Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৬ মাঘ ১৪২৯, ১৭ রজব ১৪৪৪ হিজিরী

কুমিল্লার দেবিদ্বারে ছাত্রলীগের কমিটিতে কিশোর গ্যাং সদস্য!

কুমিল্লা থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩ ডিসেম্বর, ২০২২, ৯:৫৪ পিএম

কুমিল্লার দেবিদ্বার পৌর ছাত্রলীগের আহবায়ক কমিটিতে সদস্য হিসেবে স্থান পেয়েছেন কিশোর গ্যাং সদস্য ফরহাদ হোসেন হিমেল (২২), যিনি সন্ত্রাসী হামলার মামলায় গ্রেফতার হয়ে জেল খেটেছেন। কুমিল্লা উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো: মহিউদ্দিন ও সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম রুবেল স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে শুক্রবার দুই উপজেলার ৪টি ইউনিটের আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়।

দেবিদ্বার পৌর ছাত্রলীগের আহবায়ক কমিটিতে সদস্য হিসেবে স্থান পাওয়া ফরহাদ হোসেন হিমেল কিশোর গ্যাং বদর বাহিনীর সক্রিয় সদস্য। চলতি বছরের ১০ এপ্রিল ভোরে পৌর এলাকার বানিয়াপাড়া এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে থানা পুলিশ। হিমেল বানিয়াপাড়া এলাকার মীর হোসেনের ছেলে । চলতি বছরের ১৬ জানুয়ারি ছোট আলমপুর এলাকার লিমন নামের এক কিশোরকে রড, রাম দা ও হাতুড়ি দিয়ে আঘাত ও ছুরি দিয়ে শরীরের বিভিন্ন অংশে রক্তাক্ত জখম করে। এ সন্ত্রাসী হামলার মামলায় তাকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়। পরে জামিনে সে বের হয়ে আসে। সক্রিয় কিশোর গ্যাং সদস্যকে ছাত্রলীগের কমিটিতে স্থান দেওয়া শুরু হয়েছে নানা সমালোচনা।

এদিকে দেবিদ্বার পৌর কমিটিতে আহ্বায়ক হয়েছেন প্রবাস ফেরত নুর মোহাম্মদ রনি। তিনি ২০১৭ সালে সৌদি আরবে গেছেন। গত ৩ মাস আগে তিনি দেশে ফিরে আসেন। অনেকটা সবাইকে অবাক করে দিয়ে তিনি হয়ে গেলেন পৌর ছাত্রলীগের আহ্বায়ক।

এদিকে আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণার পর রাতেই পদত্যাগ করেছেন চান্দিনা উপজেলা ছাত্রলীগের ৩ নং যুগ্ম আহ্বায়ক রাজীব দত্ত, যুগ্ম আহ্বায়ক তোফায়েল আহমেদ তপু, পৌর- ছাত্রলীগের আহ্বায়ক কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুল্লাহ আল রিফাত এবং চান্দিনা উপজেলা আহ্বায়ক কমিটির সদস্য জাহিদুল ইসলাম।

এ বিষয়ে কুমিল্লা উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো: মহিউদ্দিন ও সাইফুল ইসলাম রুবেল জানান, যারা ত্যাগি, তাদেরকেই মূল্যায়ণ করা হয়েছে। এখানে আর্থিক লেনদেনের কোন ঘটনা ঘটেনি। আর কমিটিতে স্থান পাওয়া কারোর বিরুদ্ধে কোন নিদির্ষ্ট অভিযোগ থাকলে তদন্ত করে তাদের বাদ দেওয়া হবে। কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যের বিষয়টি আমরা তদন্ত করতেছি। প্রমাণ পেলে ব্যবস্থা নিবো।

উল্লেখ্য, দেবিদ্বার উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক করা হয়েছে আসাদুর রহমান রনিকে, পৌর ছাত্রলীগের আহ্বায়ক করা হয়েছে নুর মোহাম্মদ রনিকে। চান্দিনা উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক করা হয়েছে মাহফুজুর রহমান টিপুকে এবং পৌর ছাত্রলীগের আহ্বায়ক করা হয়েছে কাজী ইমদাদুল ইসলাম জয়কে। আহ্বায়ক কমিটিগুলো ৩ মাসের জন্য অনুমোদন করা হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ