Inqilab Logo

সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৩ মাঘ ১৪২৯, ১৪ রজব ১৪৪৪ হিজিরী
শিরোনাম

জিতেও বিশ্বকাপ থেকে বিদায় সুয়ারেজ-কাভানিদের

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২ ডিসেম্বর, ২০২২, ১১:২৫ পিএম | আপডেট : ১:২৪ এএম, ৩ ডিসেম্বর, ২০২২
শেষের বাজি বাজার সাথে সাথে বেঞ্চে বসে থাকা সুয়ারেজ জার্সিতে মুখ ডাকলেন। অশ্রুসিক্ত নয়ন ক্যামেরা থেকে লুকানোই ছিল উদ্দেশ্য।তবে এই উরুগুয়েন তারকা বেশিক্ষণ লুকাতে পারেননি আবেগ। একটু পর প্রকাশ্যেই কেঁদেছেন অঝোর নয়নে।
 
২-০ গোলে ঘানাকে হারিয়েই শেষ ষোলতে চলে যাচ্ছিল উরুগুয়ে। তবে শেষ মুহূর্তে গোল করে কোরয়া পর্তুগালকে হারিয়ে দিলে পাল্টে যায় পয়েন্ট টেবিলের সমীকরণ। তখন পর্যন্ত চার নম্বরে থাকা কোরিয়া উঠে আসে টেবিলে দ্বিতীয় স্থানে। উরুগুয়ে নেমে যায় তৃতীয়তে। নকআউটের টিকিট পাওয়ার জন্য তখন সুয়ারেজদের চাই আরো অন্তত একটি গোল।শেষ দিকে সে গোলের জন্য প্রাণপন চেষ্ঠা করে গেল উরুগুয়ে। তবে সফল হয়নি।ফলে সুয়ারেজ-কাভানিদের কাতার বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নিশ্চিত হয়ে যায়।
 
আল ওয়াকরার আল জানোব স্টেডিয়ামে শুক্রবার ‘এইচ’ গ্রুপের ম্যাচের দুইবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন উরুগুয়ের শুরুটা হয়েছিল পরিকল্পনা মত।ঘানার শুরুর আক্রমণ সামলে   নিজেদের গুছিয়ে নিয়ে পাল্টা আক্রমণে যায় দিয়েগো অলোনসোর দল।মূলত ২১ মিনিটে ঘানার পেনাল্টি ঠেকিয়ে দেওয়ার পর থেকে ম্যাচে উরুগুয়ের আধিপত্য শুরু হয়। স্পটকিক থেকে ঘানার আন্দ্রে আইয়ুর শট ঠেকিয়ে দেন উরুগুয়েন গোলরক্ষক।এর মিনিট কয়েক পরে ঘানার রক্ষণভাগে ঝড় বইয়ে দেয় জর্জিয়ান দি আরাস্তাকায়েতা।২৬ তম মিনিটে তার গোলে এগিয়ে যায় লাটিন আমেরিকার দেশটি।বা প্রান্ত থেকে সুয়ারেজের শট প্রতিহত করে দিয়েছিলেন ঘানা গোলকিপার লরেন্স আটি-জিগি। তবে হাতে জমাতে পারেন নি।তার হাতে লেগে শূন্যে ওঠা বল জর্জিয়ান দি আরাস্তাকায়েতা হেডে বল জালে ঠেলে দেন।
 
ছয় মিনিট পর ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ফ্লামেঙ্গোর এই মিডফিল্ডার।এই গোলেও অবদান সুয়ারেজের। তিনিই ডি-বক্স থেকে উঁচু করে বাড়ান বল।বক্সে আনমার্কড অবস্থায় থাকা আররাসকায়েতা দুর্দান্ত ভলিতে দূরের পোস্ট দিয়ে জাল খুঁজে নেন ।
 
২-০ গোলের লিড নিয়ে বিরতিতে যায় দিয়েগো অলোনসোর শিষ্যরা।ওইদিকে পর্তুগাল-কোরিয়া ম্যাচ তখন ১-১ সমতায়। শেষ পর্যন্ত স্কোরলাইন দুই ম্যাচের এরকম থাকলে সুয়ারেজরা উঠে যেত শেষ ষলোতে। বিরতির পর তাই বেশ কয়েকটি গোলের সুযোগ হারালেও নির্ভার ছিল উরুগুয়ে। 
 
তবে বিপত্তির বাধে কোরিয়া ৯১  মিনিটে পর্তুগালকে আরো একটি গোল দিয়ে বসলে। এই খবর মাঠে আসার পর উরুগুয়ে শিবিরে ভর করে রাজ্যের দুশ্চিন্তা।ততক্ষণে মাঠ ছাড়া সুয়ারেজ সাইডবেঞ্চ থেকে আকার ইঙ্গিতে সতীর্থদের জানাচ্ছিলেন আরও একটা গোল লাগবেই।শেষদিকে তাই পুরোপুরি আক্রমণে যায় উরুগুয়ে।তবে ঘানার গোলরক্ষকের বীরত্বে বাকি কয়েক মিনিটে দুর্দান্ত কিছু সুযোগ তৈরি করেও গোলের দেখা পায়নি লাতিন আমেরিকার দেশটি।
 
উরুগুয়েন ফুটবলে সুয়ারেজ এক মহাতারকার নাম। দলটিকে ২০১০ সালে সেমিফাইনালে নেওয়ার পেছনে এই তারকা স্ট্রাইকারের ছিল উল্লেখযোগ্য অবদান। তিনি জানতেন কাতার বিশ্বকাপ তার ক্যারিয়ারের শেষ বিশ্বকাপ হতে চলছে।তাই দলের হয়ে বড় কিছু অর্জনের স্বপ্ন ছিল সুয়ারেজের। ম্যাচ শেষে ডাগআউটে অঝোর নয়নের কান্না বলে দিচ্ছিল স্বপ্ন শুরুতেই ভেঙে চুরমার হয়ে যাওয়ায় কতটা কষ্ট পেয়েছেন সুয়ারেজ।


 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কাতারবিশ্বকাপ২০২২

২৩ ডিসেম্বর, ২০২২

আরও
আরও পড়ুন