Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১০ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

ফাঁদ পেতে দুর্নীতিবাজদের ধরা হবে -দুদক চেয়ারম্যান

| প্রকাশের সময় : ১২ জানুয়ারি, ২০১৭, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেছেন, যেসব দপ্তরে অধিক দুর্নীতি হয় বলে জনশ্রুতি রয়েছে, সেখানে ফাঁদ পেয়ে দুর্নীতিবাজদের ধরা হবে। নতুন বছর হবে দুর্নীতিবাজদের জন্য আতঙ্কের। গতকাল বুধবার রাজধানীর সেগুনবাগিচাস্থ প্রতিষ্ঠানটির নিজ কার্যালয়ে এ সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।
দুদক চেয়ারম্যান দুর্নীতিবাজদের এই বলে হুঁশিয়ার করেন, ঘুষ গ্রহণ বন্ধ করুন, নইলে কঠিন পরিণতির জন্য অপেক্ষা করুন। ফাঁদ পেতে দুর্নীতিবাজদের ধরার ঘটনায় ২০১৬ সালে ১৩টি মামলা হয়। ফাঁদ পেতে দুর্নীতিবাজদের ধরা ও মামলার বিষয়টি চলতি বছর বেগবান করা হবে। দুর্নীতিপ্রবণ দপ্তরগুলোতে বিশেষ নজরদারির বিষয়টি এবার দৃশ্যমান হবে।
এ সময় তুলে ধরা হয় দুদকের গত এক বছরের অর্জনের ফিরিস্তি। দন্তহীন বাঘ, দায়মুক্তির কমিশন এতোসব তকমা রাষ্ট্রের দুর্নীতিবিরোধী সংস্থা দুদকের। কেননা বিগতবছরগুলোর দুদকের কাজের খতিয়ান মিলালেই দেখা যাবে যতোটি হয়েছে মামলা তারচেয়ে বেশি মিলেছে দায়মুক্তির ঘটনা। অভিযোগ এসেছে অনেক আমলে নেয়া হয়েছে গুটিকয়েক। কিন্তু ২০১৬ সালে ভিন্ন রুপে  দেখা গেছে দুদককে। মামলা ও সাজার হার বেড়েছে। গ্রেফতার হয়েছেন ৩৩৮ জন। এরমধ্যে ব্যাংকিং খাতের ৮৭ জন, সরকারি কর্মকর্তা ১৬৮ জন, জনপ্রতিনিধি ১৩ জন ও বিভিন্ন খাতের ১১২ জনকে গ্রেফতার করেছে প্রতিষ্ঠানটি। সেবা সবার কাছে পৌঁছে দিতে হটলাইন চালু এবং জেলায় জেলায় সততা স্কুল চালু করার সিদ্ধান্তের কথা জানান তিনি।
তিনি বলেন, রাজধানীর স্কুলগুলোর ভর্তিতে অনিয়ম ও বাণিজ্য বরাবরই সংবাদ শিরোনাম। তাই শক্তিশালী কমিটি গঠনের মাধ্যমে তা প্রতিরোধসহ নানা কর্মপরিকল্পনা নিয়েছে দুদক। বিভিন্ন স্কুলে, বিশেষ করে রাজধানীর স্কুলগুলোতে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ তারা পাচ্ছেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে আমরা স্যামপ্লিং প্রক্রিয়ার মাধ্যমে ১৫টি স্কুল বাছাই করে তাদের কাছে ভর্তি সংক্রান্ত তথ্য ও নীতিমালা জানতে চেয়ে চিঠি দিয়েছি। স্কুলগুলোর ভর্তি প্রক্রিয়া সম্পর্কিত নীতিমালা রয়েছে কি-না, থাকলে সে নীতিমালা কতটুকু মানা হচ্ছে, অতিরিক্ত টাকা ডোনেশন দিয়ে ভর্তি করা হচ্ছে কি না ছাড়াও ভর্তি সংক্রান্ত নানা দুর্নীতি গভীরভাবে অনুসন্ধান করা হবে।
এ সংবাদ সম্মেলনে দুদক সচিব আবু মোহাম্মদ মোস্তফা কামাল এবং কমিশনার নাসিরুদ্দিন আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন