Inqilab Logo

সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৩ মাঘ ১৪২৯, ১৪ রজব ১৪৪৪ হিজিরী
শিরোনাম

মাদরাসা সুপারের হাতে লাঞ্ছিত শিক্ষক

রাণীশংকৈল (ঠাকুরগাঁও) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৯ নভেম্বর, ২০২২, ১২:০১ এএম

তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মাদরাসা সুপার কর্তৃক শিক্ষকে পেটানোর অভিযোগ উঠেছে। ঘটনা ঘটেছে ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল গোগর আদর্শ দাখিল মাদরাসায়। গতকাল মাদরাসার বার্ষিক পরীক্ষার রুটিন নিয়ে কথাকাটাকাটি হলে একপর্যায় মাদরাসার সুপার আনোয়ারুল ইসলাম একই মাদরাসার সহকারি শিক্ষক ফারুককে বেধড়ক মারপিট করেছে। এমন অভিযোগ উঠেছে সুপারের বিরুদ্ধে। স্থানীয় ও মাদরাসার অন্যান্য শিক্ষক জানান, পরীক্ষা চলাকালিন সময় সহকারী শিক্ষক ফারুকের সঙ্গে অমানবিক আচরণ করেছে সুপার। মাদরাসার নবম শ্রেণীর এক শিক্ষার্থী বলেন, পরীক্ষা চলাকালিন সময় সুপার ফারুক নামের এক শিক্ষককে ঘাড়ধরে ধাক্কা মারলে মাটিতে পড়ে যায়। তারপরেও তিনি ক্ষান্ত হননি। তার শরীরে থাকা কোট ধরে আছাড় মারার উপক্রম হয়। এসময় মাদরাসার স্টাফগণ উভয়কে নিয়ন্ত্রণে আনেন। মাদরাসার ম্যানেজিং কমিটি সভাপতি সফিউর রহমান জানান, অনাকাঙ্খিত এ ঘটনার জন্য লজ্জিত। এধরনের ঘটনা তিনি আশা করেননি। এ প্রসঙ্গে সুপার বলেন, তিনি সহকারী শিক্ষককে মারধর করেননি। তবে তিনি তার হাত ধরে অফিসে নিয়ে যাচ্ছিলেন। এসময় তিনি মাদরাসার বারান্দায় ওঠার সময় পড়ে গিয়ে ব্যাথা পান। শিক্ষককে লাঞ্ছিত করার অপরাধে স্থানীয়রা সুপারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ তুলে ধরেন। এনিয়ে মাদরাসা চত্বরে স্থানীয়রা এক সালিশি বৈঠকের আয়োজন করে। সালিশি বৈঠকে সুপার তার নিজের অপরাধের কথা স্বীকার করে নিজ হাতে একটি অঙ্গিকার নামা লিখে দিয়েছেন স্থানীয়দের কাছে। এমন তথ্য জানালেন স্থানীয় সাদেকুল ইসলামসহ অন্যান্যরা। খবর পেয়ে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার তৈয়ব আলী ঘটনা স্থলে উপস্থিত হয়। এসময় তিনি সাংবাদিকদের বলেন, পরীক্ষার ডিউটিকে কেন্দ্র করে এ ঘটনা ঘটেছে। এনিয়ে ৩ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এ নিয়ে আগামী বুধবার মাদরাসা মাঠে বসা হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন