Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ২৪ জুন ২০১৭, ১০ আষাঢ়, ১৪২৪, ২৮ রমজান ১৪৩৮ হিজরী

কেপিএম বাঁচানোর দাবিতে মানববন্ধন

| প্রকাশের সময় : ১২ জানুয়ারি, ২০১৭, ১২:০০ এএম

কাপ্তাই (রাঙ্গামাটি) উপজেলা সংবাদদাতা : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পেপার মিলস বাঁচান, শ্রমিক-কর্মচারীদের বাঁচান, আপনি ছাড়া এশিয়া বৃহৎ কাগজ কলটিকে কেউ বাঁচাতে পাড়বে না। এ আকুতি সম্বলিত ব্যানার, প্লেকার্ড ও শ্লোগানে গতকাল বুধবার সকাল ১০টায় কাপ্তাই বড়ইছড়ি সদর এলাকায় কাপ্তাই-চট্টগ্রাম প্রধান সড়কে দাঁড়িয়ে কর্ণফুলী পেপার মিলস (কেপিএম) লিঃ সকল শ্রমিক-কর্মচারী, কর্মকর্তা ও সর্বস্তরের লোকজন ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন করে। কর্ণফুলী পেপার মিলেস এর অব্যবস্থাপনা, অনিয়ম, দুর্নীতি, গাফিলতিতে মিলটি আজ বন্ধ হতে চলছে। শ্রমিক/কর্মচারীদের তিনমাস যাবত বেতন-ভাতাসহ সব বন্ধ। অব্যবস্থাপনার কারণে কেপিএমের কোটি, কোটি টাকার সম্প্রতি আজ বেহাত হতে চলছে। অবসরজনিত কারণে শ্রমিকরা আজ কোন ধরনের টাকা-পয়সা না পেয়ে মানবতার জীবনযাপন করছে। মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা আ.লীগের সভাপতি ও সাবেক পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার। তিনি বলেন, বর্তমান সরকার মিল-কলকারখানা বন্ধের পক্ষে নয়, চালুর পক্ষে। রাঙ্গামাটি টেক্সটাইল মিল তিনবার বিএনপি সরকারের আমনে বন্ধ করা হয়েছিল। আ.লীগ ক্ষমতায় এসে তা চালু করেছে। কেপিএমও বন্ধ হবে না। সকল ষড়যন্ত্র আমরা তদন্ত করে এর ব্যবস্থা নিব। আগামী ১৫ জানুয়ারি বিসিআইসির বোর্ড মিটিং আছে। আমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও শিল্পমন্ত্রীকে এ ব্যাপারে অবগত করবো বলে তিনি শ্রমিক/কর্মচারীদের আশ্বস্ত করেন। মানববন্ধনে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন শ্রমিক নেতা মোঃ ইউনুস আলী, কাজী মাকসুদুর রহমান মুক্তার, তৌহিদ আলমাহামুদ চৌধুরী, ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ারুল ইসলাম চৌধুরী বেবী, রাঙ্গামাটি জেলা আ.লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক মফিজুল হক, মোঃ হানিফ, কাপ্তাই উপজেলা আ.লীগ সভাপতি অংসুইছাইন চৌধুরী, সম্পাদক ও জেলা পরিষদ সদস্য থোয়াইচিং মং মামরমাসহ প্রমুখ।

 


দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।