রতি অনুরোধ করেন তিনি। শেষে ধন্যবাদ জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন শেষ করেন।
সংবাদ সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপ¯ি’ত ছিলেন বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা, সাবেক এমপি শাহজাহান মিয়া, বিএনপি’র যুগ্ম মহাসচিব সংসদ সদস্য হারুন অর রশিদ, বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির রাজশাহী বিভাগীয় সাংগঠািনক সম্পাদক এডভোকেট রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক, রাজশাহী মহানগর বিএনপি'র সাবেক সভাপতি ও রাসিক সাবেক মেয়র মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল, বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির রাজশাহী বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ শাহীন শওকত, বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির ত্রান ও পুনর্বাসন বিষয়ক সহ-সম্পাদক ও রাজশাহী মহানগর বিএনপি’র সাবেক সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট শফিকুল হক মিলন।
উপস্থিত ছিলেন বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও রাজশাহী জেলা বিএনপি’র আহ্বায়ক আবু সাঈদ চাঁদ, বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও রাজশাহী জেলা বিএনপি’র সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক সাইফুল ইসলাম মার্শাল, রাজশাহী মহানগর বিএনপি’র আহ্বায়ক বীরমুক্তিযোদ্ধা এডভোকেট এরশাদ আলী ঈশা, সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক নজরুল হুদাসহ বিএনপির অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ