Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৬ মাঘ ১৪২৯, ১৭ রজব ১৪৪৪ হিজিরী

চীনের গোপন এজেন্ডার সন্দেহে সমঝোতা স্মারক সইয়ে অস্বীকৃতি শ্রীলঙ্কার

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩ ডিসেম্বর, ২০২২, ৫:৫৮ পিএম

চীনের স্টেট এগ্রিকালচারাল ইউনিভার্সিটির সঙ্গে এক সমঝোতা স্মারক সই করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে শ্রীলঙ্কার জাফনা ইউনিভার্সিটি। ওই স্মারকে শ্রীলঙ্কার উর্বর ভূমি দখলে বেইজিংয়ের গোপন এজেন্ডা রয়েছে বলে অভিযোগ আনা হয়েছে। আর এর ফলে আরও জটিল হয়ে পড়েছে চীন-শ্রীলঙ্কার সম্পর্ক।

সিলন টুডের জানিয়েছে, গত ২৫ নভেম্বর জাফনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সিভাকলান্দু শিভাকোলুন্ডু শ্রীসাতকুনারাজাহ চীনের সঙ্গে সমঝোতা স্মারক সই করতে অস্বীকৃতি জানান। তার অভিযোগ ছিল- শ্রীলঙ্কার উত্তর ও পূর্ব উন্নয়ন প্রকল্পের অজুহাতে দেশটির উর্বর জমিগুলো দখল করার জন্য চীনের লুকানো এজেন্ডা রয়েছে।

আর শ্রীলঙ্কা ছাত্র ইউনিয়নও জনগণের ইচ্ছার বিরুদ্ধে চীনের সঙ্গে সমঝোতা স্মারক সই না করার জন্য সরকারের কাছে আবেদন করেছে। ২৮ নভেম্বর ছাত্র ইউনিয়ন এক বিবৃতিতে দুঃখ প্রকাশ করে জানায়, শ্রীলঙ্কা সরকার চীনের সঙ্গে একটি সমঝোতা স্মারক সইয়ে গোপন সব বন্দোবস্ত করেছিল। তবে জাফনা ইউনিভার্সিটির উপাচার্য ওই সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসায় তার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছে ছাত্র ইউনিয়ন।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “চীন প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে শসার ফার্ম তৈরির অজুহাতে সমুদ্র অঞ্চলের বিশাল অংশ দখল করেছে। সেখানকার জেলেদের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করেছে। শ্রীলঙ্কার উত্তর ও পূর্বের উর্বর কৃষিজমি দখল করতে চাইছে চীন। সার দেওয়ার নামে ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়াযুক্ত জিনিস সরবরাহ করেছে এবং শ্রীলঙ্কাকে লাখ লাখ টাকা দিতে বাধ্য করেছে বলে অভিযোগ রয়েছে। আমাদের উর্বর কৃষি জমি দখল করার এবং খাদ্য সংকট সমাধানের নামে আমাদের দাস বানানোর ক্ষেত্রে চীনের উৎকৃষ্ট উদাহরণ এটি।”

ছাত্র ইউনিয়ন বিবৃতিতে আরও লিখেছে, চীনের অস্বচ্ছ ও অ-টেকসই ঋণের কারণে শ্রীলঙ্কার বর্তমান এই হাল। এমনকি আইএমএফের ঋণ পুনর্গঠনের আলোচনায় ভারত-জাপান এগিয়ে আসলেও চীন নিরব। বেইজিং ঋণ পুনর্গঠনে না গিয়ে গোপন এজেন্ডা নিয়ে শ্রীলঙ্কাকে আরও অর্থায়নের কথা বলছে।

যদিও সংগঠনটির সন্দেহ, শ্রীলঙ্কা সরকার ইতোমধ্যেই বেইজিংয়ের কাছে উর্বর কৃষি জমি এবং উত্তর ও পূর্বের সমুদ্র এলাকা বিক্রির জন্য গোপন চুক্তি করেছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ