Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ২৯ এপ্রিল ২০১৭, ১৬ বৈশাখ , ১৪২৪, ২ শাবান ১৪৩৮ হিজরী।

বড়পুকুরিয়ায় শ্রমিকদের আন্দোলন প্রত্যাহার, খনিতে স্বাভাবিক অবস্থা

পার্বতীপুর (দিনাজপুর) সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৩০ নভেম্বর, -০০০১, ১২:০০ এএম

পার্বতীপুর (দিনাজপুর) সংবাদদাতা : বড়পুকুরিয়ায় শ্রমিকরা আন্দোলন প্রত্যাহার করেছেন। কয়লা খনিতে এখন স্বাভাবিক অবস্থা বিদ্যমান । শুরু হয়েছে আগের মত কয়লা উৎপাদন ।

সূত্রমতে সংকট নিরসনে গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে খনির ট্রেনিং সেন্টারে সমঝোতা বৈঠকের আয়োজন করা হয় । চলে রাত ৮টা পর্যন্ত । দিনাজপুরের জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(প্রশাসন) মাহফুজ-উজ্জামান আশরাফ, ইউএনও তরফদার মাহমুদুর রহমানের উপস্থিতিতে পেট্রোবাংলার প্রতিনিধি হিসেবে কয়লা খনির ব্যবস্থাপনা পরিচালক এস এম নূরুল আওরঙ্গজেব, ডিজিএম জাফর সাদিক ও শ্রমিকদের উপদেষ্টা পার্বতীপুর আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. হাফিজুল ইসলাম প্রামানিক, শ্রমিক সংগঠনের সভাপতি মো. রবিউল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মো. সুফিয়ানের সমন্বয়ে আলোচনা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা ফলপ্রসূ হওয়ার পর শ্রমিকরা আন্দোলন প্রত্যাহার করে নেন । এরপরে উপরে উঠে আসে খনির ১৪ শ গভীরে ভূগর্ভে অবস্থান ধর্মঘটরত ২৮৫ শ্রমিক।

এ সত্যতা নিশ্চিত করে খনির শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি মো. রবিউল ইসলাম আজ বুধবার দুপুরে জানান বৈঠকে উপস্থিত প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের পরামর্শ ও এলাকার সংসদ সদস্য প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী এডভোকেট মোস্তাফিজুর রহমানের অনুরোধে আমরা আন্দোলন প্রত্যাহার করেছি । চাকুরী স্থায়ীকরনের দাবী নিয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও বিদ্যুৎ, জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রীর সাথে সাক্ষাত করতে ৫০ সদস্যের টীম নিয়ে আজ বুধবার সন্ধ্যায় ঢাকা রওয়ানা হবো।

চীনা ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান সিএমসি ও এক্সএমসির যৌথ চুক্তিতে ৮৫০ ও তৃতীয় পক্ষের ১৯১ মোট ১০৪১ খনি শ্রমিক চাকুরী স্থায়ীকরনের দাবীতে আন্দোলন করে আসছেন। খনির ব্যবস্থাপনা পরিচালক জানান খনিতে এখন স্বাভাবিক অবস্থা বিরাজ করছে।

 


দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।