Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৬ মাঘ ১৪২৯, ১৭ রজব ১৪৪৪ হিজিরী
শিরোনাম

সিঁড়িতে বুর্জ খলিফার চূড়ায় উঠলেন দুবাইয়ের ক্রাউন প্রিন্স

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২ ডিসেম্বর, ২০২২, ১০:০৪ পিএম

ম্যারাথনে অংশ নেওয়া, জিমে সময় কাটানোসহ বিভিন্ন শারীরিক কসরত দেখাতে ভালোবাসেন দুবাইয়ের ক্রাউন প্রিন্স শেখ হামদান। এবার এক ভার্টিক্যাল (ঊর্ধ্বাধ) ম্যারাথনে অংশ নিয়ে সিঁড়ি বেয়ে বিশ্বের সর্বোচ্চ ভবন বুর্জ খলিফার চূড়ায় (১৬০ তলা) ওঠেছেন তিনি। -গালফ নিউজ

আরব আমিরাতভিত্তিক সংবাদমাধ্যম গালফ নিউজ শুক্রবার (২ ডিসেম্বর) এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে এ তথ্য। সিঁড়ি বেয়ে বুর্জ খলিফার চূড়ায় ওঠার একটি ভিডিও ইনস্টাগ্রামে প্রকাশ করেছেন শেখ হামদান নিজেই। ‘বুর্জ খলিফা চ্যালেঞ্জ’ এই শিরোনামে প্রকাশিত ভিডিওর প্রথম অংশে দেখা যায় দলের অন্য সদস্যদের নিয়ে প্রস্তুতি নিচ্ছেন তিনি। বাকিদের সঙ্গে উচ্চতায় ওঠার বিশেষ পোশাক পরছেন এবং নিজের টাইমার ঠিক করে নিচ্ছেন।

এরপরের অংশে দেখা যায় দলের অন্যদের নিয়ে ১৬০ তলার অবজারভেশন ডেকের ওপর দাঁড়িয়ে আছেন তিনি। প্রমাণ হিসেবে ১৬০ তলা লেখা সংবলিত একটি সাইনের সামনে সেলফি তোলেন। চূড়ায় ওঠতে কত সময় লাগল সেটিও টাইমারে রেকর্ড করেন দুবাইয়ের ক্রাউন প্রিন্স। সেখানে দেখা যায়, পৃথিবীর সর্বোচ্চ ভবনে ওঠতে তার সময় লেগেছে ৩৭ মিনিট ৩৮ সেকেন্ড। এই সময়ের মধ্যে তার শরীর থেকে ঝরে ৭১০ ক্যালরি। বুর্জ খলিফার সর্বোচ্চ তলায় চাইলেও সবাই ওঠতে পারেন না। কারণ এটি জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত নয়। ভবনটির নতুন অবজারভেশন ডেক তৈরি করা হয়েছে ১৪৮ তলায়। এর আগে এটি ছিল ১২৪ তলায়। এ পর্যন্তই সাধারণ মানুষের ওঠার সুযোগ আছে।

এদিকে দুবাইয়ের ক্রাউন প্রিন্স দেশ-বিদেশে ঘুরে বেড়াতেও ভালোবাসেন। প্রায়ই স্কাই ডাইভিং, প্যারামোটর গ্লাইডিং ও পাহাড়ে চড়ার মতো কাজগুলো করে থাকেন তিনি। এরআগে ২০২০ সালে বুর্জ আল খলিফার একদম উঁচুতে ওঠে একটি ভিডিও করেছিলেন প্রিন্স শেখ হামদান। সেবার অবশ্য হেঁটে বা দৌড়ে ওঠেননি তিনি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ