Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৬ মাঘ ১৪২৯, ১৭ রজব ১৪৪৪ হিজিরী
শিরোনাম

ডিজিটাল ট্রান্সজেকশনে প্রতারক চক্র ধরলো বিনিময় কর্তৃপক্ষ, গ্রেফতার ৩

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৫ নভেম্বর, ২০২২, ৪:০১ পিএম

সম্প্রতি বাংলাদেশ ব্যাংক উদ্বোধন করেছে বিনিময় অ্যাপ; যা সর্বজনীন ডিজিটাল আর্থিক লেনদেন প্রতিষ্ঠার জন্য যুগান্তকারী একটি প্ল্যাটফর্ম। স্বচ্ছতার পাশাপাশি পেমেন্ট সিস্টেমের মধ্যে নিরবচ্ছিন্ন ও সুরক্ষিত লেনদেন নিশ্চিত করা এবং সেই সাথে লেনদেনের খরচ কমবে। সম্প্রতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে যে, বিনিময় অ্যাপ উদ্বোধনের পর পরই একটি চক্র একে সহজভাবে এটাকে মেনে নিতে পারছেনা। মার্কেটে উপস্থিত থাকা অনেকেই আরো সহজ, নিরাপদ ও কম খরচে বহুমাত্রিক কোন সেবা আসুক তা মেনে নিতে পারছে না।

তাই সম্প্রতি লক্ষ্য করা গেছে যে, বিনিময় অ্যাপ ব্যবহার একটি সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্রকে সক্রিয় হতে। এ প্রতারক চক্র মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসের সেলফিন প্লাটফর্ম ব্যবহার করে ‘বিনিময়’ প্লাটফর্মে প্রবেশ করে তাদের নিজেদের বিকাশের ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্টে অবৈধভাবে টাকা ট্রান্সফারের অনুরোধ পাঠায়।। বিনিময় অ্যাপ কর্তৃপক্ষ তাদের উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করে প্রতারক চক্রের লোকেশন ও যাবতীয় কার্যক্রম সম্পর্কে আইন শৃংঙ্খলা বাহিনীকে জানালে সিআইডি বগুড়া থেকে মোবাইল ফিন্যানসিয়াল সার্ভিস বিকাশের একজন এজেন্টসহ তিন জনকে গ্রেফতার করে। অন্যরা নজরদারীতে রয়েছে। পুলিশ ধারণা করছে বাংলাদেশের সাম্প্রতিক রাজনৈতিক কার্যক্রম পরিচালনা করতে একটি দল অসচ্ছতার মাধ্যমে তাদের নেতা-কর্মীদেরকে বিকাশের মাধ্যমে টাকা লেনদেন করাচ্ছে। আগামী সপ্তাহে বগুড়াতে একটি বড় রাজনৈতিক সমাবেশের আগে আগে সেই বিশেষ রাজনৈতিক দলের কোন সম্পৃক্ততা আছে কিনা এমন প্রতারণায় আইন-শৃংঙ্খলা বাহিনী সেটাও খতিয়ে দেখছে।

বাংলাদেশে প্রায়ই অভিযোগ পাওয়া যায় যে, মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস প্রোভাইডারদের গেটওয়ে ব্যবহার করে ডিজিটাল ট্রান্সজেকশন করছে বেশ কিছু প্রতারক চক্র। প্রযুক্তিগত দুর্বলতার কারণে প্রায়ই সেসব অপরাধীরা ধোরা ছোঁয়ার বাইরে থেকে যাচ্ছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের বিনিময় অ্যাপের অ্যাডভান্স প্রযুক্তি প্রতারকদের অবৈধ ট্রান্সজেকশে রুখে পারে। বগুড়ার ঘটনাও তেমনি একটি উদাহরণ। প্রথমবারের মত বিনিময় কর্তৃপক্ষই আইন-শৃংঙ্খলা বাহিনীকে প্রতারণার বিষয়টি জানিয়েছিল।

অন্যদিকে, বাংলাদেশের মার্কেটে মোবাইল ফিন্যানসিয়াল সার্ভিসগুলোর (এমএফএস) কার্যক্রম লক্ষ করলে দেখা যায় যে, তারা নিজেদের মধ্যে প্রতিযোগিতার নামে একে অন্যকে ঘায়েল করার চেষ্টা প্রকাশ্যেই করে। বিজ্ঞাপন ও বা সোশ্যাল মিডিয়াতে এমনটা হরহামেশাই দেখা যায়।

বিনিময় এমন একটি অ্যাপ যেখানে ব্যাংক, মোবাইল ফিনান্সিয়াল সার্ভিস এবং পেমেন্ট সিস্টেম প্রোভাইডারদের সমস্ত অ্যাকাউন্টকে ইন্টারঅপারেবল করার উদ্যোগ নিয়েছে। এটি গ্রাহক, ব্যবসায়ী, পেমেন্ট সার্ভিস প্রোভাইডারদের (পিএসপি), ই-ওয়ালেট, ব্যাংক, আর্থিক প্রতিষ্ঠান, পেমেন্ট সিস্টেম অপারেটর, সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে লেনদেনের সেতু বন্ধন হিসেবে কাজ করবে। “বিনিময়” সকল ধরনের আর্থিক লেনদেন, যেমন – কর্মচারীদের বেতন প্রদান, রেমিট্যান্স পাঠানো, ট্যাক্স / ভ্যাট প্রদান, ইউটিলিটি বিল পরিশোধ, ই- কমার্স সম্পর্কিত লেনদেন সাশ্রয়ী, সহজ ও স্বচ্ছ করবে এবং সেটা অন্য সার্ভিস প্রোভাইডারদের থেকে তুলনামূলক অনেক কম খরচে করা যাবে।

বিনিময় অ্যাপটি অত্যন্ত সুরক্ষিত, কারণ প্রতিটি লেনদেনের জন্য একটি দ্বি-মাত্রিক প্রমাণীকরণ (টু ফ্যাক্টর অথেন্টিকেশন) প্রযুক্তি সংযুক্ত করা হয়েছে । যদি সেবাগ্রহীতা নিবন্ধন বা লেনদেন সম্পর্কিত কোনো ধরনের সমস্যা সম্মুখীন হন, সেক্ষেত্রে তিনি ব্যবহৃত আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সাথে যোগাযোগ করলে সমাধান পাবেন। তাই সকলকে অনুরোধ করা হচ্ছে, ” বিনিময়” সংক্রান্ত যেকোনো সমস্যার জন্য অতিসত্বর নিজ নিজ আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সাথে যোগাযোগ করার জন্য।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিনিময়

১০ মার্চ, ২০২২

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ