Inqilab Logo

সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০২ কার্তিক ১৪২৮, ১০ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

ট্রাম্প আদৌ খ্রিস্টান কিনা প্রশ্ন তুলেছেন পোপ ফ্রান্সিস

মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল তোলা সংক্রান্ত ট্রাম্পের আহ্বানের নিন্দা

প্রকাশের সময় : ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী ডোনাল্ড ট্রাম্পের খ্রিস্টান ধর্মবিশ্বাস নিয়ে প্রশ্ন তুললেন পোপ ফ্রান্সিস। মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল তোলা সংক্রান্ত ট্রাম্পের আহ্বানের সমালোচনা করে পোপ বলেন, যে লোক শুধু প্রাচীর তৈরির কথা ভাবেন এবং সেতুবন্ধন তৈরির কথা ভাবেন না তিনি খ্রিস্টান নয়। এটা ঈশ্বরের বাণী নয়। প্রায় ১ কোটি ১০ লাখ অবৈধ অভিবাসীকে যুক্তরাষ্ট্র থেকে বহিষ্কার করা সমর্থন করেন বিতর্কিত ধনকুবের ব্যবসায়ী ট্রাম্প। গসপেলে ওই শিক্ষা দেয়া হয়নি। ছয় দিনের মেক্সিকো সফরের শেষ দিন গত বৃহস্পতিবার পোপ এই মন্তব্য করেন। অন্যদিকে ট্রাম্প বলছেন, তথাকথিত ইসলামিক স্টেট জঙ্গিদের চূড়ান্ত লক্ষ্য হলো ভ্যাটিকান। ভ্যাটিকান যদি আক্রান্ত হতো, পোপ তাহলে প্রার্থনায় বসতেন যেন ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট হয়, কেননা সে থাকলে তেমন কিছু ঘটার ভয় নেই।  খবরে বলা হয়, নিউইয়র্কের ব্যবসায়ী ট্রাম্প বৈধ কাগজপত্র ছাড়া যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত ১ কোটি ১০ লাখ মেক্সিকানকে বের করে দেয়ার পক্ষে জোরালো মত প্রকাশ করে আসছেন। সীমান্তে দেয়াল তোলার পক্ষে তার যুক্তি, মেক্সিকো ধর্ষক আর অপরাধীদের যুক্তরাষ্ট্রে পাঠাচ্ছে। অবশ্য গত কয়েক মাস ধরে নানা মন্তব্য করে বিতর্কিত এই রিপাবলিকান প্রার্থী পোপের বক্তব্যের জবাবে নিজেকে একজন গর্বিত খ্রিস্টান বলে দাবি করেছেন। পোপের মন্তব্যকে লজ্জাজনক আখ্যায়িত করে তিনি বলেছেন, কোনো ব্যক্তির ধর্মবিশ্বাস নিয়ে সন্দেহ প্রকাশের অধিকার একজন ধর্মীয় নেতা রাখেন না।  
সাউথ ক্যারোলিনায় এক সমাবেশে ট্রাম্প অভিযোগ করে বলেন, পোপ আমার সম্পর্কে নেতিবাচক কথা বলেছেন, কারণ মেক্সিকো সরকার তাকে বুঝিয়েছে যে ট্রাম্প লোকটা ভালো নয়। অবশ্য রিপাবলিকান পার্টির মনোনয়ন দৌড়ে এগিয়ে থাকা ট্রাম্পকে মার্কিনীদের ভোট দেয়া উচিত কি না- সে প্রশ্নের উত্তর দেননি পোপ ফ্রান্সিস। পোপ বলেন, আমি কেবল বলব, কেউ যদি ওই ভাষায় কথা বলতে থাকে, তাহলে সে খ্রিস্টান হতে পারে না। উল্লেখ্য, যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে ক্যাথলিক ভোট খুবই গুরুত্বপূর্ণ, কেননা অনেকেই রিপাবলিকানদের ভোট দেয় শুধু এই কারণে যে, তারা গর্ভনাশ ও সমলিঙ্গ বিয়ের বিরোধী। রিপাবলিকান পার্টির মনোনয়নপ্রত্যাশীদের মধ্যে কয়েকজন ক্যাথলিক থাকলেও ট্রাম্পের ধর্মবিশ্বাসের বিষয়টি যথেষ্ট জটিল। ডাচ রিফর্মড চার্চের এক সময়ের অনুসারী ট্রাম্প ২০১১ সালে এক সাক্ষাৎকারে নিজেকে বর্ণনা করেন প্রেসবাইটেরিয়ান প্রোটেস্ট্যান্ট হিসেবে। আর তৃতীয় স্ত্রীর সঙ্গে তার বিয়ে হয়েছিল এক এপিসকোপালিয়ান চার্চে। মনোনয়ন লড়াইয়ের প্রচারের মধ্যে খ্রিস্ট ধর্মকে রক্ষা করার অঙ্গীকারের কথা বলেছেন ট্রাম্প। মুসলমানদের যুক্তরাষ্ট্রে নিষিদ্ধ করার কথা বলে সমালোচিতও হয়েছেন। জিকা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে জন্মনিরোধক ব্যবহার খ্রিস্ট ধর্ম সমর্থন করে কি না- এই প্রশ্নও মেক্সিকোতে পোপকে করেছেন সাংবাদিকরা। উত্তরে পোপ বলেন, কখনো কখনো দুটি দুষ্টের মধ্যে যেটি অপেক্ষাকৃত কম খারাপ, সেটি বিকল্প হিসেবে ভাবা যেতে পারে। গর্ভনাশ একটি অপরাধ এবং সত্যিকারের খারাপ কাজ হলেও গর্ভনিরোধ তা নয়। বিবিসি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ট্রাম্প আদৌ খ্রিস্টান কিনা প্রশ্ন তুলেছেন পোপ ফ্রান্সিস
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ