Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৬ মাঘ ১৪২৯, ১৭ রজব ১৪৪৪ হিজিরী
শিরোনাম

চরমোনাই পীর সাহেবরা মুক্তিযোদ্ধাদের ঘাঁটি তৈরীতে পৃষ্ঠপোষকতা করেছেন

মাওলানা সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল মাদানী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৮ নভেম্বর, ২০২২, ৮:৪৭ পিএম

ইসলামী মুক্তিযোদ্ধা পরিষদের উদ্যোগে মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের মতবিনিময় সভায় মুক্তিযোদ্ধারা বলেছেন, আমরা মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়েছিলাম সাম্য, মানবিক মর্যাদা ও ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠার জন্য। কিন্তু স্বাধীনতার ৫১ বছরেও মুক্তিযুদ্ধের সে লক্ষ্য প্রতিষ্ঠিত হয়নি। মুক্তিযোদ্ধারা বলেন, মুক্তিযুদ্ধের মহান লক্ষ্য প্রতিষ্ঠার থেকে দূরে সরে সরকার মুক্তিযুদ্ধের কথা বলে ৭২ এর সংবিধানের দোহাই দিয়ে ৯২% মুসলমানদের দেশ থেকে ইসলাম ও ইসলামী শিক্ষা নিশ্চিহ্ন করার ষড়যন্ত্র অব্যাহত রেখেছে।

মুক্তিযোদ্ধারা আরো বলেন, মুক্তিযুদ্ধের পরে রচিত ৭২ এর সংবিধান রক্ষায় আমরা মুক্তিযুদ্ধ করিনি। মুক্তিযুদ্ধ করেছি সাম্য, মানবিক মর্যাদা ও ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠার জন্য। কিন্তু এখন মুক্তিযুদ্ধের মূল লক্ষ্য বাস্তবায়ন না করে ৭২ এর সংবিধানের দোহাই দিয়ে সংবিধান থেকে আল্লাহর ওপর আস্থা ও বিশ্বাস তুলে দিয়ে এখন আবার রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম তুলে দেবার চক্রান্ত চলছে। শিক্ষা থেকে ইসলামী শিক্ষা তুলে দেবার আয়োজন চুড়ান্ত করেছে। এগুলো মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেয়া মুক্তিযোদ্ধারা মেনে নিবে না। ইসলাম বিরোধী ষড়যন্ত্র নস্যাৎ করা এবং ইসলামী শিক্ষা বাধ্যতামূলক করার জন্য মুক্তিযোদ্ধারা পীর সাহেব চরমোনাই'র নেতৃত্বে রাজপথে নামতে বাধ্য হবে। ইসলামী মুক্তিযোদ্ধা পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির আহ্বায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল ওয়াদুদ এর সভাপতিত্বে ইসলামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম পরিষদ সভাপতি শহিদুল ইসলাম কবির এর পরিচালনায় আজ সোমবার চরমোনাই মাদরাসা মিলনায়তনে মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেপশর প্রেসিডিয়াম সদস্য প্রিন্সিপাল মাওলানা সৈয়দ মুহাম্মাদ মোহাম্মদ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল মাদানী।

বক্তব্য রাখেন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক ও ইসলামী মুক্তিযোদ্ধা পরিষদের সদস্য সচিব বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাশেম, বীর মুক্তিযোদ্ধা খালেকুজ্জামান, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল হোসেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা এমদাদ হোসেন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় প্রচার ও দাওয়াহ বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়‚ম, মুক্তিযোদ্ধার সন্তান মুফতী মোস্তাফিজুর রহমান, মুহাম্মাদ রেজাউল করীম, মো. শাহাদুজ্জামান, মো. ইব্রাহিম খলিল ও ডা. আতাউর রহমান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মাওলানা সৈয়দ মুহাম্মাদ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল মাদানী বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধ আমাদের অর্জন। আমার দাদা চরমোনাই'র প্রতিষ্ঠাতা পীর সাহেব সৈয়দ এছহাক (রহ.) ও আমার বাবা সৈয়দ মুহাম্মাদ ফজলুল করীম (রহ.) চরমোনাই মাদরাসায় মুক্তিযোদ্ধাদের ঘাঁটি তৈরীতে পৃষ্ঠপোষকতা করেছেন। সংখ্যালঘু হিন্দু সমপ্রদায়ের নিরাপত্তার জন্য আশ্রয় দিয়েছেন। বিপদে পড়ে তাদেরকে ধর্মান্তরিত হবার বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছেন। এই মুক্তিযুদ্ধকে পুঁজি করে কেউ ইসলাম ও ইসলামী শিক্ষার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করলে এদেশের মানুষ তা মেনে নিবে না। তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের মহান লক্ষ্য সাম্য, মানবিক মর্যাদা ও ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠার জন্য মুক্তিযোদ্ধাদের পাশে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ অতীতের ন্যায় আগামী দিনে ও থাকবে ইনশাআল্লাহ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ