Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৪ পৌষ ১৪২৫, ১০ রবিউস সানী ১৪৪০ হিজরী
শিরোনাম

জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা সভায় বক্তারা দেশের মানুষ আজ কঠিন সময়ে আছে

| প্রকাশের সময় : ৩ জানুয়ারি, ২০১৭, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : সরকার পতনে শুধু ২০ দল নয়, গণতন্ত্রকামী সব দলকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন জাতীয় পার্টি (জাফর) এর ৩১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা সভার বক্তার।
তারা বলেন, সরকারের দমন পীড়ন ও নির্যাতনের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে রুখে দাঁড়াতে হবে। যেখানে বর্তমান সময়ে একজন সংসদ সদস্য ঘরের ভিতরে নিরাপদ নয় সেখানে সাধারণ মানুষের কি অবস্থা? আজ দেশের মানুষ কঠিন সময়ের মধ্যে আছে। এমন সময় এদেশে আর কখনও আসেনি।
গতকাল সোমবার বিকেলে রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে জাতীয় পার্টির ৩১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় বক্তারা এ কথা বলেন।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, এ সরকারের হাত থেকে রক্ষা পেতে ঐক্যের বিকল্প নেই। আসুন শুধু ২০ দল নয়, গণতন্ত্রকামী সব রাজনৈতিক দলকে ঐক্যবদ্ধ করে এই সরকারের বিরুদ্ধে দুর্বার প্রতিরোধ গড়ে তুলি। আজ সকালেও আশুলিয়ায় একজন স্কুলছাত্রীর মরদেহ পাওয়া গেছে বলে তিনি জানান।
তিনি বলেন, রাষ্ট্রের সকল ক্ষমতাকে ব্যবহার করে সরকার ভিন্নমতালম্বি ও সরকারের বিরোধীদের দমন করছে। আমার দেশের সম্পাদক মাহমুদুর রহমান ও বয়োজ্যেষ্ঠ সাংবাদিক শফিক রেহমানও সরকারে নির্যাতন ও নীপিড়নের হাত থেকে রক্ষা পায়নি। শুধু তাই নয়, সরকারবিরোধী ও ভিন্নমতালম্বীদের দমন করতে তারা মিডিয়া ও রাষ্ট্রীয় শক্তিকেও ব্যবহার করছে।
বিএনপি মহসচিব মির্জা আলমগীর মরহুম জননেতা কাজী জাফর আহমেদের স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে বলেন, কাজী জাফর আহমেদের শূন্যতা এদেশে আর কখনও পূরণ হওয়ার নয়। তিনি এদেশের মানুষের জন্য তার জীবন উৎসর্গ করে গেছেন অন্যায়ের বিরুদ্ধে ও ন্যায়ের পক্ষে আর গণতন্ত্রর প্রতিষ্ঠার আন্দোলন সংগ্রামের মধ্যদিয়ে। তিনি কখনও এদেশের জনগণের সাথে বিশ্বাস ঘাতকতা করেননি।
তিনি বলেন, জঙ্গিবাদের অভিযোগে কাউকে তদন্ত করে আদালতে পাঠানো হয়েছে- এমন একটি ঘটনাও আমার জানা নেই। তদন্তের আগেই এদের হত্যা করা হচ্ছে। মানুষ জানতেও পারল না তারা আসলে জঙ্গি না অন্য কিছু।
তিনি বলেন, এতো নির্যাতন সহ্য করে একটি লক্ষেই আমরা আন্দোলন করে যাচ্ছি। তা হলো জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠার আন্দোলন। এ অধিকার প্রতিষ্ঠায় জাতীয় ঐক্য গড়ে তুলতে হবে।
অনুষ্ঠানে পার্টির মহাসচিব মোস্তফা জামাল হায়দার বলেন, যে দেশে দুর্বৃত্তরা ঘরে ঢুকে একজন সংসদ সদস্যকে গুলি করে হত্যা করে, সে দেশের সাধারণ জনগণের নিরাপত্তা কোথায় গিয়ে দাঁড়িয়েছে তা বোঝাই যাচ্ছে। তিনি ক্ষমতাসীনদের উদ্দেশ্য করে বলেন, দয়া করে নির্বাচন দিয়ে সরে যান। তা না হলে জাতিকে বাঁচাবার আর কোনো উপায় নেই।
জাতীয় পার্টির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ডক্টর টি আই এম ফজলে রাব্বি চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য খালেকুজ্জামান চৌধুরী, আহসান হাবিব লিঙ্কন, নওয়াব আলী আব্বাস খান, আলহাজ সেলিম মাস্টার, এস এস এম আলম, জাফরুল্লাহ খান লাহড়ি, কাজী জাফর আহমেদের বড় মেয়ে কাজী জয়া প্রমুখ।
অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন পার্টির যুগ্ম মহাসচিব এ এস এম শামীম।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ