Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩ আশ্বিন ১৪২৬, ১৮ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

কোল্যাটারাল বিউটি

| প্রকাশের সময় : ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ডেভিড ফ্র্যাঙ্কেল পরিচালিত ড্রামা ফিল্ম ‘কোল্যাটারাল বিউটি’। ‘ওয়ান চ্যান্স’ (২০১৪), ‘হোপ স্প্রিং’ (২০১২), ‘দ্য বিগ ইয়ার’ (২০১১), ‘মারলি অ্যান্ড মি’ (২০০৮) এবং ‘দ্য ডেভিল অয়্যারস প্রাডা’ (২০০৬) ফ্র্যাঙ্কেল পরিচালিত চলচ্চিত্র।
হাওয়ার্ড ইনলেট (উইল স্মিথ) নিউইয়র্ক সিটির এক প্রতিভাবান আর সৃজনশীল অ্যাডভার্টাইজিং একজিকিউটিভ। তার তিন পার্টনার হুইট (এডওয়ার্ড নর্টন), ক্লেয়ার (কেইট উইন্সলেট) আর সায়মন (মাইকেল পেনিয়া); এই তিনজন তার ঘনিষ্ঠতম বন্ধুও। তার শিশুকন্যার মৃত্যুর পর সে একেবারে বদলে যায়। এর প্রভাব পড়ে তার বন্ধু আর পেশার ওপর। বন্ধুরা পুরনো হাওয়ার্ডের সঙ্গে আর তাকে মেলাতেই পারে না। সে তার পরিচিত দুনিয়া থেকে বিদায় নেয়। যে প্রতিষ্ঠানটি সে অনায়াসে চালাতো পার্টনার আর বন্ধুদের সেটি চালেতে ভীষণ বেগ পেতে হয়। সে তার জীবনধারা থেকে সরে এসে শোক ভোলার জন্য সময়, ভালবাসা আর মৃত্যুর কাছে আলাদা করে চিঠি লিখতে শুরু করে। বন্ধুরা উদ্বিগ্ন হয়ে হাওয়ার্ডকে অনুসরণ করার জন্য একজন প্রাইভেট গোয়েন্দা নিয়োগ করে। অন্যদিকে সময় (জেকব ল্যাটিমোর), ভালবাসা (কিরা নাইটলি) আর মৃত্যু (হেলেন মিরেন) মানুষের রূপ নিয়ে তার সামনে আসা শুরু করে। পাশাপাশি হাওয়ার্ডের সহকর্মীরা জানতেই পারেনি তারা তার হয়ে যে মানসিক আর শারীরিক চাপ নিয়ে চলেছে তাই হাওয়ার্ডকে বাস্তবতায় ফিরিয়ে আনতে সাহায্য করবে। হাওয়ার্ড একসময় অবশ্য উপলব্ধি করতে সক্ষম হয় মানুষের সবচেয়ে বড় শোকও একসময় তাকে জীবনের আসল সৌন্দর্য আর অর্থ বুঝতে সাহায্য করতে পারে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিউটি

১৬ জানুয়ারি, ২০১৭
১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ