Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ২৬ মে ২০১৭, ১২ জ্যৈষ্ঠ , ১৪২৪, ২৯ শাবান ১৪৩৮ হিজরী

২০০তম টেস্টের সামনে দাঁড়িয়ে সতর্ক নিউজিল্যান্ড

| প্রকাশের সময় : ১২ জানুয়ারি, ২০১৭, ১২:০০ এএম

বিশেষ সংবাদদাতা : নিজেদের মাঠে টেস্টে নিউজিল্যান্ড প্রবল ক্ষমতাধর। বিশেষ করে উপমহাদেশের দলগুলোর বিপক্ষে। টেস্টের রাজদ- হাতে পেয়েও মিসবাহ, ইউনিস খানদের পাকিস্তানকে  গত নভেম্বরে  হোয়াইট ওয়াশের লজ্জা দিয়েছে কিউইরা। ২০১৫’র ডিসেম্বরে ও ২ ম্যাচের টেস্ট সিরিজে শ্রীলঙ্কাকে হোয়াইট ওয়াশে বাধ্য করেছে নিউজিল্যান্ড। নিউজিল্যান্ডের মাটিতে সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়া ছাড়া অন্য কেউ করতে পারেনি সুবিধা। বাংলাদেশকে ওয়ানডেতে ৩-০, টি-২০ তেও একই ব্যবধানে হোয়াইট ওয়াশ করে টেস্টেও শতভাগ সাফল্যে তাই চোখ নিবিষ্ট নিউজিল্যন্ডের। ওয়েলিংটনের বেসিন রিজার্ভে সর্বশেষ চার টেস্টে জয়ের পাল্লা ভারী নিউজিল্যান্ডের, ২ জয়, ১ ড্র’ ১ হার। বাংলাদেশের বিপক্ষে নিজেদের মাটিতে অতীতে পাঁচ টেস্টের সব ক’টিকেই জয়ে রূপ দিতে পেরেছে পূর্বসূরীরা। সেই অতীত থেকেও টনিক নিচ্ছে কিউইরা। দলে ফিরেছেন রস টেলরের মতো সময়ের সেরা ক্রিকেটার- সাউদি, ট্রেন্ট বোল্টের মতো গতি তারকারাও আছে কিউই দলে মজুদ। সে কারণেই বাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্ট জয়ের ছক আঁকছেন নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন।
ওয়ানডে, টি-২০ থেকে টেস্টে রঙ বদলের খেলাকে সামনে রেখে অবশ্য সতর্ক নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক- ‘সাদা বলের ক্রিকেট থেকে ফিরে বেসিক ঠিক রেখে খেলাটাই গুরুত্বপূর্ণ। সাদা বল থেকে লাল বলের খেলায় ফিরে আসতে হচ্ছে বলে মানসিকভাবে পরিবর্তন আনতে হবে। গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার হলো দ্রুত মানিয়ে নেয়া।’   
সবুজ উইকেট প্রস্তুত রাখার উদ্দেশ্য একটাই, স্বাগতিক পেস বোলারদের জন্য সুবিধা তৈরি করে দেয়া। শর্ট বলে বাংলাদেশ ব্যাটসম্যানদের ওয়ানডে সিরিজে পর্যুদস্ত করার অতীত থেকেই তাই পেসারদের উপর দাবিটা বেশি কিউই অধিনায়কের। পাশাপাশি বাংলাদেশ দলের পেসারদের পরখ করে নিয়ে তাদেরকেও সমীহ করতে হচ্ছে উইলিয়ামসনকে- ‘আমি মনে করি, ওদের কয়েকজন প্রতিভাবান পেসার রয়েছে। ওয়াডেতে সেটা তারা দেখিয়েছেও। ওরা ভালো গতিতে বল করে। আমাদের কন্ডিশনে খেলার কিছুটা ঘাটতি আছে।’
বাংলাদেশ ক্রিকেট দলে এক ঝাঁক তরুণ সম্ভাবনামীয় ক্রিকেটারের সমাবেশ বলে টেস্টে বাংলাদেশকে হালকা চোখে দেখতে নারাজ তিনিÑ ‘আমি নিশ্চিত, ওরা বাংলাদেশ দলে এইসব তরুনরা অনেক দিন খেলবে। সারা বিশ্বে খেলে ওরা যে অভিজ্ঞতা অর্জন করবে, তাতে  ওরা  আরও ভালো ে খলোয়াড় হিসেবে পরিণত করবে। নিঃসন্দেহে  ওরা ভালো একটি দল, তাই  নিজেদের সেরা ক্রিকেট খেলতে হবে আমাদের।’
বাংলাদেশের বিপক্ষে নিউজিল্যান্ড খেলতে তিন পেসার এবং এক পেস অল রাউন্ডার নিয়ে। দলে স্পেশালিস্ট স্পিনার মাত্র একজন- মিচেল স্যান্টনার। ৯ বছর আগে নিউজিল্যান্ড সফরের প্রথম টেস্টে ৫০তম টেস্ট খেলেছে বাংলাদেশ দল। সেই বাংলাদেশের বিপক্ষে আজ ওয়েলিংটন টেস্ট নিউজিল্যান্ডের জন্য একটি মাইলফলক- ২০০তম টেস্ট পূর্তির সামনে দাঁড়িয়ে কিউইরা।

 


দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।