Inqilab Logo

শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২৩, ১৩ মাঘ ১৪২৯, ০৪ রজব ১৪৪৪ হিজিরী

নিউইয়র্ককে ‘ইঁদুরমুক্ত’ করতে যুদ্ধ ঘোষণা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩ ডিসেম্বর, ২০২২, ৭:২৫ পিএম

নগর প্রশাসন বহু পদক্ষেপ নেওয়ার পরও নির্মূল করা যাচ্ছে না ইঁদুর। অতীষ্ঠ নগরবাসীকে এই যন্ত্রণা থেকে মুক্তি দিতে ইঁদুর নির্মূলে নতুন একটি নতুন পদ সৃষ্টি করে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে নিউইয়র্ক সিটি নগর কর্তৃপক্ষ।

নগর কর্তৃপক্ষের ঘোষণা অনুযায়ী, নতুন এই পদটির নাম ‘ডিরেক্টর অব রডেন্ট মিটিগেশন’ এবং এই পদে যিনি নিয়োগ পাবেন, তার বাৎসরিক বেতন হবে ১ লাখ ২০ হাজার থেকে ১ লাখ ৭০ হাজার ডলারের মধ্যে।

পরিবর্তে শুধু একটি দায়িত্ব পালন করতে হবে তাকে— যে কোনো উপায়ে নিউইয়র্ক সিটির বাসিন্দাদের ইঁদুরের উৎপাত থেকে রেহাই দেওয়া।
গত কয়েক বছরে নগর থেকে ইঁদুর নির্মূলে লাখ লাখ ডলার ব্যয় করেছে নিউইয়র্ক সিটি নগর কর্তৃপক্ষ। সাবেক মেয়র বিল ডি ব্লাসিওর আমলে আবর্জনা ও বর্জ্য ব্যবস্থাপনা ঢেলে সাজানো, ইঁদুরের উৎপাত বেশি— এমন এলাকাগুলোর বাড়িঘর নিয়মিত পরিদর্শন করা হয়েছে, এমনকি বংশবিস্তার রোধে ইঁদুরের গর্তে ড্রাই আইসও প্রয়োগ করা হয়েছে, কিন্তু কোনো পদক্ষেপই ফলপ্রসূ হয়নি।


বর্তমান মেয়র এরিক অ্যাডামস অবশ্য এক্ষেত্রে খানিকটা হলেও সফল। নিউইয়র্ক সিটির মেয়র হওয়ার আগে তিনি নিউইয়র্ক রাজ্যের ব্রুকলিন শহরের পৌর মেয়র ছিলেন। ব্রুকলিনে ইঁদুরের উৎপাত নিয়ন্ত্রণে তার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল।


কিন্তু ব্রুকলিনে যেসব পন্থা তিনি অবলম্বন করেছিলেন, নিউইয়র্ক সিটিতে তা আদৌ কোনো কাজে আসছে না। তাই বাধ্য হয়েই নতুন পদের বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে নগর প্রশাসন।


বিজ্ঞপ্তিতে এরিক অ্যাডামস বলেন, ‘ইঁদুরকে আমি যতখানি ঘৃণা করি, তারচেয়ে অধিক ঘৃণা আমি আর কোনো কিছুকে করি না। যদি আপনার মধ্যে কর্মশক্তি, দৃঢ় সংকল্প এবং নিজের দায়িত্ব সৎভাবে পালন করার মানসিকতা থাকে— সেক্ষেত্রে স্বপ্নের চাকরি আপনার জন্য অপেক্ষা করছে।’
নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টেও এই বার্তা শেয়ার করেছেন তিনি।


যিনি এই পদে চাকরি করবেন, তাকে ইঁদুরের ‘জার’ বা ‘সম্রাট’ বলে সম্বোধন করা হবে উল্লেখ করে বিবৃতিতে আরও বলা হয়, ‘শহরের ইঁদুরগুলি অত্যন্ত চালাক এবং মারাত্মক পেটুক। নিজেদের রক্ষা করতেও অত্যন্ত দক্ষ।’


নিউ ইয়র্ক সিটি প্রশাসনের হিসেব অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রের এই শহরে এই শহরে প্রায় ১ কোটি আশি লাখেরও বেশি ইঁদুর আছে।


এরিক অ্যাডামস জানিয়েছেন, ‘ডিরেক্টর অব রডেন্ট মিটিগেশন’ পদে যিনি নিয়োগ পাবেন, তার ইঁদুরের প্রতি কোনও দয়ামায়া থাকলে চলবে না। কারণ মূষিককুলকে নির্মূল করতে খুনে মানসিকতাই চাই।
এর আগে অক্টোবর মাসেও অ্যাডামস সাংবাদিক সম্মেলন করে জানিয়েছিলেন, নিউইয়র্ক সিটিকে অপরাধমুক্ত করা যত জরুরি, ইঁদুরমুক্ত করাও ঠিক ততটাই জরুরি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ