Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ১২ কার্তিক ১৪২৭, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

আইন মানছেন না আইভী-সাখাওয়াত

নাসিক নির্বাচন

প্রকাশের সময় : ১৮ ডিসেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম | আপডেট : ১:৫৮ এএম, ১৮ ডিসেম্বর, ২০১৬

নারায়ণগঞ্জ থেকে স্টাফ রিপোর্টার : গতকাল সকালে এনসিসি’র ৪নং ওয়ার্ডের শিমরাইল এলাকায় গণসংযোগকালে নাসিকে বিএনপির মেয়র প্রার্থী সাখাওয়াত হোসেন গণমাধ্যম কর্মীদের বলেন, জনগনের ভোটের অধিকার রক্ষা ও প্রতিষ্ঠার জন্য নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করেছি। এ এলাকায় বিএনপি সমর্থক বেশি। যখনই নিরপেক্ষ নির্বাচন হয়েছে তখনই মানুষ বিএনপিকে ভোট দিয়েছে। ধানের শীষ বিজয়ী হয়েছে। এ এলাকার মানুষ শান্তিপ্রিয়।
এছাড়াও তিনি সাবেক মেয়র আইভীর সমালোচনা করে বলেন, আওয়ামী লীগের প্রার্থী নির্বাচনী প্রচারণায় আইন মানছেন না। বিভিন্ন স্থানে আমার কর্মীদের হুমকি-ধমকি দেয়া অব্যাহত রয়েছে। সাবেক পৌরসভা ও সিটি কর্পোরেশন এই দুইমিলে আইভী দীর্ঘ ১৩ বছর মেয়র হিসাবে দায়িত্ব পালন  করেছেন কিন্তু, নগরীর সমস্যা সমাধান করতে পারেননি। আমাকে যদি জনগণ ভোট দিয়ে ৫ বছরের জন্য নির্বাচিত করে তাহলে এ এলাকায় শান্তি প্রতিষ্ঠায় কাজ করবো। সকল শ্রেণির মানুষ আমার কাছে একই মর্যাদা পাবেন। পরে তিনি কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দসহ নগরীর ৫, ৬ ও ৭নং ওয়ার্ডে গণসংযোগ করেন। এদের মধ্যে ছিলেন নির্বাচনে সিদ্ধিরগঞ্জের প্রধান সমন্বয়কারী বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম আজাদ, চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা আবুল খায়ের ভুইয়া, হাবিবুর রহমান হাবিব, নির্বাহী কমিটির সদস্য নাজিমউদ্দিন আলম, ডা. দেওয়ান সালাহ উদ্দিন বাবু প্রমুখ।
এ সময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির কুমিল্লা বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আউয়াল খান,  নির্বাহী কমিটির সদস্য গিয়াস উদ্দিন, সালাউদ্দিন ভুইয়া শিশির, একরামুল হক বিপ্লব, অধ্যাপক আমিনুল ইসলাম, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা বিএনপির সদস্য সচিব অধ্যাপক মামুন মাহমুদ, যুগ্ম আহ্বায়ক মনিরুল ইসলাম রবি প্রমুখ।
সাখাওয়াতকে সমর্থন দিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন এলডিপি প্রার্থী
এদিকে এলডিপির মেয়র প্রার্থী কামাল প্রধান বিএনপির প্রার্থী সাখাওয়াতকে সমর্থন দিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন। গতকাল দুপুর ১টায় নগরীর কালিবাজারস্থ বিএনপির মিডিয়া সেলে এক সবাংদ সম্মেলনের মাধ্যমে তিনি এ ঘোষণা দেন।
তিনি সংবাদ সম্মেলনে বলেন, আমি দলীয় নির্দেশ মোতাবেক বিএনপির মেয়র প্রার্থী সাখাওয়াত হোসেনকে সমর্থন জানিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালাম। এখন থেকে আমি সাখাওয়াতের নির্বাচনী কাজের একজন কর্মী হিসেবে নিজেকে নিয়োজিত রাখব।

নারায়ণগঞ্জে বাঘ থাবা দেবে না তবে বিড়াল খামচি দিতে পারে-গয়েশ্বর
নারায়ণগঞ্জ থেকে স্টাফ রিপোর্টার : বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, নারায়ণগঞ্জে বাঘ থাবা দেবে না, তবে বিড়াল খামচি দিতে পারে। বিড়ালের খামচিতে কেউ মরে না। সুতরাং ভয় পাওয়ার কারণ নেই। এখনই মাঠে ঝাঁপিয়ে পড়–ন।
শুক্রবার রাতে নারায়ণগঞ্জ বিএনপির সভাপতি অ্যাড. তৈমূর আলম খন্দকারের বাসায় নির্বাচনকে ঘিরে মতবিনিময় সভায় স্থানীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি ওই কথা বলেন।
এদিকে নির্বাচনকে ঘিরে নারায়ণগঞ্জ বিএনপির শীর্ষ নেতৃবৃন্দের অবহেলা, গণসংযোগে না আসা, তৃণমূলকে জাগিয়ে তুলতে না পারার ব্যর্থতায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন দলটির কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ। সভায় স্থানীয় বিএনপির মাঠ পর্যায়ের নেতাকর্মীদের অভিযোগের ভিত্তিতে এ ক্ষোভ প্রকাশ করেন তারা।
সভায় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সিটি নির্বাচনের সমন্বয়ক গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুস সালাম, ঢাকা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র মীর নাছিরউদ্দিন, মিজানুর রহমান মিনু, নরসিংদী জেলা বিএনপির সভাপতি খায়রুল কবির খোকন, কামরুজ্জামান রতন, নারায়ণগঞ্জ বিএনপিসাধারণ সম্পাদক কাজী মনিরুজ্জামান, সহ সভাপতি শাহআলম, সাবেক এমপি অ্যাড. আবুল কালাম, সাবেক এমপি মুহাম্মদ গিয়াসউদ্দিন, মেয়র প্রার্থী অ্যাড. সাখাওয়াত হোসেন খান, নগর বিএনপির সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামালসহ অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা।
গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, যে বাঁচতে চায় তাকেই বাঁচানো যায়, কিন্তু যে মরতে চায় তাকে বাঁচানো যায় না। আমরা আপনাদেরকে জাগিয়ে দিতে এসেছি, জাগিয়ে দিয়ে চলে যাবো। কিন্তু, জনগণের ভোট রক্ষা করার দায়িত্ব আপনাদের।
জেলা বিএনপির সভাপতি তৈমূর আলম খন্দকার বলেন, আমাদেরকে নিজের বিবেকের তাড়নায় কাজ করতে হবে। প্রতিপক্ষকে কখনোই ছোট করে দেখার অবকাশ নেই। যাকে যে কেন্দ্রের দায়িত্ব দেয়া হবে তাকে সেই কেন্দ্রেই দায়িত্ব পালন করতে হবে। আমাকে যে কেন্দ্রের দায়িত্ব দেয়া হবে আমার জীবন থাকতে সে কেন্দ্রে কোন জাল সীল মারতে দেয়া হবে না। অপপ্রচার করে লাভ নেই। আজ থেকে নারায়ণগঞ্জে ধানের শীষের আওয়াজ উঠবে।
মেয়র প্রার্থী সাখাওয়াত হোসেন বলেন, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনকে লক্ষ্য করে অনেকেই ফায়দা নিয়ে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা করছে। প্রোপাগান্ডা চালিয়ে আমাদেরকে বিভক্তি করার চেষ্টা করছে। নারায়ণগঞ্জ বিএনপি ঐক্যবদ্ধ, আমাদের মাঝে কোন বিভেদ নেই। নারায়ণগঞ্জের মানুষ পরিবর্তন চায়, সুতরাং আমাদের বিজয় নিশ্চিত।




 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নাসিক নির্বাচন

২৩ ডিসেম্বর, ২০১৬
২২ ডিসেম্বর, ২০১৬

আরও
আরও পড়ুন